৬ জন লাখপতি নিয়ে খুলনা অনলাইন সেলস্ গ্রুপের ৫ম পন্য প্রদর্শনী উৎসবের সমাপ্তি

0
30

মফিজুল ইসলাম:
খুলনা অনলাইন সেলস্ গ্রুপের পক্ষ থেকে ৩ দিনব্যাপী পন্য প্রদর্শনী উৎসব মেলার সমাপ্তি হয়েছে। লিন্ডা ফাতেমাতুজ জোহরার আয়োজনে হোটেল রয়্যাল ইন্টারন্যাশনালে ৭ তারিখ থেকে শুরু হওয়া এই উৎসব গতকাল শনিবার(৯ অক্টোবর) রাত ১০ টায় শেষ হয়।

লিন্ডা ফাতেমাতুজ জোহরার আয়োজনে এটি ছিল পঞ্চম মেলা। এর আগে চারটি মেলা সফলতার সাথে শেষ হয়েছিল বলে জানান আয়োজক কর্তৃপক্ষ।

খোঁজ নিয়ে জানা যায় পূর্বের ১ম মেলায় ১০ জন লক্ষাধিক টাকা বিক্রি করেন। এই মেলায় সর্বোচ্চ বিক্রি ছিল ২ লক্ষ ১৮ হাজার টাকা। ২য় মেলায় ৮ জন লক্ষাধিক টাকা বিক্রি করেন। এই মেলায় সর্বোচ্চ বিক্রি ছিল ১ লক্ষ ৭০ হাজার টাকা। ৩য় মেলায় ১০ জন লক্ষাধিক টাকা বিক্রি করেন। এই মেলায় সর্বোচ্চ বিক্রি ছিল ১ লক্ষ টাকার বেশী। ৪র্থ মেলায় ৭ জন লক্ষাধিক টাকা বিক্রি করেন। এই মেলায় সর্বোচ্চ বিক্রি ছিল ১ লক্ষ ২০ হাজার টাকা। সর্বশেষ এবারের মেলায় ৬ জন লক্ষাধিক টাকা বিক্রি করেন। এই মেলায় সর্বোচ্চ বিক্রি ছিল ১ লক্ষ ৬০ হাজার টাকা।এছাড়াও এই মেলা গুলোতে অর্ধলক্ষ টাকা বিক্রির সংখ্যা শতাধিক।

নারী উদ্যোক্তদের জন্যই মুলত এই মেলার আয়োজন করা হয়। এখানে বাসায় তৈরী বিভিন্ন ধরনের পিঠা, কেক, বাচ্চাদের পোশাক, সোপিচসহ বিভিন্ন ধরনের আইটেম ও দেশী বিদেশি পন্যও এখানে প্রদর্শন করা হয়ে থাকে।
এবারের মেলায় নতুন পুরাতন উদ্যোক্তা ও অনলাইন সেলারের মোট ৪৭ টি বিভিন্ন আইটেমের দোকান নিয়ে অংশ গ্রহন করেন। উদ্যোক্তদারে সাথে কথা বলে জানা যায়, অনলাইনের বাহিরে এমন আয়োজনের মাধ্যমে পন্য প্রদর্শন ও বিক্রির সুযোগ করে দেওয়া তারা অনেক খুশি। সেই সাথে উদ্যোক্তদারের পন্য প্রদর্শন ও বিক্রয়েরও জন্য সরকারের পক্ষ থেকে ফ্রি যায়গার ব্যবস্থা করে দেওয়ার জন্য অনুরোধ জানান তারা।

মেলার আয়োজক লিন্ডা ফাতেমা তুজ জোহরা বলেন, যারা দোকান দেওয়ার সক্ষমতা রাখেনা, অনলাইনে বিক্রি করেন তাদের সুযোগ করে দেওয়ার জন্য এমন আয়োজন করে থাকেন। তবে এই মেলা গুলো করার জন্য অনুমোদন পাননা বলে অভিযোগ করেন তিনি। এমনি কি মেলার দিনও মেলা বন্ধ করে দেওয়া হয় অভিযোগ করেন তিনি। তিনি আরও বলেন, এই মেলার মাধ্যমে নারীরা কিছু করার সক্ষমতা রাখেন সেটা যেমন প্রমান করা যায় তেমনি অসচ্ছল নারীদের উপার্জনের একটা মাধ্যম হয়। এজন্য তিনি সরকার ও সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকের প্রতি অনুরোধ জানান উদ্যোক্তদারে নিয়ে মেলার আয়োজন গুলোকে অনুমোদন দেওয়া ও মেলার জন্য ফ্রি স্পেসের অনুমোদন দেওয়ার।

মেলার স্টাইল এন্ড ফ্যাশনের ওনার সুমি আক্তার কণা বলেন, নারী উদ্যোক্তাদের উন্মোক্ত একটা প্লাটফর্ম তৈরী করে দেওয়ার জন্য এই ধরনে আয়োজন। তিনি আরো বলেন ৭২ ঘন্টায় লাখপতি হওয়ার সুযোগ রয়েছে এই মেলায়।
মেলায় অংশগ্রহনকারী অনলাইন সেলাররা জানান, এই মেলা থেকে তারা অনেক লাভবান হয়ে থাকেন। এবং অনলাইন প্লাটফর্ম থেকে বেরিয়ে এসে এমন প্রদর্শণীর আয়োজকদের ধন্যবাদ জানান এবং এমন প্রদর্শনী উৎসব বেশী বেশী করার আহবান জানান।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here