রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধানে স্পিকারের সৌদি আরবের সহযোগিতা কামনা

0
392

টাইমস ডেস্ক:


স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধানে সৌদি আরবের সহযোগিতা কামনা করেছেন।
তার সাথে আজ সংসদ ভবনে বাংলাদেশে নিযুক্ত সৌদি আরবের রাষ্ট্রদূত এসসা ইউসেফ এসসা আল দুহাইলান সাক্ষাৎ করলে তিনি এ সহযোগিতার কথা বলেন।

সাক্ষাৎকালে তাঁরা দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়ন ও ব্যবসা-বাণিজ্যের প্রসার, কোভিডকালীন উদ্ভূত বৈশ্বিক পরিস্থিতি, অভিবাসন ইস্যু, সংসদীয় সম্পর্কের উন্নয়ন, সংসদীয় মৈত্রী গ্রুপসহ পারস্পারিক স্বার্থ সংশ্লিষ্ট বিষয়ে আলোচনা করেন।

স্পিকার বলেন, অনেক সমস্যা থাকা সত্ত্বেও মায়ানমারের রোহিঙ্গা শরনার্থীদের আশ্রয় দিয়ে ও তাঁদের প্রতি মানবিক ভূমিকা রেখে বিশ্বের বুকে দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী বলেন, দু’দেশের সংসদ সদস্যদের পারস্পরিক অভিজ্ঞতা বিনিময়ের জন্য সংসদীয় সম্পর্ক আরো জোরদার করা সম্ভব। দক্ষ কর্মী সৌদি আরবে পাঠাতে বাংলাদেশ যথাযথ প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করেছে বলে উল্লেখ করেন স্পিকার।

স্পিকার বাংলাদেশ থেকে আরো অধিক সংখ্যক দক্ষ কর্মী সৌদি আরবে কর্মসংস্থানের জন্য রাষ্ট্রদূতকে অনুরোধ জানান।

এসময় মুজিববর্ষে স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীকে সামনে রেখে রাষ্ট্রদূতের মাধ্যমে শুরা কাউন্সিলের চেয়ারম্যানকে আমন্ত্রণ জানান স্পিকার।

ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী বলেন, কোভিডকালীন সময়েও অর্থনৈতিক উন্নয়নের ধারাবাহিকতা রক্ষায় এবং বিভিন্ন শ্রেণীপেশার মানুষের দৈনন্দিন জীবন স্বাভাবিক রাখতে প্রণোদনা ঘোষণার মাধ্যমে সময়োপযোগী কার্যক্রম গ্রহণ করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

তিনি বলেন, একজন ব্যক্তিও যেন খাদ্যাভাবে মৃত্যুবরণ না করে সেজন্য সারা দেশে খাদ্যসামগ্রী যথাসময়ে বিতরণ করেছে সরকার। সকলের জন্য করোনা ভ্যাকসিন নিশ্চিতকরণেও নিরলস কাজ করে যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী। সরকারের দূরদর্শী নেতৃত্বের কারণে কোভিড পরিস্থিতিতেও দেশে খাদ্যাভাব পরিলক্ষিত হয়নি।
এসময় রাষ্ট্রদূত এসসা ইউসেফ এসসা আল দুহাইলান কোভিডকালীন সময়ে সরকারের অর্থনীতির চাকা সচল রাখার প্রচেষ্টার প্রশংসা করেন।

রাষ্ট্রদূত এসসা ইউসেফ এসসা আল দুহাইলান বলেন, একত্রে কাজ করার জন্য দু’দেশের মধ্যে সংসদীয় মৈত্রী গ্রুপ গঠন করা প্রয়োজন। এর মাধ্যমে দু’দেশের সংসদীয় সম্পর্কের অধিকতর উন্নয়ন হবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন তিনি।

রাষ্ট্রদূত এসসা ইউসেফ এসসা আল দুহাইলান বাংলাদেশকে অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ বন্ধুপ্রতীম দেশ হিসেবে অভিহিত করে বলেন, পারস্পরিক স্বার্থ সংশ্লিষ্ট বিষয়ে প্রতিবেশী দুই দেশের মধ্যে সহযোগিতা অব্যাহত থাকবে। এসময় সংসদ সচিবালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।