স্বাস্থ্যসেবায় বাংলাদেশের চেয়ে পিছিয়ে ভারত: গবেষণা

0
315

অনলাইন ডেস্কঃ

স্বাস্থ্যসেবায় বাংলাদেশ, চীন, শ্রীলংকা ও ভুটানের চেয়ে পিছিয়ে রয়েছে ভারত। সাম্প্রতিক এক গবেষণায় ১৯৫টি দেশের মধ্যে বাংলাদেশের অবস্থান উঠে এসেছে ১৩৩তমতে। আর ভারতের অবস্থান ১৪৫তম।

স্বাস্থ্য বিষয়ক আন্তর্জাতিক জার্নাল ল্যানসেটের এক গবেষণায় এই তথ্য জানানো হয়েছে। এতে বলা হয়েছে, স্বাস্থ্যসেবায় ১৯৫টি দেশের মধ্যে চীনের অবস্থান ৪৮তম, শ্রীলংকার ৭১তম, বাংলাদেশের ১৩৩তম এবং ভুটানের অবস্থান ১৩৪তম। এই তালিকায় নেপালের অবস্থান ১৪৯তম, পাকিস্তানের ১৫৪তম এবং আফগানিস্তানের ১৯১তম।

স্বাস্থ্যসেবায় বিশ্বের সবচেয়ে এগিয়ে থাকা পাঁচটি দেশ হচ্ছে: আইসল্যান্ড, নরওয়ে, নেদারল্যান্ডস, লুক্সেমবার্গ এবং ফিনল্যান্ড ও অস্ট্রেলিয়া। আর সবচেয়ে পিছিয়ে থাকা পাঁচটি দেশ হচ্ছে: সেন্ট্রাল আফ্রিকা রিপাবলিক, সোমলিয়া, গায়েনা-বিসাউ, শাদ ও আফগানিস্তান। ২০১৬ সালের তথ্য অনুসারে গবেষণাটি করা হয়েছে।

অবশ্য গ্লোবাল বার্ডেন অব ডিসিজের এক গবেষণায় বলা হয়েছে, নব্বইয়ের দশকের পর থেকে ভারতের স্বাস্থ্যসেবার মান বেড়েছে। ১৯৯০ সালে যেখানে তাদের স্কোর ছিল ২৪.৭, ২০১৬ সালে সেখানে তাদের স্কোর দাঁড়িয়েছে ৪১.২। স্বাস্থ্যসেবায় দেশটির সবচেয়ে বেশি উন্নতি হয়েছে ২০০০ সাল থেকে ২০১৬ সালের মধ্যে।

ভারতের রাজ্যগুলোর মধ্যে গোয়া ও কেরালায় স্বাস্থ্যসেবার মান সবচেয়ে ভালো। আর সবচেয়ে খারাপ আসাম ও উত্তর প্রদেশে।

প্রসঙ্গত, ২০১৭-১৮ অর্থবছরে বাংলাদেশের সংসদীয় বাজেটে স্বাস্থ্যখাতে বাজেট নির্ধারণ করা হয় ১৬ হাজার ২০৩ কোটি ৩৬ লাখ টাকা। ২০১১ সালে বিশ্বব্যাংকের প্রতিবেদন অনুসারে, বাংলাদেশে প্রতি তিন হাজার জনের জন্য হাসপাতালে একটি বেড রয়েছে। প্রতি দুই হাজার জনের জন্য রয়েছে একজন চিকিৎসক এবং পাঁচ হাজার জনের জন্য রয়েছে একজন নার্স।