সুন্দর আগামী প্রতিষ্ঠায় বাল্যবিবাহ প্রতিরোধে সকলকে এগিয়ে আসার আহবান সাংসদ মিজানের

0
801

 

খুলনা টাইমস প্রতিবেদন : বাল্যবিবাহ প্রতিরোধ বিষয়ক গনশুনানীতে নাগরিকদের প্রশ্নের জবাবে খুলনা-২ আসনের সংসদ সদস্য আলহাজ্জ মোঃ মিজানুর রহমান মিজান বলেছেন, বাল্যবিবাহ প্রতিরোধে প্রশাসন কঠোর ভূমিকা পালন করছে। সুন্দর আগামী প্রতিষ্ঠায় দেশে বাল্যবিবাহ শূন্যতে নামিয়ে আনতে শুধু সরকার এবং প্রশাসনকে কাজ করলে হবে না, সকলকে একযোগে কাজ করতে হবে।
আজ সোমবার সকালে রূপান্তর-এর প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে বাল্যবিবাহ বিষয়ক গনশুনানীতে প্রধান অতিথির ভাষণে তিনি এ কথা বলেন। প্লান ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশের সহায়তায় রূপান্তর পরিচালিত গার্লস এ্যাডভোকেসি এ্যালায়েন্স প্রকল্পের পক্ষ থেকে আয়োজিত এ গনশুনানীতে সভাপতিত্ব করেন রূপান্তর-এর নির্বাহী পরিচালক স্বপন কুমার গুহ, শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন গার্লস এ্যাডভোকেসি এ্যালায়েন্স প্রকল্পের বিভাগীয় সমন্বয়কারীর তছলিম আহমেদ টংকার-এর পক্ষে ধনঞ্জয় সাহা বাপি। রূপান্তরের কর্মসূচী সমন্বয়কারী অসীম আনন্দ দাসের সঞ্চালনায় এ অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন খুলনা সিটি কর্পোরেশনের প্যানেল মেয়র রুমা খাতুন, সমাজসেবা অধিদপ্তর -এর উপ-পরিচালক শেখ মাহিনুল হক এবং উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা বিপাশা দেবী তনু।
প্রধান অতিথি তার ভাষণে বলেন, বর্তমান সরকার নারীর ক্ষমতায়নে নানামুখী কর্মসূচী গ্রহণ করেছে। নারীর জন্য অবৈতনিক শিক্ষা চালু, উপবৃত্তি প্রদান, চাকুরিতে নারীদের জন্য কোটা ব্যবস্থা চালু করা হয়েছে। এর সুফল ইতোমধ্যেই ফলতে শুরু করেছে। এই উদ্যোগসমূহ সফল করে তোলার দায় সবার।
অনুষ্ঠানে শিশু সুরক্ষা কমিটির সদস্যসহ বিভিন্ন শ্রেণী-পেশার মানুষ সরাসরি প্রশ্ন করেন। অতিথিবৃন্দ সেসব প্রশ্নের উত্তর প্রদান করেন।
গনশুনানীতে প্রশ্নোত্তর পর্বে অংশগ্রহন করেন শিশুসুরক্ষা কমিটির সদস্য উজ্জ্বল রায়, বনানী সুলতানা ঝুমু, গাজী তহিদুর রহমান টুকু, ডাঃ এ কে বিশ^াস, ক্ষমা রাণী দাস, এ্যাড. নূরুন্নাহার পলি, পারভীন আক্তার, হিন্দু বিবাহ রেজিস্ট্রার ব্রজেশ রায়, সাংবাদিক এইচ এম আলাউদ্দিন, হেদায়েত হোসেন, মোঃ নূরুজ্জামান প্রমূখ।