সুন্দরবনে ড্রোন উদ্ধার: ট্যুরিজম কোম্পানির বিরুদ্ধে ব্যবস্থা

0
621

বাগেরহাট প্রতিনিধি:
সুন্দরবনে বিদেশি পর্যটন (ছবি: সংগৃহীত)সুন্দরবনের দুবলার চরের আলোর কোল এলাকায় বিদেশি নাগরিকদের কাছ থেকে ড্রোন উদ্ধারের ঘটনায় সংশ্লিষ্ট ট্যুরিজম কোম্পানির বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। বুধবার (৬ ডিসেম্বর) দুপুরে সুন্দরবন পূর্ব বন বিভাগীয় কর্মকর্তা মাহমুদুল হাসান এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন।
মাহমুদুল হাসান বলেন, ‘ড্রোনটি বাগেরহাটে আনার প্রক্রিয়া চলছে। বিষয়টি বাগেরহাটের পুলিশ সুপারকে মৌখিকভাবে জানানো হয়েছে। মাভানা ট্যুরস নামের ওই ট্যুরিজম কোম্পানির বিরুদ্ধে শরণখোলা থানায় একটি মামলা দায়ের করা হবে।’
এদিকে মাভানা ট্যুরস এর পরিচালক মো. নান্টু জানান, চট্রগ্রামের দিদার ইকো ট্যুরস নামের একটি প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে বিদেশি পর্যটকদের সুন্দরবনে পাঠানোর চুক্তি হয়। বনবিভাগের আইন মেনেই তাদের সুন্দরবনে পাঠানো হয়েছে।
তিনি আরও বলেন, ‘পর্যটকদের কাছে একাধিকবার জিজ্ঞাসা করা হয়েছে তাদের কাছে নিষিদ্ধ কিছু আছে কি না। তাদের গাইডকেও জিজ্ঞাসা করা হয়েছে। তারা বলেছেন তাদের কাছে নরমাল ক্যামেরা ছাড়া কিছু নেই। বনবিভাগের হাতে ধরা পড়ার পর বিষয়টি শুনেছি। ব্যাগে করে গোপনে তারা ড্রোনটি নিয়েছে।’ বুধবার দুপুরে ওই ১২ বিদেশি নাগরিক মোংলা ত্যাগ করেছে বলে তিনি জানান।
বাগেরহাটের পুলিশ সুপার পঙ্কজ চন্দ্র রায় জানান, সুন্দরবন পূর্ব বনবিভাগের বিভাগীয় বন কর্মকর্তা ড্রোন উদ্ধারের বিষয়টি তাকে জানিয়েছেন। বুধবার রাতে ড্রোনটি তার কাছে হস্তান্তর করা হবে। এরপর তিনি বিষয়টি নিয়ে তদন্ত করে দেখবেন। অন্য কোনও বিষয়ে তিনি মন্তব্য করতে রাজি হননি।
কোস্টগার্ড পশ্চিম জোনের অপারেশন কর্মকর্তা লে. মাহমুদ জানান, বিষয়টি তারা শুনেছেন। ড্রোনটি উদ্ধার করে বনবিভাগ তাদের নিয়ন্ত্রণে নিয়েছে।
উল্লেখ্য মঙ্গলবার দুপুরে বিদেশি নাগরিকদের বহনকারী স্থানীয় ট্যুরিজম কোম্পানি ‘মাভানা’র মালিকানাধীন ‘দেশের বন সুন্দরবন’ নামের একটি ট্যুরিজম কোম্পানির লঞ্চ থেকে ড্রোন উদ্ধার করা হয়। ওই লঞ্চটিতে ইউরোপের দেশ মাল্টার ১২ নাগরিক ছিলেন।