শেষ বুলেট পর্যন্ত কাশ্মীরিদের জন্য লড়াই করব: পাক সেনাপ্রধান

0
531

খুলনাটাইমস বিদেশ :পাকিস্তানের সেনাপ্রধান জেনারেল কামার জাভেদ বাজওয়া বলেছেন, পাকিস্তানের সশস্ত্র বাহিনী কখনো কাশ্মীরিদের ছেড়ে যাবে না এবং মাতৃভ‚মি রক্ষার জন্য যেকোনো ধরনের আত্মত্যাগ করতে তারা পিছপা হবে না।পাকিস্তানের জাতীয় প্রতিরক্ষা ও শহীদ দিবস উপলক্ষে রাওয়ালপিন্ডির সেনা সদরদপ্তরে এক অনুষ্ঠানে ভাষণ দেয়ার সময় জেনারেল বাজওয়া গতকাল শুক্রবার একথা বলেন। তিনি আরো বলেন- শান্তিপূর্ণ, শক্তিশালী ও সমৃদ্ধ পাকিস্তান হচ্ছে আমাদের গন্তব্য এবং আমরা দ্রæত সেদিকে এগিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করছি।জেনারেল বাজওয়া বলেন, সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে পাকিস্তান তুলনাহীন সফলতা অর্জন করেছে যা সারা বিশ্বের জন্য উদাহরণ হতে পারে। আমাদের সেনারা সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে পাথরের তৈরি দেয়ালের মতো দাঁড়িয়েছিল এবং শত্রæদের ঘৃণ্যতম ষড়যন্ত্র ব্যর্থ করে দিয়েছে। আমাদের সেনারা আমাদের সমৃদ্ধ ভবিষ্যতের জন্য তাদের নিজেদের জীবন উৎসর্গ করেছে।জেনারেল কামার জাভেদ বাজওয়া বলেন, “আজকের দিনে পাকিস্তানে চমৎকার একটি শান্তিপূর্ণ পরিবেশ বিরাজ করছে এবং আমাদের দেশ বিশ্বকে নিরাপত্তা এবং শান্তির বার্তা দিচ্ছে। সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে পাকিস্তানী তার দায়িত্ব পালন করেছে, এখন সব ধরনের সন্ত্রাসবাদ এবং উগ্রবাদকে প্রত্যাখ্যান করার দায়িত্ব বিশ্বস¤প্রদায়কে পালন করতে হবে। পাক সেনাপ্রধান বলেন, “এখন আমাদের লড়াই হচ্ছে দারিদ্র্য ও বেকারত্বের বিরুদ্ধে এবং পিছিয়ে পড়া অর্থনীতিকে সফলতার সঙ্গে সামনের দিকে এগিয়ে নিতে হবে। কাশ্মীরের চলমান পরিস্থিতি উল্লেখ করে জেনারেল কামার জাভেদ বাজওয়া গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করেন এবং সেখানকার পরিস্থিতিকে তিনি ভারতের রাষ্ট্রীয় সন্ত্রাস বলে উল্লেখ করেন। তিনি বলেন, কাশ্মীরের জনগণের আকাক্সক্ষার প্রতি গুরুত্ব দিয়ে জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের প্রস্তাব অনুসারে কাশ্মীর সমস্যার সমাধান করতে হবে। তিনি এ সময় কাশ্মীরের জনগণকে আশ্বস্ত করে বলেন, পাকিস্তান কখনো তাদেরকে ফেলে যাবে না অথবা দুঃখজনক কোনো পরিস্থিতির মধ্যে রাখবে না।তিনি বলেন, পাকিস্তান ও কাশ্মীরের জনগণের হৃদস্পন্দন একসূত্রে গাঁথা। জেনারেল বাজওয়া ভারতকে সতর্ক করে বলেন, পাকিস্তান হচ্ছে শান্তিপ্রিয় একটি দেশ এবং কাশ্মীরি জনগণের বিরুদ্ধে যেকোনো ধরনের স্বৈরতান্ত্রিক আচরণ তাদের জন্য একটি পরীক্ষা। তিনি বলেন, কাশ্মীরি জনগণের জন্য পাকিস্তানের সেনারা যেকোনো ধরনের আত্মত্যাগ করতে প্রস্তুত রয়েছেন। জেনারেল বাজওয়া জোর দিয়ে বলেন, আমাদের সর্বশেষ বুলেট, আমাদের সর্বশেষ সেনা এবং শেষ নিশ্বাস পর্যন্ত কাশ্মীরের জনগণের জন্য আমরা লড়াই করব।