সুন্দরবনে কোস্ট গার্ডের অভিযানে উদ্ধার ১১ জিম্মি : জব্দ আগ্নেয়াস্ত্র-গুলি

0
595

মোংলা প্রতিনিধি :
সুন্দরবনের গোমসা ভারানী এলাকায় বনদস্যু নানা বাহিনী ও কোস্ট গার্ডের মধ্যে বন্দুক যুদ্ধের ঘটনা ঘটেছে। বন্দুক যুদ্ধ শেষে ঘটনাস্থল থেকে দুস্যদের ব্যবহৃত ২টি নৌকা ট্রলার, ৫টি আগ্নেয়াস্ত্র, ২২ রাউন্ড তাজাগুলি ও ১১ জিম্মিকে উদ্ধার করেছে কোস্ট গার্ড।
কোস্ট গার্ড পশ্চিম জোন’র অপারেশন অফিসার লে: হায়াত ইবনে সিদ্দিক জানান, মুক্তিপণের দাবীতে অপহৃত জেলেদেরকে নিয়ে বনদস্যু নানা বাহিনীর সদস্যরা পশ্চিম সুন্দরবনের কয়রার গোমসা ভারানী এলাকায় অবস্থান করছে এমন গোপন সংবাদের ভিত্তিতে বৃহস্পতিবার দুপুর আড়াইটার দিকে ওই এলাকায় অভিযান চালায় কোস্ট গার্ড।
কোস্ট গার্ড সদস্যরা গোমসা ভারানীতে প্রবেশ করা মাত্রই খালের মধ্যে পূর্ব থেকে অবস্থান নিয়ে থাকা দস্যু নানা বাহিনী অভিযানকারীদের লক্ষ্য করে গুলি ছুড়তে থাকে। এ সময় আত্মরক্ষার্থে কোস্ট গার্ড সদস্যরাও পাল্টা গুলি চালায়। উভয়ের মধ্যে প্রায় আধ ঘন্টা ধরে চলা বন্দুক যুদ্ধের এক পর্যায়ে দস্যুরা পরাস্ত হয়ে বনের গহীনে পালিয়ে যায়।
পরে ঘটনাস্থলে তল্লাশি চালিয়ে দস্যুদের ফেলে যাওয়া ৫টি আগ্নেয়াস্ত্র, ২২ রাউন্ড তাজা গুলি, ২টি নৌকা ট্রলার ও দস্যু বাহিনীর কাছে জিম্মি থাকা ১১ জেলেকে উদ্ধার করা হয়েছে। তবে বন্দুক যুদ্ধের ঘটনায় কেউ হতাহত হয়েছে কিনা তা নিশ্চিত করে জানাতে পারেনি কোস্ট গার্ড। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় উদ্ধারকৃত অস্ত্র-গুলি খুলনার কয়রা থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।
এছাড়া উদ্ধার হওয়া জিম্মি জেলেদেরকে স্ব-স্বপরিবারের কাছে ফেরত পাঠানোর জন্য কয়রার স্থানীয় এক ইউপি মেম্বরকে দায়িত্ব দিয়ে বুঝিয়ে দেয়া হয়েছে বলেও জানায় কোস্ট গার্ড কর্মকর্তা সিদ্দিক।