শরণখোলায় ওয়াপদায় বসতীরা ক্ষতি পূরণের টাকা পাচ্ছেনা

0
532

শেখ মোহাম্মদ আলী, শরণখোলা (বাগেরহাট) প্রতিনিধি :
বাংলাদেশ পানি উন্নয়ন বোর্ডের ৩৫/১ পোল্ডারের (সিইআইপি-১) শরণখোলায় বেরীবাধে বসতী স্থাপনকারী ইএস পরিবারের সদস্যরা তাদের গাছপালার ক্ষতি পূরণের টাকা পাচ্ছেনা বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে ।
ভূক্তভোগীদের লিখিত অভিযোগে জানা যায়, শরণখোলা মোড়েলগঞ্জের ওয়াপদা বেরীবাধে বসবাসরত ইএস পরিবারের সদস্যদের সাথে ২০০২ সালে রোপনকৃত গাছ বাধ রক্ষায় সহায়ক হবে বলে পানি উন্নয়ন বোর্ডের ২৫ বছর মেয়াদী বৃক্ষরোপন কর্মসূচীর চুক্তিপত্র হয়। ২৫ বছর পূর্তির পরে গাছের সম্পূর্ণ মালিকানা পাবে ইএস পরিবারের সদস্যরা। এবং তারা গাছ বিক্রি করে সাবলম্বী হবে। কিšতু সম্প্রতি বিশ্ব ব্যাংকের অর্থায়নে ৩৫/১ পোল্ডারে নতুন করে বেরীবাধ নির্মাণের কাজ শুরু হওয়ায় ইএস পরিবারের সদস্যদের বাধ ছেড়ে চলে যেতে বলা হলেও তাদের গাছের কোন ক্ষতি পূরণের ব্যবস্থা করা হয়নি । ফলে প্রায় দেড় যুগ ধরে গাছ পরিচর্যা করে খালি হাতে পরিবারগুলোকে মাথা গোজার ঠাই টুকুও ছেড়ে দিতে হচ্ছে। এতে তারা নিজেদের খুবই অসহায় মনে করছে।
সংশ্লিষ্ট একটি সূত্র জানায়, গাছের ক্ষতিপূরণের জন্য বিশ্ব ব্যাংকের বরাদ্দ থাকলেও অজ্ঞাত কারণে উপকূলীয় বাধ উন্নয়ন প্রকল্পের কর্মকর্তারা ক্ষতিগ্রস্থদের টাকা দিতে চাচ্ছেনা।
এ ব্যপারে বাংলাদেশ পানি উন্নয়ন বোর্ডের উপকূলীয় বাধ উন্নয়ন প্রকল্পের (সিইআইপি-১) খুলনার নির্বাহী প্রকৌশলী আঃ হান্নান মোবাইল ফোনে বলেন, ইএস পরিবারের গাছের ক্ষতি পূরণের কোন টাকা বরাদ্দ নেই তাই তারা টাকা পাবেনা ।##