৭৩৬ রানের ম্যাচে স্কটিশদের কাছে হারলো ইংল্যান্ড

0
234

স্পোর্টস ডেস্ক:
স্কটল্যান্ডের জয়টা শুধু ইংল্যান্ডের বিপক্ষেই নয় বলা যায় আন্তর্জাতিক ক্রিকেট সংস্থাকেও (আইসিসি) কড়া জবাব। মাত্র দশ দলের রোষানলে ২০১৯ বিশ্বকাপ থেকে কাটা পড়েছে জিম্বাবুয়ে, আয়ারল্যান্ড কিংবা স্কটল্যান্ডের মতো দলগুলো।

এক ম্যাচের ওয়ানডেতে গতকাল রোববার স্কটল্যান্ডের মুখোমুখি হয় ইংলিশরা। স্কটল্যান্ডের এডিনবার্গে গ্র্যাঞ্জ ক্রিকেট ক্লাব মাঠে টস জিতে আগে ফিল্ডিং করার সিদ্ধান্ত নেয় সফরকারী দল।
ব্যাটিংয়ে নেমে স্কটিশ ব্যাটসম্যানরা শুরু থেকেই চেপে বসে ইংলিশ বোলারদের উপর।

নবংঃ
দুই ওপেনার ম্যাথু ক্রস ও কাইল কোয়েটজার মিলে মাত্র ১৩ ওভারেই করেন ১১৩ রানের জুটি। ৪৯ বলের ৫৮ রানের ইনিংস খেলে ক্যাচ আউট হন কাইল। এর পরের ওভারেই আরেক ওপেনার ক্রসও পথ ধরেন কাইলের। তার ব্যাটে আসে ৩৯ বলে ৪৮ রান।

দুই নম্বরে ব্যাট করতে আসা কালাম ম্যাকলিওড যে এমন ভয়ানক রূপ নিবেন সেটা হয়তো নিজেও জানতেন না। ১৬ চার আর তিন ছয়ে মাত্র ৯৪ বলে করেন ১৪০ রান।
এরপর ব্যাট করতে আসা রিচি বেরিংটন, জর্জ মানসিদের দুর্দান্ত ব্যাটিংয়ে ৫০ ওভার শেষে ৫ উইকেটে স্বাগতিকদের দলীয় সংগ্রহ দাঁড়ায় ৩৭১। যা কিনা ইংল্যান্ডের বিপক্ষেই নয়, সহযোগী দেশগুলোর মধ্যে সর্বোচ্চ রান।

ইংলিশদের হয়ে আদিল রশিদ, লিয়াম প্লাঙ্কেট নেন দুটি করে উইকেট। ১টি উইকেট তুলে নেন মার্ক উড।

৩৭১ রানের পাহাড়সম লক্ষ্য তাড়া করতে হলে এদিন রেকর্ড করতে হতো ইংল্যান্ডকে। কেননা এর আগে কখনও এত রান তাড়া করে জিততে পারেনি ক্রিকেটের জনকরা।

দুই ওপেনার জেসন রয় আর জনি বেরিস্টো মিলে করেন ১২.৪ ওভারে ১২৯ রান। রয় ধীরে খেললেও আরেক প্রান্তে বেরিস্টো একের পর এক বল পাঠান সিমানার বাইরে। রয় ৩২ বলে ৩৪ রান করে আউট হলেও উইকেট-রক্ষক বেরিস্টো হাঁকান ৫৯ বলের ঝড়ো শতক। আউট হন ১০৫ রান করে।

বেরিস্টোর পর এলেক্স হেলস করেন ৫৬ বলে ৫২ রান। হেলসের বিদায়ের পরই স্কটল্যান্ডের বোলারদের চাপে পড়ে যায় ইংলিশ ব্যাটসম্যানরা। মইন আলী আর লিয়াম প্লাঙ্কেট রানের চাকা সচল রাখলেও শেষ পর্যন্ত আর রেকর্ড গড়ে জিততে হয়নি ইংল্যান্ডকে।

৪৮.৫ ওভারে সব উইকেট হারিয়ে ৩৬৫ রান পর্যন্ত তুলতে সক্ষম হয় ইংল্যান্ড। ৬ রানের জয়ের স্বাদ নিয়ে মাঠ ছাড়ে স্কটল্যান্ড।

স্কটিশদের হয়ে ৩ উইকেট নেন মার্ক ওয়াট। ২ উইকেট করে নেন রিচি বেরিংটন ও আলাসদাইর ইভানস।

অনবদ্য শতকের জন্য ম্যাচ সেরার পুরষ্কার হাতে উঠে স্কটল্যান্ডের কালাম ম্যাকলিওড।