সম্মিলিত নাগরিক পরিষদের মিট দ্যা প্রেস

0
172

খবর বিজ্ঞপ্তি:
অবিলম্বে আহবায়ক এড. কুদরত-ই-খুদাসহ সকল নেতৃবৃন্দকে নিঃশর্ত মুক্তি দিতে হবে বাম গণতান্ত্রিক জোটের আহুত সোমবার ১৯ অক্টোবর বেলা ১১টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত সারাদেশে রাজপথ অবরোধ কর্মসূচির প্রতি একাত্মতা জানিয়ে পাটকল রক্ষায় সম্মিলিত নাগরিক পরিষদ-এর উদ্যোগে ফুলতলা আটরা ইষ্টার্ণ জুট মিল গেটের সামনে খুলনা-যশোর রোডে রাজপথ অবরোধ ও সমাবেশ অনুষ্ঠান চলাকালে পরিষদের আহবায়ক এড. কুদরত-ই-খুদা, বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি (সিপিবি) কেন্দ্রীয় সদস্য এস এ রশীদ, ভারপ্রাপ্ত সদস্য সচিব ও বাংলাদেশের সমাজতান্ত্রিক দল (বাসদ) খুলনা জেলা সমন্বয়ক জনার্দন দত্ত নান্টু, সিপিবি নেতা মিজানুর রহমান বাবু, গণসংহতি আন্দোলন ফুলতলা উপজেলা আহবায়ক শ্রমিকনেতা অলিয়ার রহমান, ইষ্টার্ণ গেট বাজার বণিক সমিতির সভাপতি রবিউল ইসলাম সরু, বাংলাদেশ ছাত্র ফেডারেশন খুলনা মহানগর আহবায়ক আল আমিন শেখ, সাবেক ওয়ার্ড কমিশনার ও শ্রমিকনেতা শামসেদ আলম শমসের, আবুল হোসেন, জাহাঙ্গীর সরদারসহ মোট ১৫ জন্য আটকের প্রতিবাদে মিট দ্যা প্রেস আজ বিকেল ৫টায় পরিষদের অস্থায়ী কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত হয়। মিট দ্যা প্রেসে পরিষদের সিনিয়র যুগ্ম আহবায়ক বীর মুক্তিযোদ্ধা এড. আ ফ ম মহসিন ঘটনার উপস্থাপন করে বলেন, আজকের কর্মসূচি আমরা পূর্বেই পুলিশকে অবহিত করি। কিন্তু হঠাৎ করে পুলিশ আমাদের নির্ধারিত স্থানে মন্ত্রী মহোদয় আসবেন এজন্য কর্মসূচি বাতিল করতে বলেন। কিন্তু আমরা কেন্দ্রীয় কর্মসূচি বাতিল করা সম্ভব নয় জানিয়ে এবং আমরা স্থান পরিবর্তন করে ফুলতলায় কর্মসূচি পালনের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করি। তথাপি পুলিশ সুপরিকল্পিতভাবে অত্যন্ত জঘণ্য ও নির্মমভাবে কর্মসূচিতে অংশগ্রহণকারী নেতৃবৃন্দ ও শ্রমিক-জনতার উপর চড়াও হয়ে বেধড়ক লাঠি চার্জ, অতর্কিত হামলা, টিয়ার গ্যাস, রাবার বুলেট নিক্ষেপ করে। শ্রমিক কলোনীতে ঢুকে পুলিশ ন্যাক্কারজনকভাবে নারীদের উপর নির্যাতন চালায়। এতে অসংখ্য নারী-পুরুষ শ্রমিক গুরুতর আহত হয়। এ ঘটনার প্রতিবাদে কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে মঙ্গলবার বিকেল ৪টায় নগরীর পিকচার প্যালেস মোড়ে প্রতিবাদ সমাবেশ ও বিক্ষোভ মিছিল অনুষ্ঠিত হবে। এ সময়ে উপস্থিত ছিলেনÑবাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি (সিপিবি) কেন্দ্রীয় সদস্য ও খুলনা জেলা সভাপতি ডাঃ মনোজ দাশ, বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পর্টি (মার্কসবাদী) কেন্দ্রীয় সদস্য শ্রমিকনেতা মোজাম্মেল হক খান, সিপিবি খুলনা মহানগর সাধারণ সম্পাদক এড. মোঃ বাবুল হাওলাদার, গণসংহতি আন্দোলন, জাতীয় পরিষদ সদস্য ও খুলনা জেলা সমন্বয়ক মুনীর চৌধুরী সোহেল, সদস্য সচিব মারুফ গাজী, ইউনাইটেড কমিউনিস্ট লীগ খুলনা জেলা সম্পাদক ডাঃ সমরেশ রায়, সম্পাদকম-লীর সদস্য মোস্তফা খালিদ খসরু, কাজী দেলোয়ার হোসেন, বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পর্টি (মার্কসবাদী) কেন্দ্রীয় সদস্য বিকল্প সদস্য গাজী নওশের আলী, ক্ষুধামুক্ত আন্দোলনের আহসান হাবিব, বাংলাদেশ যুব ইউনিয়ন খুলনা মহানগর আহবায়ক আফজাল হোসেন রাজু, সমাজতান্ত্রিক মহিলা ফোরাম খুলনার আহ্বায়ক কোহিনুর আক্তার কণা, সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্ট খুলনা জেলা সভাপতি সনজিত কুমার মন্ডল, বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়নের কৃষ্ণেন্দু বাছাড়, শ্রমিক নেতা মোঃ মেহেদী হাসান বেল্লাল।