২ বছর পূর্বে হারিয়ে যাওয়া আইফোন উদ্ধার করল সোনাডাঙ্গা মডেল থানা পুলিশ, কমিশনারের হস্তান্তর

0
29

নিজস্ব প্রতিবেদক
কেএমপি’র সোনাডাঙ্গা মডেল থানা পুলিশ কর্তৃক হারিয়ে যাওয়া iPhone উদ্ধারপূর্বক প্রকৃত মালিকের নিকট হস্তান্তর করা হয়। সোমবার (২২ এপ্রিল) সকাল ১০টা ৪৫ মিনিটে কেএমপি’র সদর দপ্তরস্থ কার্যালয়ে কমিশনার মোঃ মোজাম্মেল হক, বিপিএম (বার), পিপিএম—সেবা ঢাকা থেকে ২ বছর পূর্বে হারিয়ে যাওয়া আইফোন উদ্ধার করে প্রকৃত মালিক বিশিষ্ট ব্যবসায়ী হাজী এস.এ আহাদের নিকট হস্তান্তর করেন।
তিনি হারানো আইফোন খুঁজে পেয়ে অনন্দচিত্তে অনুভূতি ব্যক্তকালে বলেন, “আমার মোবাইল ফোনটি হারানোর পরে খুলনা মেট্রোপলিটন পুলিশের সম্মানিত পুলিশ কমিশনের সাথে দেখা করে এ বিষয়ে বিস্তারিত জানাই। তাৎক্ষণিক কেএমপি’র কমিশনার সোনাডাঙ্গা মডেল থানার অফিসার ইনচার্জকে নির্দেশনা দেন যেন দ্রুত মোবাইল ফোনটি উদ্ধার করে দেন। আমি খুবই আবেগে আপ্লুত ও উচ্ছ্বসিত যে এত দ্রুত আমার আইফোনটি উদ্ধার হবে। আমি খুলনা মেট্রোপলিটন পুলিশের কাছে আজীবন কৃতজ্ঞ থাকব। খুলনা মেট্রোপলিটন পুলিশ আমার কাছে আস্থা এবং ভরসা জায়গা হয়ে থাকবে আজীবন।”
উল্লেখ্য যে, অত্র ঘটনায় হাজী এস.এ আহাদ বাদী হয়ে ডিএমপি’র গুলশান থানার জিডি নং—১১২৯, তারিখ—১৮ মে ২০২২ মূলে সাধারণ ডায়েরী করেন। সেই প্রেক্ষিতে দীর্ঘদীন যাবৎ হারানো ফোনের কোন সন্ধান পাওয়া যাচ্ছিল না। সম্প্রতি জানা যায় আইফোনটি খুলনা বায়তুনূর মার্কেট থেকে ক্রয়সূত্রে সাতক্ষীরায় জনৈক ব্যক্তি ব্যবহার করছে। এরই ধারাবাহিকতায় সোনাডাঙ্গা মডেল থানার এসআই (নিঃ) হাসানুজ্জামান ঘটনার সত্যতা যাচাই করে Play Store নামক দোকানের জনৈক মোঃ সানাম খানকে জিজ্ঞাসাবাদ করে জানা যায় সে ফোনটি জনৈক সায়হান চোধুরী মুন্নার নিকট হতে আইফোনটি ৬০ হাজার টাকায় ক্রয় করেছে। পরবর্তীতে উক্ত iphone 13 pro max জনৈক মোঃ অনিক হোসেনের নিকট ৭১ হাজার টাকায় বিক্রয় করা হয়। উল্লেখিত তথ্য অধিকতর যাচাই বাছায় অন্তে দেখা যায় ফোনটি প্রায় দুই বছর পূর্বে ঢাকা থেকে চুরি হয়ে বিভিন্ন মাধ্যমে Play Store নামক দোকানে পৌঁছায়। এমতবস্থায় জনৈক মোঃ অনিক হোসেনের নিকট হতে আইফোনটি উদ্ধার করে প্রকৃত মালিক বিশিষ্ট ব্যবসায়ী হাজী এস.এ আহাদের নিকট হস্তান্তর করা হয়।
খুলনা মেট্রোপলিটন পুলিশের সাইবার ক্রাইম মনিটরিং সেল খুবই প্রশংসীয় কাজ করে যাচ্ছে। বর্তমানে সাইবার ক্রাইম মনিটরিং সেল সাধারণ মানুষের মোবাইল উদ্ধার করে পুলিশের সেবাকে আরও ত্বরান্বিত করেছে। এছাড়া ফেসবুকসহ বিভিন্ন সামাজিক প্লাটফর্মে ফেক আইডির মাধ্যমে যারা মানুষের মানসম্মান হানি করছে, তাদের বিরুদ্ধেও যথাযথ ব্যবস্থাগ্রহণ করে আইন শৃঙ্খলা সমুন্নত রাখা হচ্ছে।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here