শিল্পী নিজাম সরকারের পাশে সমাজসেবা অফিস এবং এডিসি জেনারেল

0
594

আশরাফ আলী সোহান, কিশোরগঞ্জ প্রতিনিধি: শিল্পী নিজাম সরকারের পাশে পুনরায় এসে দাঁড়িয়েছেন কিশোরগঞ্জের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) ও উপসচিব তরফদার মো: আক্তার জামীল। এর আগেও তিনি এই অসুস্থ শিল্পীর সহায়তায় এগিয়ে এসেছিলেন। সে সময় তার প্রচেষ্ঠায় অনেকেই এগিয়ে আসেন এ শিল্পীর সাহার্য্যার্থে। জেলা প্রশাসনসহ যে যার মতন সামান্য কিছু অর্থও প্রদান করেন। কিন্তু এডিসি জেনারেল তার সুচিকিৎসার বিষয়ে লেগে ছিলেন। সে কারণে সমাজসেবা অধিদপ্তর কর্তৃক কিডনি রোগীদের জন্য আর্থিক অনুদান দেয়ার বিষয়টি তার নজরে আসে। সঙ্গে সঙ্গে তিনি জেলা সমাজসেবা অধিদপ্তরের উপপরিচালক রবিউল ইসলাম এর সাথে যোগাযোগ করেন এবং শিল্পী নিজাম সরকারের অসুস্থতার কাগজপত্র জোগাড় করে নির্ধারিত ফরমে আবেদনের ব্যবস্থা করেন। এরপর জেলা কমিটির সুপারিশে তা পাঠানো হয় ঢাকাস্থ সমাজসেবা অধিদপ্তরে। জেলা হতে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) ঢাকায় সংশ্লিষ্ট দপ্তরে ফোন করে অনুরোধ করেন অসুস্থ শিল্পী নিজাম সরকার প্রকৃতই অনুদান পাওয়ার যোগ্য। তার নামটি যেনো কোন অবস্থাতেই বাদ না পড়ে। এছাড়া জেলা সমাজসেবা অধিদপ্তরের উপপরিচালক রবিউল ইসলামকেও অনুরোধ করেন বিষয়টি একটু মনিটরিং করার জন্য। এর ফলে আজ নিজাম সরকার সমাজসেবা অধিদপ্তর কর্তৃক পঞ্চাশ হাজার টাকার অনুদান পেয়েছেন। অনুদানের চেকটি অসুস্থ এ শিল্পীর হাতে তুলে দেয়ার জন্য আজ তার বাসায় যান অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) ও উপসচিব তরফদার মো: আক্তার জামীল এবং জেলা সমাজসেবা অধিদপ্তরের উপপরিচালক রবিউল ইসলাম। এসময় শিল্পী নিজাম সরকার তাদেরকে পেয়ে আবেগ আপ্লুত হয়ে পড়েন এবং জেলা প্রশাসনের প্রতি অশেষ কৃতঞ্জতা প্রকাশ করেন। অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) জানান, জেলা প্রশাসক আজিমুদ্দিন বিশ্বাস প্রতিনিয়ত শিল্পীর খোঁজ-খবর রাখছেন এবং তার চিকিৎসার্থে সম্ভাব্য সকল প্রকার সহযোগিতা অব্যাহত রাখার আশ্বাস দিয়েছেন।

উল্লেখ্য, একাধারে গীতিকার ও সুরকার  শিল্পী  নিজাম সরকার দেশাত্মবোধক গান, আধুনিক গান, ফোক সঙ্গীত, হামদ-নাতসহ বিভিন্ন ধরণের প্রায় ৪০০ এর মতো গান রচনা করেছেন। একই সাথে নিজের রচিত এ সকল গানে সুর ও কন্ঠও দিয়েছেন তিনি। “সুখ পেলাম দু’এক কেজি, দু:খ পেলাম হাজার টন”,  “মুজিব তুমি ছিলে বিশ্বাসে অটল”, “আমার এ জীবন থেকে ঝরে যাবে দিন”, “তুমি কি দোষে গিয়াছো বন্ধুরে”, “ওরে ভাই সুবল, কেমন আছে রাধা বল”, “আমার আগুন জ্বলে মনে”, “বাঁশির সুরে মনোহরে শুনিব সে নিরালা”, “রহম করো আল্লাহ তুমি আমার এ ঘোর নিদানে”, “জিকিরে আমাদের দূর করে দাও মনের এ কালিমা আল্লাহ”,  “ধন্য ধন্য বলি ধন্য মা আমিনার কোল, শান্তির বাণী নিয়ে এলেন মোহাম্মদ রাসুল”- এরকম অসংখ্য কালজয়ী গানের স্রষ্টা মো: নিজাম সরকার।