সুন্দরবনে বিষ দিয়ে শিকার করে আনা ২ মণ গলদা চিংড়ি মাটি চাপা দেয়া হয়েছে

0
341

শরণখোলা আঞ্চলিক অফিস:
শরণখোলায় সুন্দরবনে বিষ দিয়ে শিকার করে আনা প্রায় ২ মণ গলদা চিংড়ি কেরোসিন দিয়ে মাটি চাপা দেয়া হয়েছে। বৃহস্পতিবার ভোর রাতে উপজেলা সদরের পাঁচরাস্তা এলাকা থেকে এ মাছ আটক করা হয়।
উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সরদার মোস্তফা শাহীন জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিত্বে খবর পেয়ে ভোর রাত ৪টার দিকে পাঁচ রাস্তার মোড় থেকে মোটরসাইকেলসহ চিংড়ি গুলো জব্দ করা হয়। এ সময় সহ-ব্যাবস্থাপনা কমিটির সহ-সভাপতি মোঃ ওয়াদুদ আকন উপস্থিত ছিলেন। জব্দকৃত চিংড়ি কেরোসিন দিয়ে উপজেলা পরিষদ ক্যাম্পাসে মাটি চাপা দেয়া হয়েছে। জব্দকৃত চিংড়ির মূল্য আনুমানিক ৫০ হাজার টাকা।
মোটরসাইকেল চালক জাহিদুল মৃধা জানান, সাউথখালীর উত্তর তাফালবাড়ি গ্রামের বেল্লাল মোল্লা তার মোটরসাইকেল ভাড়া করে চিংড়িগুলো ইন্দুরকানি মোকামে চালান করতে দিয়েছিল।
পূর্ব সুন্দরবনের শরণখোলা রেঞ্জ কর্মকর্তা (এসিএফ) মোঃ জয়নাল আবেদিন জানান, জব্দকৃত চিংড়ি সুন্দরবন থেকে শিকার করা হলে জড়িতদের বিরুদ্ধে বন আইনে মামলা দেয়া এবং এব্যপারে তদন্ত করে দেখা হবে।
উপজেলা কমিউনিটি প্রেট্রোলিং গ্রুপ ও সহ-ব্যবস্থাপনা কমিটির নির্ভরযোগ্য সূত্রে জানা যায় , মৎস্য ব্যাবসায়ী জাহাঙ্গীর হাওলাদারের দাদন দেয়া জেলে সোনাতলা গ্রামের রহমান হাওলাদারের ছেলে মোঃ নান্না হওলাদার ও শহিদুল, আলম তালুকদারের ছেলে রুবেল, ছোমেদ মুন্সির ছেলে সুমন ও মিজান, আঃ হক মাতুব্বরের ছেলে খলিল ও ইব্রাহিম, সোহরাব মাতুব্বরের ছেলে মিজান ও ইলিয়াস, হজরত খানের ছেলে আমিনুর খান সুন্দরবনে বিষ দিয়ে এ মাছ শিকারের সাথে জড়িত।