শারীরিক প্রতিবন্ধীকে ভ্যান উপহার দিলেন কেএমপি কমিশনার

0
52

নিজস্ব প্রতিবেদক
কেএমপিতে ভ্যান হারানো শারীরিক প্রতিবন্ধী মোঃ মিজানুর রহমান মিন্টু’কে নতুন ভ্যান উপহার দিলেন মানবিক পুলিশ কমিশনার। “মানুষ মানুষের জন্য, জীবন জীবনের জন্য” ভূপেন হাজারিকার গাওয়া বিখ্যাত গানের কলি আমরা রার বারই গুনগুন করে গাই। কিন্তু অন্তরে উপলব্ধি করি খুব কম মানুষই। আমরা কবিতা আর গানে মানবিকতার কথা বললেও বাস্তব বড়ই নিঠুর। সভ্য পৃথিবীর অসভ্য দংশনে প্রতিনিয়তই জর্জরিত হচ্ছে অসংখ্য অসহায় নিরান্ন মানুষ। তারই প্রমাণ শারীরিক প্রতিবন্ধী (এক হাত বিহীন) মিজানুর রহমান মিন্টু। পঙ্গুত্বের কাছে হার না মেনে এক হাতেই চালাতেন ৫ জনের সংসার। জীবন যুদ্ধে হার না মানা মানুষটির আয়ের একমাত্র অবলম্বন ছিলো তার ইঞ্জিন চালিত ভ্যান। অথচ গত ২৯ মার্চ ২০২৪ তারিখ রাত্র ১টা ৩০ মিনিট থেকে ২টা ৩০ মিনিট কতিপয় দুষ্কৃতকারীরা মিজানুর রহমান মিন্টু নামে এক প্রতিবন্ধীর ঘরে ঢুকে সমাজ সেবা অধিদপ্তর থেকে প্রাপ্ত প্রতিবন্ধী ভাতার জমানো মোট ৭ হাজার টাকা এবং তার উপার্জনের একমাত্র অবলম্বন ভ্যান গাড়িটি দেশীয় অস্ত্র হাসুয়া এবং দা’র মুখে জিম্মি করে জোরপূর্বক নিয়ে যায়। সে বিগত ৮ মাস আগে আশা ক্ষুদ্রঋণ প্রদানকারী এনজিও থেকে ২৫ হাজার টাকা ঋণ নিয়ে তার পায়ে চালিত ভ্যানটি মোটর চালিত ভ্যানে রুপান্তর করে। গত ১৪/১৫ বছর যাবৎ সে ভ্যান চালিয়ে জীবিকা নির্বাহ করে আসছিল। শারীরিক প্রতিবন্ধী মোঃ মিজানুর রহমান মিন্টু তার উপর্জানের একমাত্র মাধ্যম ভ্যানটি হারিয়ে পরিবার পরিজন নিয়ে অসহায় হয়ে পরেন।
উক্ত ঘটনায় ভ্যান হারানো শারীরিক প্রতিবন্ধী মোঃ মিজানুর রহমান মিন্টুর অভিযোগের প্রেক্ষিতে খানজাহান আলী থানার মামলা নং—১৭, তারিখ—৩০/০৩/২০২৪ খ্রিঃ, ধারা—৩৯২ পেনাল কোড রুজ করা হয়। এই ঘটনায় খানজাহান আলী থানা পুলিশ ঘটনার সাথে জড়িত সন্দিগ্ধ ০২ জনকে আটক করে বিজ্ঞ আদালতে সোপর্দ করে এবং সন্দিগ্ধ ০২ জনের মধ্যে আসামী মোঃ সিরাজুল ইসলাম @ সিরাজ হাওলাদার (৪০) এর দেওয়া তথ্য মতে আসামী মোঃ আব্দুল্লাহ ওরফে ভিরাজ (২৭) কে গ্রেফতার করে ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদের পর ০১/০৪/২০২৪ তারিখ রাত্র ০০.১০ ঘটিকার সময় ভ্যানটি চিংড়ীখালী বাজারের পাশে নানা বাড়ী মোড় সংলগ্ন শাহাবুদ্দিনের মাছের হ্যাচারির পাশ থেকে পরিত্যক্ত অবস্থায় ভ্যান গাড়িটি উদ্ধার করা হয়।
ঘটনাটি খানজাহান আলী থানার অফিসার ইনচার্জ কেএমপি’র পুলিশ কমিশনার মোঃ মোজাম্মেল হক, বিপিএম (বার), পিপিএম—সেবাকে অবগত করলে পুলিশ কমিশনার ভ্যান হারানো শারীরিক প্রতিবন্ধী মোঃ মিজানুর রহমান মিন্টুকে প্রাথমিক সহায়তা প্রদান করার জন্য নির্দেশনা প্রদান করেন। খুলনা মেট্রোপলিটন পুলিশ শুধু আইন—শৃঙ্খলার রক্ষার কাজেই নিজেদের নিয়োজিত রাখেননি, মানবিকতার হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন মিন্টুর পরিবারের প্রতি। তারই অংশ হিসেবে আজ ১ এপ্রিল দুপুর ১২টায় কেএমপি’র সদর দপ্তরে খুলনা মেট্রোপলিটন পুলিশের পক্ষ থেকে অসহায় অবস্থা থেকে উত্তোরণের লক্ষ্যে শারীরিক প্রতিবন্ধী মোঃ মিজানুর রহমান মিন্টুকে নতুন ভ্যান উপহার প্রদান করা হয় এবং তাকে দেয়া প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী তার ভ্যানটিও উদ্ধার করে দেওয়া হয়। মূলত ভ্যানটি হারিয়ে অকূল পাথারে পড়ে যান মিন্টু। দ্বারে দ্বারে ঘুরে যখন নিরাশ হয়ে পড়েছিলেন, ঠিক তখনই সর্ব্বোচ গুরুত্ব দিয়ে এই মানুষটির পাশে দাঁড়ায় খুলনা মেট্রেপলিটন পুলিশ। উপহার গ্রহণকালে মিন্টুর স্ত্রী শিউলী বেগমও উপস্থিত ছিলেন। হারানো ভ্যান আর উপহার হিসেবে পাওয়া নতুন ভ্যান পেয়ে তারা অশ্রু সজল হয়ে পড়েন। বার বার কৃতজ্ঞতায় ভিজে ওঠে তাদের চোখ। এসময় উপস্থিত সাংবাদিকবৃন্দ তাদের অনুভুতি জানতে চান। আবেগ জড়িত কন্ঠে মিজানুর রহমান মিন্টু জানান—খুলনা মেট্রোপলিটন পুলিশের সহযোগিতা, তাদের কর্ম তৎপরতা ও মানবিকতায় তিনি কৃতজ্ঞ। তিনি আবেগ আপ্লুত। তিনি কথা বলার ভাষা হারিয়ে ফেলেছেন। খুলনা মেট্রোপলিটন পুলিশের কমিশনার মহোদয়ের কারণেই তিনি নতুন করে বাঁচার স্বপ্ন দেখছেন। তিনি খুলনা মেট্রোপলিটন পুলিশের সার্বিক মঙ্গল কামনা করেন।
এ সময় উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (ট্রাফিক এন্ড প্রটোকল) মোছাঃ তাসলিমা খাতুন; ডেপুটি পুলিশ কমিশনার (উত্তর) অতিরিক্ত ডিআইজি পদে পদোন্নতি প্রাপ্ত মোল্লা জাহাঙ্গীর হোসেন; ডেপুটি পুলিশ কমিশনার (সদর) মোহাম্মদ আনোয়ার হোসেন (বর্তমানে অতিরিক্ত ডিআইজি পদে পদোন্নতি প্রাপ্ত); বিশেষ পুলিশ সুপার (সিটিএসবি) রাশিদা বেগম, পিপিএম—সেবা (বর্তমানে অতিরিক্ত ডিআইজি পদে পদোন্নতি প্রাপ্ত); ডেপুটি পুলিশ কমিশনার (লজিস্টিকস অ্যান্ড সাপ্লাই) জনাব এম.এম শাকিলুজ্জামান (বর্তমানে অতিরিক্ত ডিআইজি পদে পদোন্নতি প্রাপ্ত); ডেপুটি পুলিশ কমিশনার (ডিবি) বি.এম নুরুজ্জামান, বিপিএম (বর্তমানে অতিরিক্ত ডিআইজি পদে পদোন্নতি প্রাপ্ত); ডেপুটি পুলিশ কমিশনার (দক্ষিণ) মোহাম্মদ তাজুল ইসলাম; ডেপুটি পুলিশ কমিশনার (এফএন্ডবি) জনাব শেখ মনিরুজ্জামান মিঠু; এবং অতিঃ ডেপুটি পুলিশ কমিশনার (সদর)পলিশ সুপার পদে পদোন্নতি প্রাপ্ত মিয়া মোহাম্মদ আশিস বিন্ হাছান—সহ ঊর্ধ্বতন পুলিশ কর্মকর্তাবৃন্দ।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here