সড়ক দূর্ঘটনায় নিহতের দূর্ঘটনাকে কেন্দ্র করে স্বামীকে ফাঁসানোর চেষ্টা!

0
259

ফুলবাড়ীগেট (খুলনা) প্রতিনিধি, খুলনাটাইমস:
ফুলবাড়ীগেটে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত হাসিনার মৃত্যুর ঘটনাকে কেন্দ্র করে স্বামী মুরাদকে ফাঁসানোর ষড়যন্ত্র করছে শশুর বাড়ীর লোকেরা এমন বক্তব্য দিয়েছেন নিহত হাসিনার মেয়ে ্এবং প্রতিবেশীরা। সড়ক দূর্ঘটনায় নিহতের ২৪ ঘন্টা অতিক্রম করলের হাসিনার লাশটি মর্গে পড়ে রয়েছে। মুরাদের শশুর বাড়ীর লোকদের অভিযোগ তাকে হত্যা করা হতে পারে এমন অভিযোগে পোস্টমটেমের জন্য লাশটি খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পড়ে রয়েছে।
রবিবার সন্ধ্যায় নিহতের ফুলবাড়ীগেট যাব্দিপুরের বাড়ীকে গিয়ে দেখা যায় প্রতিবেশীরা হাসিনার ছেলে-মেয়েকে ঘিরে লাশের অপেক্ষা করছে। এ সময় নিহত হাসিনার বড় মেয়ে আর আর এফ প্রি-ক্যাডেট স্কুলের ৮ম শ্রেনীর ছাত্রী তাসলিমা ইসলাম স্বপ্ন উপস্থিত সাংবাদিকদের বলেন, আমার নানু বাড়ীর লোকেরা কারো প্রয়োজনায় পড়ে আমার মায়ের মর্মন্তিক দূর্ঘটনার মৃত্যুকে পুজি করে ষড়যন্ত্র করে আমার বাবাকে ফাঁসাতে চাইছে।
সে জানায় মাস ছয়েক আগে আমরা যখন আমার নানু বাড়ীতে গিয়ে ছিলাম তখন জমি-জমা এবং রাস্তা সংক্রান্ত বিষয়ে আমার মায়ের সাথে দুসম্পর্কের মামা জয়নাল আবেদিন তিলু কথা কাটাকাটি হয়। কখন আমার বাবাকে তারা মোবাইলে অপমান জনক কথা বলে হুমকি ধামকি দিয়ে মাকে নিয়ে যেতে বলে। ঐ ঘটনার পর থেকে নানু বাড়ীর লোকেরা আমার বাবাকে বিভিন্ন ভাবে ফাসানোর চেষ্টা করে।
শনিবার আমার ছোট ভাই ল্যাবরেটরী স্কুল মোড়ে প্রতিভা প্রি-ক্যাডেটের ১ম শ্রেণীর ছাত্র মোঃ তাসিমকে স্কুল থেকে আনতে যাওয়ার পথে মটরসাইকেল দূর্ঘটনায় দুজন আহত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়। পরে বিকালে আমার মায়ের মৃত্যু হয়। মায়ের দুর্ঘটনার মুত্যুকে নিয়ে আমার নানু বাড়ীর লোকেরা যড়যন্ত্র করছে। প্রতিবেশিরা এ সময় মুরাদ-হাসিনার সংসার জীবনে সুখি ছিলো বলে জানান।
এ রির্পোট লেখা পর্যন্ত লাশ খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পড়েছিলো। উল্লেখ্য শনিবার কুয়েট মেইন গেট সংলগ্নে রোর্ডে ইজিবাইক ওভারটেক করে একটি ভ্যানকে সাইট দিতে গিয়ে রাস্তার গর্তের মধ্যে পড়ে সড়কের উপর ছিটকে পড়ে। এ সময় মটরসাইকেল আরহী মো মুরাদ হোসেন ও তার স্ত্রী হাসিনা বেগম আহত হয়। স্থানীয়রা তাদেরকে উদ্ধার করে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হলে মুরাদের স্ত্রী হাসিনা বেগম(৩২) চিকিৎসাধীন অবস্থায় বিকাল ৩টায় মারা যায়।#