র‌্যাব-৬ ও থানায় অভিযোগ বিদেশে পাঠানোর কথা বলে পাইকগাছার ৪ জনের টাকা আতœসাৎ

0
306

কপিলমুনি প্রতিনিধি:
পাইকগাছায় ৪ ব্যক্তিকে বিদেশে পাঠানোর কথা বলে লক্ষ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নেয়ায় কথিত আদম ব্যাপারীর বিরুদ্ধে র‌্যাব-৬ ও থানায় অভিযোগ হয়েছে।
অভিযোগে জানাযায়, পাইকগাছা উপজেলার শ্যামনগর গ্রামের বাক্কার মোড়লের ছেলে ইকবাল মোড়ল দীর্ঘদিন ধরে সৌদি আরবে চাকরী করতেন। একপর্যায়ে ২০১২ সালের দিকে দেশে ফিরে বিভিন্ন সময় বিভিন্ন জনদের বিদেশে চাকুরী দিতে প্রলুব্ধ করে লক্ষ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নেয়। যার ধারাবাহিকতায় উপজেলার শ্যামনগরের জনৈকা ইতি বেগমের নিকট থেকে কাতারে চাকরী দেয়ার কথা বলে ১ লাখ ৫০ হাজার টাকা হাতিয়ে নেয়। চাকুরী না পেয়ে বিদেশে ঘোরাফেরা করতে থাকলে ঐ দেশের পুলিশ তাকে আটক করে। পরে সেদেশের মাধ্যমে তাকে দেশে ফেরত পাঠানো হয়। একই এলাকার রিপনকে মালয়েশিয়ায় চাকুরী দেয়ার নামে ৩ লাখ ৭০ হাজার টাকা, সাহেব আলীকে সৌদি আরবে কোম্পানীর কার্টুন তৈরীর কারখানায় চাকুরী দেয়ার জন্য ৩ লাখ ৫০ হাজার টাকা নেয়। চাকুরী না পেয়ে সেখানকার আদম ব্যাপারীরা তাকে অন্য দেশে বিক্রি করে দিয়েছে বলে তার স্ত্রী ফতেমা জানায়। একইভাবে সাইফুদ্দিনকে মালয়েশিয়া পাঠানোর জন্য ৩ হাজার ৫০ হাজার টাকা নেয়। এসব ঘটনায় বিভিন্ন জনরা তাকে খুঁজতে থাকায় ইকবাল পালিয়ে বেড়াচ্ছে। টাকা আদায়ের জন্য ভুক্তভোগীরা কথিত আদম ব্যাপারী ইকবালের বিরুদ্ধে র‌্যাব-৬ ও পাইকগাছা থানায় অভিযোগ করেছে।
এ ব্যাপারে মুঠোফোনে অভিযুক্ত ইকবালের নিকট জানতে চাইলে তিনি সেসব টাকা ঢাকার নাজমুল নামে তার এক বন্ধু নিয়েছে বলে জানান।

তার দেয়া তথ্যে নাজমুলকে মুঠোফোনে জানতে চাইলে তিনি জানান, যাদের কাছ থেকে টাকা নেয়া হয়েছে এর মধ্যে রিপনকে ২ লাখ ২০ হাজার ফেরত দেয়া হয়েছে। সাইফুলকে সে চেনে না এছাড়া অন্য ২জনকে বিদেশে পাঠানো হয়েছে।
এ ব্যাপারে পাইকগাছা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) এমদাদুল হক শেখ জানান, অভিযুক্ত ইকবালকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তার বাড়িতে পুলিশ পাঠালেও তাকে বাড়িতে পাওয়া যায়নি। তদন্তপূর্বক তার বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।