৫ অক্টোবর গ্রহণযোগ্য নির্বাচনের দাবিতে মহাসমাবেশের ডাক চরমোনাই পীরের

0
584

নিজস্ব সংবাদদাতা, খুলনা টাইমসঃ

সংসদ বহাল রেখে নির্বাচন করলে তা গ্রহণযোগ্য হবে না দাবি করে সুষ্ঠু নির্বাচনের দাবিতে মহাসমাবেশের ডাক দিয়েছে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ।

আগামী ৫ অক্টোবর, শুক্রবার বাদ জুমা রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে মহাসমাবেশ করবে চরমোনাই পীরের নেতৃত্বাধীন দলটি।

বৃহস্পতিবার (১৩ সেপ্টেম্বর) দুপুরে রাজধানীর পল্টনে আইএবি মিলনায়তনে সংবাদ সম্মেলনে এ কর্মসূচি ঘোষণা করেন দলটির আমীর সৈয়দ মুহাম্মদ রেজাউল করিম পীর সাহেব চরমোনাই।

সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, ‘সরকার এবারও জাতীয় সংসদ বহাল রেখে নির্বাচন করতে যাচ্ছে। এটি হলে নির্বাচন সুষ্ঠু হবে না। বরং ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারির মতো নির্বাচনের নামে তামাশা হবে। দেশবাসী কোনো তামাশার নির্বাচন মেনে নেবে না।’

‘আমাদের দাবি, সংসদের চলমান অধিবেশনে নির্বাচনকালীন নিরপেক্ষ ও নির্দলীয় ব্যক্তির হাতে ক্ষমতা হস্তান্তর করা, আর বর্তমান অযোগ্য, দলীয় আজ্ঞাবহ নির্বাচন কমিশনের পদত্যাগ। একইসঙ্গে সব নিবন্ধিত দলের মতামতের ভিত্তিতে নতুন নির্বাচন কমিশন গঠন করতে হবে।’

আগামী নির্বাচনে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ তিনশ’ আসনে প্রার্থী দেবে জানিয়ে বলেন, ‘নির্বাচনের সুষ্ঠু পরিবেশ তৈরি হলে তিনশ’ আসনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবো। প্রায় সব আসনেই প্রথম দফায় আমাদের প্রার্থী তালিকা চূড়ান্ত করা আছে।

মুফতি সৈয়দ রেজাউল করিম বলেন, ‘আমরা চাই জনমনে উদ্বেগ-উৎকণ্ঠা দূর হয়ে সর্বত্র স্বস্তি ও শান্তি ফিরে আসুক। দেশে প্রতিহিংসা ও জিঘাংসা আর ধ্বংসের রাজনীতির অবসান ঘটুক।’

ইসলামী আন্দোলন নীতি ও আদর্শের রাজনীতি করে উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘সে ক্ষেত্রে কখনো যদি কারো সঙ্গে জোট হয় তাহলে নীতি ও আদর্শের বাইরে গিয়ে হবে না।’

‘বিভিন্ন দল আমাদের সঙ্গে যোগাযোগ করছে। যদিও এখনো সেভাবে বলার মতো কিছু নেই। তবে কোনো অবস্থাতেই নীতির বাইরে যাবো না।’

এসময় তিনি আসামের নাগরিক তালিকা নিয়ে উদ্বেগ জানিয়ে সেখানকার প্রায় চল্লিশ লাখ ভারতীয় নাগরিককে যে তালিকা থেকে বাদ দেওয়া হয়েছে তার নিন্দা জানান।

৫ অক্টোবরের মহাসমাবেশ থেকে পরবর্তি কর্মসূচি ঘোষণা করা হবে বলেও সংবাদ সম্মেলনে জানান চরমোনাই পীর সৈয়দ মুহাম্মাদ রেজাউল করীম।

দলটির কেন্দ্রীয় নেতাদের উপস্থিতিতে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে সুখি-সমৃদ্ধশালী কল্যাণ রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠার লক্ষে দুর্নীতি ও রাজনৈতিক দুর্বৃত্তায়নের বিরুদ্ধে দলমত নির্বিশেষে সবাইকে সোচ্চার হওয়ার আহবান জানান তিনি।

এসময় উপস্থিত ছিলেন ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের প্রেসিডিয়াম সদস্য অধ্যক্ষ মাওঃ মোসাদ্দেক বিল্লাহ আল মাদানী, মহাসচিব অধ্যক্ষ মাওঃ ইউনুস আহমেদ, অধ্যাপক এটিএম হেমায়েত উদ্দিন, মাওঃ গাজী আতাউর রহমান, আলহাজ্ব আমিনুল ইসলাম, মাওঃ ইমতিয়াজ আলম, মাওঃ আহমদ আব্দুল কাইয়ুম, আলহাজ্ব আব্দুর রহমান, কেএম আতিকুর রহমান, মাওঃ লোকমান হোসেন জাফরী, মুহাম্মদ সাইফুল ইসলাম প্রমুখ নেতৃবৃন্দ।