২০০০ কোটি ডলারের সেতু

0
372

অনলাইন ডেস্ক:

সমুদ্রের এক পাশ থেকে অপর পাশ পর্যন্ত বিশ্বের অন্যতম বৃহৎ একটি সেতু তৈরি করেছে চীন। এটি চীনের দুটি বিশেষ প্রশাসনিক অঞ্চল হংকং ও ম্যাকাওকে যুক্ত করবে। ২০০৩ সালে সেতু নির্মাণের সময় বিস্তর বিতর্ক হয়। সমুদ্রের বুকে ভারী কংক্রিট আর স্টিল বসিয়ে ২ হাজার কোটি ডলার ব্যয়ে তৈরি এ সেতু ভূ-রাজনৈতিক অঙ্গনে চীনের উচ্চাকাঙ্ক্ষা বাড়িয়ে দিচ্ছে। দক্ষিণ চীন সাগরে উত্তেজনার মধ্যেই কিছুদিনের মধ্য সেতুটি জনগণের চলাচলের জন্য উন্মুক্ত করে দেওয়ার কথা রয়েছে। সেতু নির্মাণ কর্তৃপক্ষ হংকং-ঝুহাউ-ম্যাকাও ব্রিজ অথোরিটি ছবিগুলো তাদের ওয়েবসাইটে দিয়েছে।


সমুদ্রের ওপর বিশ্বের অন্যতম বৃহৎ সেতু তৈরি করেছে চীন। হংকং থেকে ম্যাকাওয়ে যাতায়াতের জন্য তৈরি হয়েছে এ সেতু।সমুদ্রের ওপর বিশ্বের অন্যতম বৃহৎ সেতু তৈরি করেছে চীন। হংকং থেকে ম্যাকাওয়ে যাতায়াতের জন্য তৈরি হয়েছে এ সেতু।


২০০৩ সালে সেতুটি নির্মাণের কথা শুরু হলে বিস্তর বিতর্ক হয় চীনে। কিন্তু দেশটি সমালোচনার মধ্যও সেতুটি তৈরি করে ফেলে।২০০৩ সালে সেতুটি নির্মাণের কথা শুরু হলে বিস্তর বিতর্ক হয় চীনে। কিন্তু দেশটি সমালোচনার মধ্যও সেতুটি তৈরি করে ফেলে।


এ সেতু নির্মাণ কর্তৃপক্ষের নাম হংকং-ঝুহাউ-ম্যাকাও ব্রিজ অথোরিটি।এ সেতু নির্মাণ কর্তৃপক্ষের নাম হংকং-ঝুহাউ-ম্যাকাও ব্রিজ অথোরিটি।


হংকং থেকে ম্যাকাওয়ে যাতায়াতের জন্য তৈরি এ সেতু ৫৫ কিলোমিটার দীর্ঘ। এ ছাড়া আরও নয়টি বড় শহরকে যুক্ত করবে সেতুটি।হংকং থেকে ম্যাকাওয়ে যাতায়াতের জন্য তৈরি এ সেতু ৫৫ কিলোমিটার দীর্ঘ। এ ছাড়া আরও নয়টি বড় শহরকে যুক্ত করবে সেতুটি।


এ বছরে গ্রীষ্মে সেতুটি জনগণের চলাচলের জন্য উন্মুক্ত করে দেওয়ার কথা রয়েছে।এ বছরে গ্রীষ্মে সেতুটি জনগণের চলাচলের জন্য উন্মুক্ত করে দেওয়ার কথা রয়েছে।


২ হাজার কোটি ডলার ব্যয়ে তৈরি সেতুর শেষ পর্যায়ের কাজে ব্যস্ত প্রকৌশলী ও শ্রমিকেরা।২ হাজার কোটি ডলার ব্যয়ে তৈরি সেতুর শেষ পর্যায়ের কাজে ব্যস্ত প্রকৌশলী ও শ্রমিকেরা।
চীনের নদী পার্ল রিভারের ওপর দিয়ে সেতুটি বিস্তৃত।চীনের নদী পার্ল রিভারের ওপর দিয়ে সেতুটি বিস্তৃত।


চীনের প্রেসিডেন্ট সি চিন পিং সেতুর নির্মাণকাজ দেখছেন।চীনের প্রেসিডেন্ট সি চিন পিং সেতুর নির্মাণকাজ দেখছেন।