৬০ বছর পার হলেই সিনিয়র নাগরিক ঘোষণা করা এখন সময়ের দাবি

0
77
৬০ বছর পার হলেই সিনিয়র নাগরিক ঘোষণা করা এখন সময়ের দাবি

খবর বিজ্ঞপ্তি:
৬০ বছর পার হলেই প্রবীণের ঘরে নাম লিপিবদ্ধ হয়ে যায়। আধুনিক চিকিৎসা ব্যবস্থার কারণে গড় আয়ু বৃদ্ধি পাওয়ায় আমাদের বর্তমানে মোট জনসংখ্যার প্রায় অর্ধেক হয়ে উঠেছেন তারা। সিনিয়র নাগরিকদের প্রতি তরুণ প্রজন্মের অসম্মান কখনও বাঙালির মূল্যবোধ হতে পারে না। এছাড়া দারিদ্র ও নিঃসঙ্গতা সিনিয়র নাগরিকদের কাছে অভিশাপ ছাড়া কিছু নয়। আমাদের দেশে প্রবীণ নীতিমালা আছে। প্রবীণদের সিনিয়র নাগরিক’ ঘোষণা করা এখন সময়ের দাবি। পৃথিবীর উন্নত দেশে ও আমাদের প্রতিবেশি রাষ্ট্র ভারতেও এই সম্মানের স্বীকৃতি দেয়া হয়েছে। একারণেই সেখানে যানবাহনে যাতায়াতে, স্বাস্থ্যসেবা নিতে, ব্যাংকের লেনদেন কার্যক্রমে প্রবীণদের বিশেষভাবে সহযোগিতা দেবার ব্যবস্থা আছে। ‘সিনিয়র নাগরিক’ ঘোষণা করলে এসব সুযোগ তো পাওয়া যাবেই এবং সমাজের অবহেলা, তরুণদের কাছে অসম্মান ও ব্যাঙ্গ-বিদ্রæপের সম্মুখীন হতে হবে না। আমাদের অবশ্যই মনে রাখতে হবে তাদের সম্মান করা, শ্রদ্ধা করা, মর্যাদা দেয়া ও সহায়তা করা আমাদের কর্তব্য হ্ওয়া উচিৎ। এভাবে বললেন আড্ডায় বক্তারা।
সোমবার বিকাল সাড়ে ৩টায় গুণীজন স্মৃতি পরিষদের উদ্যোগে দৌলতুন্নেছা কিন্ডার গার্ডেন প্রাঙ্গণে সিমিয়র নাগরিকদের ভালবাসার আড্ডা অনুষ্ঠিত হয়। গুণীজন স্মৃতি পরিষদের সভাপতি এ্যাড: শামীমা সুলতানা শীলুর সঞ্চালনায়। অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন বীর মুক্তিযোদ্ধা বৃহত্তর খুলনার মুজিব বাহিনীর কমান্ডার কামরুজ্জামান টুকু, অধ্যক্ষ জাফর ইমাম, খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ট্রেজারার অধ্যক্ষ সাধন রঞ্জন ঘোষ, বিএমএ’র সভাপতি ডা: শেখ বাহারুল আলম, বীর মুক্তিযোদ্ধা আ ফ ম মহসিন, খুলনা জেলা আইনজীবী সমিতি সাবেক সভাপতি আব্দুল্লাহ হোসেন বাচ্চু,সমাজসেবক ফজলে খোদা বাচ্চু, সাবেক কর্মকর্তা কামরুল ইসলাম, সিটি ল কলেজের অধ্যক্ষ আওয়াল রাজ, লেখক ও সাংবাদিক গৌরাঙ্গ নন্দী, বাংলাদেশ মানবাধিকার সংস্থার সমন্বয়কারী এ্যাড: মোমিনুল ইসলাম, এ্যাড: নিমাই চন্দ্র রায়, পরিবেশ কর্মি সৈয়দ আলী হাকিম, জাহানারা আলী জানু, আলমাস আরা ,সুন্দরবন লায়ন্স ক্লাবের সভাপতি দিলারা নাসরিন ,রূপসা প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মানস রায়, প্রধান শিক্ষক জাহাঙ্গীর আলম, রুনা রহমান, গেøাবাল খুলনার আহবায়ক শাহ মামুনর রহমান তুহিন, গুণীজন স্মৃতি পরিষদের সাধারণ সম্পাদক সাংবাদিক মহেন্দ্রনাথ সেন, ই্য়াসির আরাফাত রুমি, রিপন কুমার বিশ্বাস প্রমুখ।
সভায় বক্তারা বলেন, অর্থনৈতিক, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক অধিকার এবং ব্যক্তির নাগরিক ও রাজনৈতিক অধিকার নিশ্চিত ও অন্যান্য পারির্পাশ্বিকতা বিবেচনায় রেখে তাদের বক্তব্য কার্যকরভাবে প্রকাশের সুযোগ দেয়া।