সুন্দরবনে র‌্যাবের সাথে বন্দুক যুদ্ধে বাহিনী প্রধান হাসানসহ নিহত ৪

0
1298

দাকোপ ও বাগরহাট প্রতিনিধি:
সুন্দরবনে র‌্যাবের সাথে বন্দুকযুদ্ধে বনদস্যু হাসান বাহিনীর ৪ সদস্য নিহত হয়েছে। ঘটনাস্থল থেকে বিপুল অস্ত্র গুলি উদ্ধার হয়েছে। এ ঘটনায় র‌্যাব বাদী হয়ে দাকোপ থানায় পৃথক দুটি মামলা দায়ের করেছে। অভিযান পরিচালনাকারী র‌্যাব-৮ এবং দাকোপ থানা পুলিশ সুত্র জানায়, নিয়মিত টহলের অংশ হিসেবে ডিএডি লুৎফর রহমানের নেতৃত্বে র‌্যাব-৮ এর সদস্যরা মঙ্গলবার রাতে সুন্দরবনের চাঁদপাই রেঞ্জ এলাকায় টহল দিচ্ছিল। রাত আনুমানিক ১২ টার দিকে জোংড়া খাল এলাকায় পৌছালে বনদস্যু হাসান বাহিনীর সদস্যরা র‌্যাবকে লক্ষ করে বনের ভিতর থেকে গুলি ছোড়ে। আতœরক্ষার্থে র‌্যাব ও পাল্টা গুলিবর্ষন শুরু করে। দু’পক্ষের মধ্যে সকাল ৭ টা পর্যন্ত থেমে থেমে গুলি বিনিময় হয়। এরপর দস্যু বাহিনী পিছু হটলে র‌্যাব সদস্যরা ঘটনাস্থল তল্লাশী করে গুলিবিদ্ধ ৪ বনদস্যুসহ ৭টি একনলা বন্দুক, ৩টি ওয়ান স্যুটার গান, ১ট এয়ার গান, ৪টি ছোরা, ৫৩ রাউন্ড গুলি এবং ২৫টি গুলির খোসা উদ্ধার করে। এ ঘটনায় র‌্যাবের ২ সদস্য আহত হয়।
পরবর্তীতে গতকাল বুধবার সকালে দস্যুদের দাকোপ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত ডাক্তার তাদের মৃত্যু ঘোষনা করেন। স্থানীয় জেলে বাওয়ালীরা নিহত বাহিনী প্রধান হাসানকে সনাক্ত করে। তবে অন্যদের বিস্তারিত নাম ঠিকানা জানা যায়নি। অসমর্থিত একটি সুত্রে জানা যায়, হাসান বাহিনীর অপর ৩ সদস্য মুস্তাইন, মাইনুল এবং হায়দার। এ ঘটনায় অভিযানে নেতৃত্বদানকারী র‌্যাব কর্মকর্তা বাদী হয়ে অস্ত্র আইনে এবং সরকারী কাজে বাঁধাদান গুলিবিনিময়ের ঘটনায় পৃথক দু’টি মামলা দায়ের করেছে। যা দাকোপ থানার মামলা নং যথাক্রমে ১৩ ও ১৪। তাং ২৯/০৫/১৯। নিহতদের লাশ ময়না তদন্তের জন্য খুলনা মেডিকেল কলেজ মর্গে পাঠানো হয়েছে।
র‌্যাব-৮ কর্মকর্তা অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো: তাজুল ইসলাম মুঠোফোনে জানান, সুন্দরবনে সম্প্রতি বনদস্যুদের আনাগোনা বেড়ে যাওয়ায় র‌্যাবের একটি দল মঙ্গলবার রাতে অভিযানে নামে। দুই পক্ষের বন্ধুকযুদ্ধে চার বনদস্যু নিহত হয়। চার দস্যুর মৃতদেহ খুলনা জেলার দাকোপ থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে। এ রির্পোট লেখা পর্যন্ত বাকি দস্যুদেও নাম পরিচয় জানা যায়নি।