স্বাধীনতা এনে দেন বঙ্গবন্ধু, অর্থনৈতিক মুক্তি দিলেন শেখ হাসিনা : এমপি খালেক

0
371
বটিয়াঘাটায় নৌকার ফলাফল বিপর্জয়ের কারণ জানাতে নোটিশ খুলনা জেলা আ’লীগের

খুলনা মহানগর আওয়ামী লীগ সভাপতি ও সাবেক মেয়র আলহাজ্ব তালুকদার আব্দুল খালেক এমপি বলেছেন, বঙ্গবন্ধু’র দক্ষ ও চৌকস নেতৃত্বে বাঙালির স্বাধীনতা অর্জিত হয়েছিলো। স্বাধীনতার নেতৃত্বের কারনে বঙ্গবন্ধু যেমন বিশ্বব্যাপি সমৃদ্ধ হয়েছিলেন ; তেমনি বঙ্গবন্ধু’র কারনেও বাংলাদেশ তথা বাঙালি স্বাধীনতা অর্জনের মাধ্যমে সমৃদ্ধ হয়েছে। এই স্বাধীনতা ও গণতন্ত্রকে প্রতিষ্ঠানিক রূপ দিয়ে আন্তর্জাতিক ভাবে বাংলাদেশকে উন্নয়নশীল দেশের স্বীকৃতি এবং বিশ্বের দ্বিতীয় সেরা প্রধানমন্ত্রীর স্থান অর্জনে সক্ষম হয়েছেন প্রধানমন্ত্রী দেশরতœ জননেত্রী শেখ হাসিনা। পিতার গর্বিত সন্তান হিসেবে পুনরায় নিজেও সমৃদ্ধ হলেন একই সাথে বাংলাদেশকেও সমৃদ্ধ করলেন। তিনি আরো বলেন, বঙ্গবন্ধু বাঙালিকে স্বাধীনতা, সার্বভৌম, সংবিধান এবং গণতন্ত্র এনে দিয়েছেন। তাঁর সুযোগ্য কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এনে দিয়েছেন অর্থনৈতিক মুক্তি। স্বাধীনতা এনেদিয়েছিলো বঙ্গবন্ধু অর্থনৈতিক মুক্তি দিয়েছেন শেখ হাসিনা। এই অর্থনৈতিক অগ্রগতির ধারাকে অব্যহত রাখতে সকলকে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করে শেখ হাসিনাকে চতুর্থবারের মত রাষ্ট্র পরিচালনার দায়িত্বে আনতে হবে।
গত সোমবার সকাল সাড়ে টায় দলীয় কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত স্বাধীনতা দিবসের আলোচনা সভায় সভাপতির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন, খুলনা মহানগর আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ও ১৪ দলের সমন্বয়ক আলহাজ্ব মিজানুর রহমান মিজান এমপি। বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ জাতীয় কমিটির সদস্য এ্যাড. চিশতি সোহরাব হোসেন শিকদার, সাবেক সংসদ সদস্য আলহাজ্ব মোল্লা জালাল উদ্দিন, খুলনা জেলা আওয়ামী লীগ ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক এ্যাড. সুজিত কুমার অধিকারী। অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, আওয়ামী লীগ নেতা কাজী এনায়েত হোসেন, এ এফ এম মাকসুদুর রহমান, এ্যাড. রজব আলী সরদার, আবুল কালাম আজাদ কামাল, কামরুজ্জামান জামাল, তসলিম আহমেদ আশা, লুৎফুন নেছা লূৎফা, এ্যাড. সরদার আনিসুর রহমান পপলু, রনজিত কুমার ঘোষ, এস এম আসাদুজ্জামান রাসেল, মো. ইমরান হোসেন। সভা পরিচালনা করেন, খুলনা মহানগর আওয়ামী লীগ দপ্তর সম্পাদক মো. মুন্সি মাহবুব আলম সোহাগ। এসময়ে উপস্থিত ছিলেন, আওয়ামী লীগ নেতা শেখ হায়দার আলী, মল্লিক আবিদ হোসেন কবীর, এমডিএ বাবুল রানা, এ্যাড. নবকুমার চক্রবর্তী, শ্যামল সিংহ রায়, মকবুল হোসেন মিন্টু, শেখ ফজলুল হক, জোবায়ের আহমেদ খান জবা, এ্যাড. অলোকা নন্দা দাস, হাফেজ মো. শামীম, মফিদুল ইসলাম টুটুল, শামছুজ্জামান মিয়া স্বপন, হাসান ইফতেখার চালু, হাজী মো. নুরুজ্জামান, আবুল কাশেম মোল্লা, এ্যাড. রাবেয়া ওয়ালী করবী, এ্যাড. সেলিনা আক্তার পিয়া, নয়মী বিশ্বাস সাথী, মাসুম বিল্লাহ, শেখ শাহাজালাল হোসেন সুজন, পারভেজ হাওলাদার, গোপাল চন্দ্র সাহা, সরদার আব্দুল হালিম, আতাউর রহমান শিকদার রাজু, মো. জাকির হোসেন, কাউন্সিলর মাহমুদা বেগম, নূরীনা রহমান বিউটি, নুরজাহান রুমি, তাসলিমা আক্তার, রোকেয়া রহমান, সৈয়াদা হেনা বেগম, মুন্সি নাহিদুজ্জামান, এস এম হাফিজুর রহমান হাফিজ, শফিকুর রহমান পলাশ, মোর্শেদ আহমেদ রিপন, জাহিদুল খলিফা, মামুন কবির কচি, মোয়াজ্জেম হোসেন, কবীর পাঠান, রাশিদুজ্জামান রিপন, রোজী ইসলাম নদী, মো. সুমন, মুজিবুর রহমান মুজিব, আসাদুজ্জামান বাবু, আবু সাঈদ রনি, জব্বার আলী হীরা,ইমরান হোসেন জ্যাকি, রনবীর বাড়ৈই সজল, আলম আমিন এহসান ইমু, মাসুদ হোসেন সোহান, রফিকুল ইসলাম লিকন, মাহমুদুল হাসান শাওন, মো. আবু সাঈদ খান, ঝলক বিশ্বাস, মৃনাল কান্তি বাছাড়, আলিমুল জিয়া, সোহান হোসেন শাওন, তানভীর রহমান আকাশ, মাহমুদুর রহমান রাজেস, শুভ সেন, তরিকুল ইসলাম তুফান, ইয়াছিন আরাফাত খান, শাহীন আলম, আশিকুজ্জামান তানভীর, দিবাকর সাহা, চিশতি নাজমুল বাশার, জহির আব্বারস, বাধন হালদার, মো. রাজু হোসেন, মশিউর রহমান বাদশা, চয়ন বালা, মেহেদী হাসান সুজন, রেদওয়ান মারুফ, জনি বসু, রুম্মান আহমেদ, রাশেদুল ইসলাম বাদশা সহ দলের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ।
এর আগে সকাল ৭টায় গল্লামারি স্মৃতিসৌধে শ্রদ্ধা নিবেদন, সকাল সাড়ে ৭টায় দলীয় কার্যালয়ে জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলন, বঙ্গবন্ধু’র প্রতিকৃতিতে মাল্যদান এবং সকাল ৮টায় দলীয় কার্যালয় চত্বরে জাতীয় সংগীত পরিবেশন করা হয়।
সংবাদ বিজ্ঞপ্তি