লকডাউন কার্যকরে কঠোর অবস্থানে মোরেলগঞ্জ পৌর প্রশাসন

0
71

মেজবাহ ফাহাদ, মোরেলগঞ্জ:
বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জে লকডাউনের প্রথমদিন থেকে কঠোর অবস্থানে রয়েছে পৌর প্রশাসন। এসময় জনগনকে মাস্ক ব্যবহার করা, বিনা প্রয়োজনে ঘরে থাকতে পৌরসভার পক্ষ থেকে মাইকিং করে সকলকে লকডাউন মেনে চলতে অনুরোধ জাননো হয়। পৌরসভার মেয়র এস এম মনিরুল হক করোনার দ্বিতীয় ধাপ মোকাবেলায় কঠোর অবস্থানে রয়েছেন, প্রতিদিনই পৌরসভার কাউন্সিলর, কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের সাথে জুম মিটিংয়ে নানাবিধ নির্দেশনা দিচ্ছেন। তাছাড়া তার প্রদত্ত নির্দেশনা বাস্তবায়নে সরেজমিনে তদারকিও করছেন।
পৌরসভার প্রধান প্রধান সড়কে ফুটপাত দখল করে অবৈধভাবে যারা ক্ষুদ্র ব্যাবসা করে আসছিল তাদের ফুটপাত থেকে সরিয়ে দেয়া হচ্ছে। করোনাভাইরাস প্রাদুর্ভাব বেড়ে যাওয়ায় জনগনকে মাস্ক পরা বাধ্যতামূলকসহ শপিংমল, বিপণী বিতান এবং হোটেল রেস্টুরেন্ট খোলার নির্দিষ্ট সময় বেধে দেয় পৌর প্রশাসন।
এদিকে সরকার ঘোষিত কঠোর লকডাউনে মোরেলগঞ্জে মাছ, মাংস, কাঁচাবাজার, মুদিখানা সহ নিত্য প্রয়োজনীয় দোকান গুলো সকাল ৯টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত খোলা রাখার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। ঔষধ এবং চিকিৎসা কেন্দ্রগুলো এই নির্দেশের আওতামুক্ত থাকবে। এছাড়া সকল দোকান-পাট ও পৌরসভার মধ্যে সবধরনের যানবাহন চলাচল বন্ধ করা হয়েছে। পৌর প্রশাসনের পক্ষ থেকে যথাযথ সামাজির দুরত্ব নিশ্চিত করে খোলা মাঠে কাঁচাবাজার বসার নির্দেশ দেয়া হয়।
এ বিষয়ে পৌরসভার মেয়র এস এম মনিরুল হক বলেন সারাদেশে লকডাউন চলছে। এক্ষেত্রে পৌর প্রশাসন সরকারের নির্দেশনা মেনে সকল দোকানপাট বন্ধে সময়সীমা নির্ধারন করেছে। প্রতিনিয়ত জনসাধারণকে সচেতন করতে পৌরসভার পক্ষ থেকে মাইকিং করা হচ্ছে, পৌরসভার প্রধান সড়কে জীবানুনাশক স্প্রে ছিটানো হচ্ছে, কেউ যেন নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে দোকান খোলা না রাখে, সেজন্য আমরা প্রতিদিন অভিযান পরিচালনা করছি। এছাড়া সামাজিক দুরত্ব নিশ্চিত করে কেনাবেচা করার আহবান জানানো হয়েছে। এর পরে যদি কেউ নিষেজ্ঞা অমান্য করে তাঁর বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।