শরণখোলায় অন্তঃস্বত্বা স্ত্রীকে হত্যা : ঘাতক স্বামী গ্রেফতার

0
230

শরণখোলা প্রতিনিধি:
শরণখোলায় অন্তঃস্বত্বা স্ত্রী জোৎসনা বেগম (৩০) কে নির্মমভাবে হত্যা করে বস্তায় ভরে লাশ লুকিয়ে রাখে পুলিশের কনস্টেবল সাদ্দাম। হত্যার দায়ে আটক পুলিশ কনস্টেবল সাদ্দাম হোসেনকে আসামী করে শুক্রবার দুপুরে শরণখোলা থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের ও লাশ ময়না তদন্তের জন্য বাগেরহাট মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। থানায় মামলা ও নিহতের মা জুলেখা বেগমের অভিযোগে জানা যায়, শরণখোলার তাফালবাড়ী পুলিশ ক্যাম্পে কর্মরত পুলিশ কনস্টেবল সাদ্দাম হোসেন বৃহস্পতিবার ভোর রাতে তাফালবাড়ী পুলিশ ক্যাম্প সংলগ্ন ভাড়া বাসায় তার ৭ মাসের অন্তঃস্বত্বা দ্বিতীয় স্ত্রী জোৎসনা বেগমকে প্রথমে গলা টিপে হত্যা করে। পরে নিহতের গলা, ২ হাতের কব্জি ও পেট কেটে পেটের ৭ মাসের বাচ্চাটিকে বের করে একটি বস্তায় ভরে লুকিয়ে রাখে। গোপন সংবাদের ভিত্তিত্বে বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে তাফালবাড়ী বাজার এলাকায় সাদ্দামের ভাড়া বাসায় তল্লাশী চালিয়ে শরণখোলা থানা পুলিশ কনস্টেবলের স্ত্রী জোৎসনা বেগমের বস্তাবন্দী লাশটি উদ্ধার করেন। এ সময় কনস্টেবল সাদ্দামকে আটক করা হয়। নিহত জোৎসনা বেগম খুলনার রুপসা উপজেলার চানপুর গ্রামের আবু বকর শেখের কন্যা।
শরণখোলা থানা অফিসার ইনচার্জ মোঃ সাইদুর রহমান জানান, স্ত্রী হত্যাকারী কনস্টেবল নং ১০/২৬ সাদ্দাম হোসেন সাতক্ষীরা জেলার আশাশুনি উপজেলার বড়দল গ্রামের আঃ লতিফের পুত্র। সে ২০১৩ সালে বাংলাদেশ পুলিশ বাহিনীতে ভর্তি হয়। পারিবারিক কলহের কারণে এ হত্যাকান্ড ঘটেছে বলে আটক কনস্টেবল স্বীকার করেছে। নিহতের মা জুলেখা বেগম বাদী হয়ে শুক্রবার দুপুরে শরণখোলা থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। লাশ ময়না তদন্তের জন্য বাগেরহাট মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে বলে থানার ওসি জানিয়েছেন। মামলা নং ৪ তারিখ ০৯/১০/২০২০ ধারা ৩০২/৩১৬।