রোহিঙ্গা শিশুদের নিয়ে কী বললেন প্রিয়াঙ্কা?

0
405

বিনোদন ডেস্কঃ
কক্সবাজারে রোহিঙ্গা শরণার্থী ক্যাম্প পরিদর্শন করেছেন বলিউড তারকা প্রিয়াঙ্কা চোপড়া। বিশ্ববাসীকে রোহিঙ্গা শরণার্থীদের পাশে দাঁড়ানোর আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।

মিয়ানমার সেনাবাহিনীর নির্যাতনের পর রাখাইন থেকে প্রায় ১১ লাখ রোহিঙ্গা বাংলাদেশে পালিয়ে আসে। এদের শতকরা ৬০ জনই শিশু। কক্সবাজারের টেকনাফের অস্থায়ী রোহিঙ্গা ক্যাম্পে শিশুদের দেখার পর ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজ ও ইনস্টাগ্রামে জনপ্রিয় এই তারকা বিশ্ববাসীর কাছে এই আহ্বান জানান।

তিনি বলেন, ‘আমি কক্সবাজারে বিশ্বের অন্যতম বৃহত্তম শরণার্থী ক্যাম্প পরিদর্শন করছি ইউনিসেফ এর শুভেচ্ছাদূত হিসেবে। ২০১৭ সালে মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে জাতিগত নির্মূলের ভয়ঙ্কর চিত্র দেখা যায়। রাখাইন রাজ্যের বাংলাদেশ সীমান্তজুড়ে প্রায় ৭ লাখ রোহিঙ্গা আশ্রয় নিয়েছে। তাদের মধ্যে ৬০ ভাগই শিশু।’

এই জনপ্রিয় তারকা আরও বলেন, ‘পালিয়ে বাংলাদেশে আসার কয়েক মাস পরও তারা অত্যন্ত ঝুঁকির মধ্য আছে। প্রথম দিকে তারা ওয়াকিবহাল ছিল না পরের খাবার কখন আসবে এবং অবশেষে কিছুটা নিরাপত্তার মধ্য আছে।’

প্রিয়াঙ্কা চোপড়া বলেন, ‘একটি প্রজন্মের শিশুসন্তানদের ভবিষ্যৎ নেই। আমি তাদের হাসি ও তাদের চোখে শূন্যতা দেখতে পেয়েছি। এই শিশুরা ভয়ঙ্কর মানবিক সংকটের সামনে রয়েছে এবং তাদের জন্য আমাদের সাহায্য প্রয়োজন। বিশ্ববাসীকে তাদের যতœ নিতে হবে।’

প্রিয়াঙ্কার সফরসূচি থেকে জানা গেছে, তিনি টেকনাফের হাড়িয়াখালীও যাবেন। এই এলাকা দিয়ে মিয়ানমার থেকে অনেক রোহিঙ্গারা বাংলাদেশে পালিয়ে এসেছে। কক্সবাজারের টেকনাফের হীলা ইউনিয়নের লেদা অনিবন্ধিত রোহিঙ্গা ক্যাম্প, উখিয়ার কুতুপালং ও জামতলী রোহিঙ্গা ক্যাম্প, টেকনাফের রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শনের কথা রয়েছে। বৃহস্পতিবার সকালে কক্সবাজার ত্যাগ করবেন এই বলিউড তারকা।

প্রিয়াঙ্কা চোপড়া গত ১৯ মে ব্রিটিশ রাজপরিবারের আমন্ত্রণে প্রিন্স হ্যারি আর মেগান মার্কেলের রাজকীয় বিয়েতে উপস্থিত ছিলেন। সেখান থেকে তিনি দুবাই হয়ে এমিরেটস এয়ারলাইনসের একটি উড়োজাহাজে সোমবার সকালে ঢাকায় এসেছেন। এদিন সকাল দুপুর ১২টায় কক্সবাজার পৌঁছান। পরে বিকালে রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শন করেন।