সেনবাগে উঁচু ভবন থেকে ফেলে স্বামীকে হত্যার অভিযোগে স্ত্রী আটক

0
170

টাইমস ডেস্ক:
নোয়াখালীর সেনবাগ উপজেলার কেশারপাড় ইউনিয়নের কানকিরহাট বাজারের মো. তাজুল ইসলাম (৪৮) নামে এক অটোরিকশা ব্যবসায়ীকে উঁচু ভবন থেকে ফেলে দিয়ে স্বামীকে হত্যার অভিযোগে দ্বিতীয় স্ত্রী রেজিয়া বেগমকে (৩০) আটক করেছে পুলিশ। তাজুল ইসলাম কেশারপাড় ইউনিয়নের কেশারপাড় গ্রামের জমাদার বাড়ির আনোয়ার উল্লাহ ছেলে। গত শনিবার সকালে ঢাকার বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তাজুল ইসলাম মারা যান। এর আগে গত ২৮ অক্টোবর তাজুল ইসলাম তার ভাড়া বাসা আরএস টাওয়ারের ৫ তলা থেকে নিচে পড়ে মারাত্বক আহত হন। পরে পরিবারের লোকজন তাকে প্রথম সেনবাগে একটি হাসপাতালে নিয়ে যান। সেখান থেকে তার দ্বিতীয় স্ত্রী রেজিয়া তাকে ঢাকায় নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি করে দিয়ে বাসায় চলে আসেন এবং তাজুল ইসলামের ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে তালা ঝুলিয়ে দিয়ে তার আয়ত্বে নিয়ে নেন। এসময় ঢাকায় তাজুল ইসলামের চিকিৎসার খরচ চালাতে না পারায় আবার তাকে সেনবাগে তার ভাড়া বাসায় নিয়ে এলে দ্বিতীয় স্ত্রী রেজিয়া তাকে বাসায় প্রবেশ করতে দেননি। পরে এলাকাবাসী ফের তাকে ঢাকায় নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি করালে গত শনিবার চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। এই মৃত্যুর জন্য দ্বিতীয় স্ত্রী দায়ী বলে প্রথম স্ত্রীর মেয়ে থানায় অভিযোগ করলে সেনবাগ থানার এসআই নুর হোসেন গত শনিবার রাতে তাকে আটক করে থানায় নিয়ে যান। সেনবাগ থানার ওসি আবদুল বাতেন মৃধা জানান, তাজুল ইসলাম তিনটি বিয়ে করেছেন। তিনি দ্বিতীয় স্ত্রীর সঙ্গে কানকির হাট আরএস টাওয়ার নামে একটি বিল্ডিংয়ে ভাড়া থাকতেন। ২৮ অক্টোবর তিনি বিল্ডিং থেকে পড়ে গিয়ে আহত হন, এবং গত শনিবার চিকিৎসাধীন অবস্থায় ঢাকায় মারা যান। তার মৃত্যু নিয়ে রহস্য সৃষ্টি হয়েছে। তাই দ্বিতীয় স্ত্রীকে জিজ্ঞাসাবাদ করার জন্য আটক করা হয়েছে।