সাতক্ষীরার নলতায় খানবাহাদুর আহ্ছানউল্লা (র.) বার্ষিক পবিত্র ওরছ শুরু

0
751

মীর খায়রুল আলম, সাতক্ষীরা প্রতিনিধি, খুলনাটাইমস:

অবিভক্ত বাংলার শিক্ষা বিভাগের সহকারী পরিচালক, শিক্ষা ও সমাজ সংস্কারক, শতাধিক গ্রন্থের রচয়িতা, বিশিষ্ট দার্শনিক, সাহিত্যিক, অসাম্প্রদায়িক চেতনার অধিকারী, বিংশ শতাব্দীর শ্রেষ্ঠ মানব দরদী, “¯্রষ্টার এবাদত ও সৃষ্টের সেবা” এ মহান ব্রতকে সামনে রেখে নলতা কেন্দ্রীয় আহ্ছানিয়া মিশনসহ অসংখ্য প্রতিষ্ঠানের প্রতিষ্ঠাতা, সুফী-সাধক, পীরে কামেল সুলতানুল আউলিয়া কুতুবুল আকতাব গওছে জামান আরেফ বিল্লাহ হজরত শাহ্ছুফী আলহাজ্জ খানবাহাদুর আহ্ছানউল্লা (র.) এঁর ৫৪ তম বার্ষিক ওরছ শরীফ ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্য পরিবেশে সাতক্ষীরা জেলার কালিগঞ্জ উপজেলার নলতা শরীফে বৃহস্পতিবার বাদ ফজর পাক রওজা শরীফে মিলাদ শরীফের মধ্য দিয়ে শুরু হচ্ছে।
নলতা কেন্দ্রীয় আহ্ছানিয়া মিশনের সার্বিক ব্যস্থাপনায় এবং পাক রওজা শরীফের শ্রদ্ধেয় খাদেম ও বার্ষিক (৫৪ তম) ওরছ শরীফ উদ্যাপন কমিটির আহবায়ক আলহাজ্জ মৌলভী আনছার উদ্দিন আহমদ’র বিশেষ দিক নির্দেশনায় অন্যান্য বছরের ন্যায় এবছরের বার্ষিক ওরছ শরীফের সকল প্রকার প্রস্তÍতি সম্পন্ন হয়েছে। পবিত্র ওরছ শরীফ উপলক্ষে মাহফিল মাঠ, সাতক্ষীরা-মুন্সীগঞ্জ প্রধান সড়ক, নলতা শরীফের সকল সংযোগ সড়কে গেট, মিশন অফিসের সম্মুখভাগে সুবিশাল গেট, পাক রওজা শরীফসহ আশপাশের এলাকায় প্যান্ডেল, লাইটিংসহ নানা সাজে সজ্জিতকরণ, মিলাদ শরীফ, তাবারুক বিতরণ, হৃদয়ে আহ্ছান, দেশ-বিদেশ থেকে আগত মেহমান বা পীর কেবলার ভক্তবৃন্দের আবাসন ব্যবস্থা, রন্ধনশালা, তথ্য অনুসন্ধান ও প্রচার কেন্দ্র, অভ্যর্থণা কক্ষ, পাক রওজা শরীফের চতুর্দিকে নানা ফুলের শোভাবর্ধন ও নলতা শরীফ এলাকা দৃষ্টিনন্দন সজ্জিতকরণের জন্য প্রতিদিন সকাল থেকে দীর্ঘ রাত অবধি ভক্তবৃন্দ ও দর্শনার্থীদের ভীড় বেড়েই চলেছে। নলতা শরীফে এখন বিরাজ করছে উৎসবমূখর পরিবেশ। তবে পীর কেবলার ৫৪ তম বার্ষিক ওরছ শরীফ সুষ্ঠুভাবে সফল করার জন্য কেন্দ্রীয় আহছানিয়া মিশনের সভাপতি আলহাজ্জ মুহাম্মদ সেলিমউল্লাহ, ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্জ মো. সাইদুর রহমান শিক্ষকসহ অন্যান্য কর্মকর্তা বা বিভিন্ন বিষয়ে সংশ্লিষ্ট দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তাগণ সার্বিক বিষয়ে তদারকি করছেন। ওরছ শরীফ উপলক্ষে অতিথিদের আপ্যায়নসহ সকল বিষয়ে দিকভাল করার জন্য বিভিন্ন কর্মকর্তার নেতৃত্বে অনেকগুলো সাব কমিটিও গঠিত হয়েছে।
ওরছ শরীফের প্রথমদিন ৮ ফেব্রæয়ারি বৃহস্পতিবার বাদ ফজর হতে পাক রওজা শরীফে খতমে কোরআন মজিদ, মিলাদ শরীফ ও হজরত শাহ্ছুফী সৈয়দ গফুর শাহ্ আল্ হোচ্ছামী (র.) এঁর রুহের উপর ছওয়াব রেছানী। সকাল সাড়ে ৯ টা হতে পাক রওজা শরীফে হজরত শাহ্সুফী আলহাজ্জ খানবাহাদুর আহ্ছানউল্লা (রঃ) এঁর বেছাল শরীফ উপলক্ষ্যে কলেমাখানি ও কুলখানি ও আলোচনা সভা। বিকাল ৫ টা হতে হজরত খানবাহাদুর আহ্ছানউল্লা (রঃ) এঁর জীবনাদর্শন সম্পর্কে আলোচনা। রাত ১১ টা হতে হজরত রাসুলে করিম (স.) ও আউলিয়াগণের জীবনাদর্শন সম্পর্কে আলোচনা করবেন ঢাকার উত্তরা আশকোন জামে মসজিদের খতিব হাফেজ মাওলানা ওয়ালীউল্লাহ আশেকী, ঢাকার মোহাম্মদপুর কাদেরীয়া তোয়েবীয়া কামিল মাদরাসার আরবি প্রভাষক ও মসসিদ-এ বেলাল (রা.) এর খতিব আলহাজ্ব মুফতি মুহাম্মদ নাজমুস সায়াদাত ফয়েজী, ঢাকা আহ্ছানিয়া ইনস্টিটিউট অব-সুফিজমের সহকারী অধ্যাপক মুফতি শাইখ মোহাম্মদ উসমান গনী, ভারত থেকে আগত আন্তর্জাতিক খ্যাতি সম্পন্ন বক্তা মাওলানা মো. মফিজুর রহমান (খোকা ভাই) এবং হবিগঞ্জ কেন্দ্রীয় জামে মসজিদের খতিব আলহাজ্জ হযরত মাওঃ মুফতি মো. আব্দুল মজিদ। ভোর ৪ টা হতে তাহাজ্জুদ নামাজ,ফজরের নামাজ ও মোনাজাত অনুষ্ঠিত হবে।
৯ ফেব্রæয়ারি শুক্রবার পবিত্র ওরছ শরীফের ২য় দিনের মাহফিলে বক্তব্য রাখবেন আলহাজ্জ হযরত মাওলানা ওমর ফারুক নাঈমী, খতিব, পশ্চিম নাসিরাবাদ মতিউল্লাহ জমাদার শাহী জামে মসজিদ, চট্রগ্রাম; হাফেজ মাওলানা মোখলেছুর রহমান বাঙ্গালী (আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন বিশিষ্ট ইসলামী চিন্তাবিদ, কুষ্টিয়া); ভারত থেকে আগত আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন বক্তা আলহাজ্জ মাওলানা মুহাম্মদ আমিনউদ্দীন, আলহাজ্জ মাওলানা আবু সাঈদ রংপুরী (মুফাস্সির ও মুহাদ্দিস, খতিব-নলতা শরীফ শাহী জামে মসজিদ) এবং হবিগঞ্জ বায়তুল আমান জামে মসজিদের খতিব, মুফতি মাওলানা আলমগীূর হুসাইন সাইফী।
এবং ১০ ফেব্রæয়ারি শনিবার সকাল ৯ টায় আখেরী মোনাজাতের মাধ্যমে তিনদিন ব্যাপি পীর কেবলা হজরত খানবাহাদুর আহছানউল্লা (র.) এঁর ৫৪তম বার্ষিক ওরছ শরীফের পরিসমাপ্তি ঘটবে। উক্ত অনুষ্ঠানগুলো উপভোগ করার জন্য নলতা কেন্দ্রীয় আহছানিয়া মিশনের সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্জ আব্দুল মজিদ এর অসুস্থ্যতাজনিত কারণে মিশনের পক্ষে ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্জ সাইদুর রহমান শিক্ষক সকলকে বিশেষভাবে আমন্ত্রণ জানিয়েছেন।
এদিকে পবিত্র ওরছ শরীফ উপলক্ষে উপজেলা ও জেলা প্রশাসন, আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী, আনসার বাহিনী, গ্রাম পুলিশ, রোভার স্কাউট্স, স্কাউট্স, নারী-পুরুষ স্বেচ্ছাসেবকবৃন্দ সর্ব সাধারণের নিরাপত্তার বিষয়ে তৎপর ভ‚মিকায় আছেন বলে জানা গেছে।#