রোহিঙ্গা’ শব্দ উচ্চারণ না করার ব্যাখ্যা দিলেন পোপ

0
437


টাইমস ডেস্ক :
কৌশলগত কারণেই মিয়ানমার সফরে ‘রোহিঙ্গা’ শব্দটি উচ্চারণ করেননি পোপ ফ্রান্সিস। মিয়ানমার-বাংলাদেশ সফর শেষে ভ্যাটিকান যাত্রার সময় বিমানে দেয়া বক্তব্যে পোপ জানান, মিয়ানমারে ফলপ্রসু আলোচনার স্বার্থেই রোহিঙ্গা শব্দটি এড়িয়ে গেছেন। সফরে দুইদেশের সরকার প্রধানের সাথে কার্যকর আলোচনা হয়েছে বলেও জানান পোপ ফ্রান্সিস।

রাখাইনে জাতিগত নিধন চলছে, এমন অভিযোগের মধ্যেই গত সপ্তাহে মিয়ানমার যান ক্যাথলিক ধর্মগুরু পোপ ফ্রান্সিস। গোটা বিশ্বের নজর ছিলো মিয়ানমার নেতা অং সান সু চির সঙ্গে তার বৈঠকের ওপর। বিশেষ করে পোপের মুখে রোহিঙ্গা শব্দটি উচ্চারিত হয় কিনা সেই দিকে।

মিয়ানমারের চাপের মুখে শেষ পর্যন্ত পোপ বিরত থাকেন রোহিঙ্গা উচ্চারণে। বিশ্বজুড়েই শুরু হয় নানা আলোচনা-সমালোচনা। এবার এনিয়ে মুখ খুললেন পোপ ফ্রান্সিস। শনিবার বাংলাদেশ থেকে ভ্যাটিকান ফেরার পথে সাংবাদিকদের বলেন, ফলপ্রসু আলোচনার স্বার্থেই মিয়ানমার সফরে রোহিঙ্গা শব্দটি উচ্চারণ করেন নি তিনি।

পোপ ফ্রান্সিস বলেন,আমি যদি আমার বক্তব্যে রোহিঙ্গা শব্দটি ব্যবহার করতাম তাহলে আলোচনার পথ একেবারে বন্ধ হয়ে যেত। আমি সেটা করিনি সত্য, কিন্তু চলমান পরিস্থিতি তুলে ধরেছি। মানবাধিকার নিয়ে কথা বলেছি, প্রত্যেকের নাগরিক সুবিধা নিশ্চিতের কথা বলেছি। ইতিবাচক একটি আলোচনার স্বার্থেই আমাকে এমনটা করতে হয়েছে।

মিয়ানমারের পর বাংলাদেশ সফরে এসে অবশ্য রোহিঙ্গা শব্দটি ব্যবহার করেন পোপ ফ্রান্সিস। দেখা করেন রোহিঙ্গা প্রতিনিধি দলের সঙ্গেও।