লজিক প্রকল্প কর্তৃক একাউন্টিং এন্ড এমআইএস ও এটিএম সফটওয়্যার বিষয়ে প্রশিক্ষণ কর্মশালা

0
903

খবর বিজ্ঞপ্তি:
কর্মশালায় জনাব শেখ ফয়সাল শাহ্, ডিট্রিক্ট ক্লাইমেট চেঞ্জ কোঅর্ডিনেটর এর সঞ্চালনায় কর্মশালায় উপস্থিত অংশগ্রহনকারীদের পরিচয় প্রদানের মধ্য দিয়ে প্রশিক্ষন কর্মশালা শুরু করেন। তিনি জানান স্থানীয় সরকার বিভাগ কর্তৃক বাস্তবায়নাধীন এবং ইউরোপিয়ান ইউনিয়ন, সিডা (সুইডেন), ইউএনডিপি ও ইউএনসিডিএফ এর অর্থায়ন ও কারিগরী সহায়তায় লোকাল গভর্ণমেন্ট ইনিশিয়েটিভ অন ক্লাইমেট চেঞ্জ (লজিক) প্রকল্পটি দেশের ৭টি জেলার (কুড়িগ্রাম, খুলনা, পটুয়াখালী, বাগেরহাট, বরগুনা, ভোলা ও সুনামগঞ্জ) ১৯টি উপজেলার মোট ৭২টি ইউনিয়নে বাস্তবায়িত হচ্ছে। যার মধ্যে খুলনা জেলার দাকোপ উপজেলার সুতারখালী, কামারখোলা, বানিশান্তা, তিলডাঙ্গা ও পানখালী ইউনিয়ন এবং কয়রা উপজেলার দক্ষিন বেদেকাশী, উত্তর বেদকাশী, মহারাজপুর, মহেশ্বরীপুর ও কয়রা সদর ইউনিয়নে প্রকল্প কার্যক্রম চলমান।
কর্মশালায় স্থানীয় সরকার বিভাগ, খুলনার উপ-পরিচালক ইসরাত জাহান জানান, প্রকল্পটির মূল কার্যক্রমসমূহের মধ্যে জলবায়ু অভিযোজন সক্ষমতা বৃদ্ধি সংক্রান্ত ইউনিয়ন পরিষদে দক্ষতা ভিত্তিক থোক বরাদ্দ প্রদান এবং জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে ঝুঁকিগ্রস্থ অতি দরিদ্র পরিবারসমূহকে সহায়তা প্রদান অন্যতম। ইউনিয়ন ও খানা পর্যায়ে যে সকল কার্যক্রম বাস্তবায়ন করা হবে তা’সুষ্ঠু ও কার্যকর তদারকির লক্ষ্যে এ প্রকল্প কর্তৃক একাউন্টিং এন্ড ম্যানেজমেন্ট ইনপরমেশন সিস্টেম (এমআইএস) ও এডাপটেশন ট্রেকিং এন্ড মেজারিং (এটিএম) নামক দু’টি সফটওয়্যার প্রণয়ন করা হয়েছে। ইউনিয়ন ও খানা পর্যায়ে তথ্য উপাত্ত সংগ্রহ ও ডাটাবেজে সংযোজনের লক্ষ্যে প্রথম সফটওয়্যারটি ইউনিয়ন পরিষদেও সচিব কর্তৃক এবং দ্বিতীয়টি কমিউনিটি মোবিলাইজেশন ফ্যাসিলিটেটর (সিএমএফ) কর্তৃক ব্যবহৃত হবে। বর্ণিত প্রেক্ষাপটে, প্রকল্পের কার্যক্রম সঠিক ও সুষ্ঠুভাবে পরিবীক্ষণের জন্য মাঠ পর্যায়ে ব্যবহারকারীগণদের উক্ত সফটওয়্যার দুটি ব্যবহার বিষয়ক প্রশিক্ষণ প্রদান করা হচ্ছে।
কর্মশালার প্রধান অতিথি খুলনা ডেপুটি কমিশনার মোহাম্মদ হেলাল হোসেন জানান, কর্মশালার বিষয়বস্তু খুবই সময় উপযোগী ও বাস্তব সম্মত। তিনি প্রকল্পের কার্যক্রম পরিদর্শন করার আশাবাদ ব্যক্ত করে বলেন, পরিবর্তিত জলবায়ূকে কেন্দ্র করে গৃহীত লজিক প্রকল্পটি সময় উপযোগী সিদ্ধান্ত। কর্মশালায় আরো উপস্থিত ছিলেন জান্নাতুল আফরোজ স্বর্ণা, এসিএলজি, খুলনা, ইউএনডিপির ঊর্ধতন কর্মকর্তা টি. এম. সেলিম, মোঃ মশিউর রহমান এবং জেলা পর্যায়ে ডিস্ট্রিক্ট গ্রান্টমনিটর এন্ড ফ্যাসিলিটেটর আসাদুল হক।