কিংবদন্তী সাংবাদিক লিয়াকত আলী ছিলেন গণমুখি মানুষ

0
993

সংবাদ বিজ্ঞপ্তি : দৈনিক পূর্বাঞ্চল ও ডেইলী ট্রিবিউন আয়োজিত আলোচনা সভায় বক্তারা বলেছেন, কিংবদন্তী সাংবাদিক আলহাজ্ব লিয়াকত আলী খুলনাঞ্চলের মানুষের জন্য একজন স্মরণীয়-বরনীয় ব্যক্তি। তার কীর্তির মাঝেই তিনি বেঁচে থাকবেন অনন্তকাল। সরাসরি কোন রাজনৈতিক দলের সাথে সম্পৃক্ত না থাকলেও আলহাজ্ব লিয়াকত আলী ছিলেন একজন গণমুখি মানুষ। তিনি যেসব স্বপ্ন দেখতেন সেগুলোকে সম্মিলিতভাবে এগিয়ে নিতে সাংবাদিকদের ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করতে হবে বলেও বক্তারা উল্লেখ করেন।
আগামী ২৮ নভেম্বর আলহাজ্ব লিয়াকত আলীর দ্বিতীয় মত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে আজ রোববার সকালে খুলনা প্রেসক্লাবের হুমায়ন কবির বালু মিলনায়তনে এ আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়।


পূর্বাঞ্চলের সম্পাদক মন্ডলীর সভাপতি ও ডেইলী ট্রিবিউন সম্পাদক বেগম ফেরদৌসী আলীর সভাপতিত্বে এবং পূর্বাঞ্চলের চীফ রিপোর্টার অমিয় কান্তি পালের সঞ্চালনায় এসময় স্বাগত বক্তৃতা করেন, পূর্বাঞ্চল সম্পাদক মোহাম্মদ আলী সনি ও ধন্যবাদ জ্ঞাপন করন, পূর্বাঞ্চলের বার্তা সম্পাদক অরুন সাহা।
আলোচনা সভায় অন্যান্যর মধ্যে বক্তৃতা করেন, খুলনা প্রেসক্লাবর সাবেক সভাপতি ও দৈনিক অনির্বান সম্পাদক অধ্যক্ষ আলী আহমেদ, মকবুল হোসেন মিন্টু, আহমদ আলী খান, ফারুক আহমেদ, এস এম নজরুল ইসলাম, বর্তমান সভাপতি এসএম হাবিব, ও সাধারণ সম্পাদক সুবীর কুমার রায়, খুলনা সাংবাদিক ইউনিয়নর(কেইউজ) সভাপতি এসএম জাহিদ হোসেন, মেট্রোপলিটন সাংবাদিক ইউনিয়ন খুলনার (এমইউজে) সভাপতি মোঃ আনিসুজ্জামান, কেইউজের সাধারণ সম্পাদক মো: শাহ আলম, দৈনিক প্রবাহ সম্পাদক আশরাফ-উল-হক, প্রবর্তন সম্পাদক মোস্তফা সরোয়ার, দক্ষিণাঞ্চল প্রতিদিন সম্পাদক এসএম সাহিদ হোসেন, খুলনাঞ্চল সম্পাদক মিজানুর রহমান মিল্টন, পূর্বাঞ্চলের মফস্বল সম্পাদক গোলাম মোস্তফা সিন্দাইনী, সিনিয়র রিপোর্টার ও প্রেসক্লাবের সাবক সাধারণ সম্পাদক মো: সাহেব আলী, দৈনিক জনকন্ঠর সিনিয়র রিপোর্টার অমল সাহা, দৈনিক মানবজমিনের খুলনা ব্যুরো প্রধান ও প্রেসক্লাবের সাবেক কোষাধ্যক্ষ মো: রাশিদুল ইসলাম, বিএফইউজের যুগ্ম মহাসচিব মোজাম্মেল হক হাওলাদার, পূর্বাঞ্চলের স্টাফ রিপোর্টার আবুল হাসান হিমালয়, ফটো সাংবাদিক ও খুলনা প্রেসক্লাবের কোষাধ্যক্ষ মো: জাহিদুল ইসলাম, স্টাফ রিপোর্টার সাঈয়েদুজ্জামান সম্রাট প্রমুখ। এসময় দোয়া পরিচালনা করেন, ইকবাল নগর জামে মসজিদের পেশ ইমাম ও খতীব মাওলানা এম, এ হান্নান এবং পবিত্র কোরআন তেলাওয়াত করেন প্রেসক্লাব মসজিদের ইমাম হাফেজ মাওলানা মোস্তাফিজুর রহমান।


সভায় বক্তারা আরও বলেন, খুলনার সংবাদপত্র জগতের জন্য, সাংবাদিকদের জন্য, প্রেসক্লাব ও সাংবাদিক সংগঠনগুলোর জন্য আলহাজ্ব লিয়াকত আলী ছিলেন একজন নিবেদিত প্রাণ। তার স্মৃতিকে ধরে রাখতে সাংবাদিকদের চেষ্টা অব্যাহত রাখা উচিত বলেও বক্তারা মন্তব্য করেন। মাওয়ায় পদ্মা সেতু নির্মাণ, খুলনা বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠার আন্দোলন, আধুনিক রেলষ্টশন, খুলনায় গ্যাস সরবরাহ, সুন্দরবনকে সপ্তাশ্চর্য হিসেবে স্বীকৃতি আদায় ভোটযুদ্ধ, রুপসা সেতু নির্মাণ, মংলা বন্দরকে সচল করাসহ এ অঞ্চলের বঞ্চনার বিরুদ্ধে আলহাজ্ব লিয়াকত আলী অনেক রাজনৈতিক নেতার চেয়েও বেশি ভূমিকা রেখেছেন বলেও বক্তারা উল্লেখ করেন। বক্তারা বলেন, আলহাজ্ব লিয়াকত আলী ছিলেন একজন বহুমাত্রিক, দূরদৃষ্টিসম্পন মানুষ। তার মত্যুর মধ্যদিয়ে খুলনার সংবাদপত্র জগত এবং সামাজিক অঙ্গনে যে শূণ্যতা তৈরি হয়েছে তা পূরণ হওয়ার নয়।
উল্লেখ্য, আগামী ২৮ নভেম্বর আলহাজ্ব লিয়াকত আলীর দ্বিতীয় মত্যুবার্ষিকী। এ উপলক্ষ্যে ওইদিন মসজিদ ও ইয়াতিমখানায় দোয়া মাহফিলসহ অন্যান্য কর্মসূচী হাতে নেয়া হয়েছে।