সাতক্ষীরা সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার হিসেবে যোগদান করলেন তহমিনা খাতুন

0
942

সাতক্ষীরা প্রতিনিধি: সাতক্ষীরা সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) হিসেবে যোগদান করলেন তহমিনা খাতুন। শুক্রবার (৫জানুয়ারি) তিনি সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার হিসেবে যোগদান করেন। সদ্য যোগদানকারী ইউএনও তহমিনা খাতুন এর আগে দেবহাটা উপজেলা নির্বাহী অফিসার হিসেবে কর্মরত ছিলেন। তারপর সরকারি স্কলারশিপ নিয়ে ইন্টারন্যাশনাল ম্যানেজমেন্ট এন্ড বিজনেস ডেপলপমেন্ট বিষয়ে লন্ডন,
ইউকে’র গ্লাসগো ক্যালেডোনিয়ান ইউনিভার্সিটি থেকে মেরিটসহ এমএসসি পাশ করেন। সেখান থেকে ফিরে সাতক্ষীরা সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) হিসেবে যোগদান করেন।
তহমিনা খাতুন জেলার দেবহাটা উপজেলায় ইউএনও হিসেবে কর্মরত থাকাকালীন খাল খনন, মাদক নির্মূল, বাল্য বিবাহ প্রতিরোধ, গৃহহীনদের পুনর্বাসনে স্বল্প ব্যয়ে স্বস্তির ঘর প্রকল্প বাস্তবায়নসহ নানামুখি উন্নয়নমূলক কর্মকান্ডে দক্ষ ভূমিকা রেখেছেন।
নবাগত ইউএনও তহমিনা খাতুন বলেন, পুর্ববর্তী ইউএনও’র সকল উন্নয়নমূলক কাজ বিশেষ করে পরিবেশ রক্ষা, তথ্য প্রযুক্তির উন্নয়ন, মাদক, বাল্য বিবাহ, ইভটিজিং বন্ধসহ নতুন নতুন ইনোভেশন নিয়ে কাজ করতে চাই। সর্বপরি সাধারণ মানুষ যাতে সহজে এবং দ্রুত সরকারি সেবা পায় সে জন্য কাজ করবো। দায়িত্ব পালনে আমি সদর উপজেলাবাসীর সহযোগিতা কামনা করছি।
উল্লেখ্য যে, তহমিনা খাতুন ঢাকা বিশ^বিদ্যালয় থেকে ইংরেজি বিভাগে অনার্স ও মার্স্টাস শেষে ২৭তম বিসিএস পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়ে দিনাজপুর জেলায় সহকারী কমিশনার হিসেবে চাকুরিতে যোগদান করেন। এরপর নড়াইল জেলার লোহাগড়া উপজেলায় এসিল্যান্ড এবং সাতক্ষীরা জেলার দেবহাটা উপজেলা নির্বাহী অফিসার হিসেবে কর্মরত ছিলেন। তার পিতা মো. শামস্উদ্দীন মিঞা ও মাতা আম্বিয়া খাতুন’র ১৩ ভাই বোনের মধ্যে তিনি ১০ম। ব্যক্তিগত জীবনে তিনি বিবাহিত। স্বামী শাহ্ আব্দুল সাদী খুলনা জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিষ্ট্রেট হিসেবে কর্মরত রয়েছে। তার দুটি সন্তান রয়েছে। মেয়ের নাম রাইফা ঋষিত আরিয়া ও ছেলে ঋদ্ধ রাইফ রুহান।