শরণখোলায় ভারী বর্ষণে ভেসে গেছে পুকুর ও মাছের ঘের : পানিবন্দী অনেক পরিবার

0
208

শরণখোলা প্রতিনিধি:
বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট নি¤œচাপের প্রভাবে গত দুদিনের ভারীবর্ষণে শরণখোলার গ্রামাঞ্চল প্লাবিত হয়েছে। পানি বন্দী হয়ে পড়েছে অসংখ্য মানুষ। ভেসে গেছে কয়েকশ পুকুর ও ঘেরের মাছ। থমকে গেছে মানুষের স্বাভাবিক জীবনযাত্রা। উপজেলার বিভিন্ন এলাকা থেকে প্রাপ্ত খবরে জানা যায়, ভারী বৃষ্টিপাতে উপজেলার সাউথখালী, ধানসাগর খোন্তাকাটা এবং রায়েন্দা ইউনিয়নের মাঠঘাট বাড়ীঘর পানিতে প্লাবিত হয়েছে। তলিয়ে গেছে ফসলের মাঠ। ভেসে গেছে শত শত পুকুর ও ঘেরের মাছ এবং সব্জি খেত। উপজেলা সদর রায়েন্দা বাজারের খাদ্যগুদাম এলাকা সহ বাজারের অধিকাংশ আবাসিক এলাকার দু,শতাধিক পরিবার পানিবন্দী হয়ে পড়েছে। ঝুঁকিতে রয়েছে উপজেলার একমাত্র সরকারী খাদ্য গুদাম। গুদামে পানি প্রবেশ ঠেকাতে নেয়া হয়েছে বিশেষ ব্যবস্থা। সিমেন্টের আস্তর দিয়ে গুদামের দরজা বন্ধ করা হয়েছে। বাসাবাড়ীতে পানি ওঠায় রান্না করতে পারেনি অনেক পরিবার। ধসে গেছে রায়েন্দা পাঁচরাস্তা এলাকায় শরণখোলা মোরেলগঞ্জ আঞ্চলিক মহাসড়কের বড় একটা অংশ সড়ক। ঝুঁিকর মধ্যে পড়েছে যানবাহন চলাচল। রায়েন্দা ইউপি সদস্য জালাল আহমেদ রুমি জানান, বাসাবাড়ীতে পানি ঢুকে মানুষের অনেক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। অনেকে রান্না করতে পারছেনা। মানুষজন পানিবন্দী হয়ে পড়েছে। ধানসাগর ইউপি চেয়ারম্যান মাইনুল ইসলাম টিপু জানান, ব্যপক বৃষ্টিতে তার ইউনিয়নে অনেক পুকুরের মাছ ভেসে গেছে বাড়ীঘর প্লাবিত হয়েছে। শরণখোলা উপজেলা নির্বাহী অফিসার সরদার মোস্তফা শাহিন জানান, ভারী বর্ষণে উপজেলায় ক্ষয়ক্ষতির তথ্য সংগ্রহ করা হচ্ছে এবং উপজেলা সদর রায়েন্দা বাজারের জলাবদ্ধ পানি অপসারণের ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে।