রোববার থেকে প্রচার শুরু করবেন মমতা

0
43

টাইমস ডেস্ক
গত ১৪ মার্চ কপালে চোট পেয়েছিলেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। কপালে ব্যান্ডেজ নিয়ে গত বৃহস্পতিবার পার্ক সার্কাসের ইফতারে যোগ দিয়েছিলেন তিনি।
এবার সেই অবস্থাতেই লোকসভা নির্বাচনের প্রচারণায় নামতে যাচ্ছেন তৃণমূল সুপ্রিমো। রোববার (৩১ মার্চ) রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী প্রথম জনসভা করবেন নদীয়া জেলায়। ওই জেলার কৃষ্ণনগর আসনে তৃণমূলের প্রার্থী মহুয়া মৈত্র। তার সমর্থনে ধুবুলিয়া সুকান্ত স্পোর্টিং ক্লাবের মাঠে জনসভা করবেন মমতা।
কৃষ্ণনগরের গতবারের সংসদ মহুয়া মৈত্র। কিন্তু কয়েক মাস আগে ঘুষকাণ্ডে লোকসভা (সংসদ ভবন) থেকে তাকে বহিষ্কার করেছে এথিক্স কমিটি। বাতিল করা হয় সদস্যপথ। সেই অস্থির পরিস্থিতিতে মহুয়ার পাশে দাঁড়িয়ে ছিলেন দলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। মহুয়ার সদস্য পদ বাতিল হওয়ায় সোচ্চার হয়েছিলেন তিনি। মহুয়ার প্রতি ভরসা রেখে তাকে এবারও কৃষ্ণনগর আসনের টিকিট দেওয়া হয়েছে। কৃষ্ণনগর কেন্দ্র থেকে মহুয়া মৈত্রকে জেতানো প্রেস্টিজ ইস্যু হয়ে দাঁড়িয়েছে মমতার কাছে। এরই মধ্যে সম্প্রতি মহুয়ার বিরুদ্ধে তদন্তে নামে সিবিআই। তার কলকাতা এবং নদীয়ার বাড়িতে তল্লাশি চালানো হয়েছে। ফলে রোববার তৃণমূল নেত্রী মঞ্চ থেকে বিজেপিকে কী ভাষায় আক্রমণ করতে পারেন, সেদিকেই নজর থাকবে বসার।
১৪ মার্চ বাড়িতে পড়ে গিয়ে চোট পেয়েছিলেন তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। কপালে তিনটে এবং নাকে একটি সেলাই পড়ে। চিকিৎসকদের নিষেধের কারণে এতদিন প্রচারে নামেননি মমতা। এই মুহূর্তে চোট কাটিয়ে উঠেছেন মুখ্যমন্ত্রী। আর তাই সময় নষ্ট না করে রোববার থেকেই থেকে প্রচারে নামতে চলেছেন তিনি।
দলীয় সূত্রের খবর, পরের দিন অর্থাৎ পহেলা এপ্রিল মুখ্যমন্ত্রীর সভা রয়েছে বহরমপুরে। বহরমপুর প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি অধীর রঞ্জন চৌধুরীর গড় হিসেবে পরিচিত। বহরমপুর আসন থেকে পাঁচবারের সংসদ সদস্য অধীর রঞ্জন। তৃণমূল এবার সেখানে প্রার্থী করেছে সাবেক ভারতীয় ক্রিকেটার ইউসুফ পাঠানকে। ফলে অধীরের গড় থেকে দলের প্রধান মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কী বার্তা দেন সেদিকেই নজর থাকবে সব মহলের।
নেত্রী এরপর আগামী সপ্তাহে একটানা প্রচার চালাবেন উত্তরবঙ্গে। ৩ এপ্রিল উত্তরবঙ্গে রওনা দেবেন মমতা। ৪—৮ এপ্রিল সেখানে প্রার্থীদের সমর্থনে প্রচার সভা করবেন তিনি। ১৯ এপ্রিল ভারতে প্রথম ধাপের ভোট। ওই দিন পশ্চিমবঙ্গের তিন আসন অর্থাৎ কোচবিহার, জলপাইগুড়ি এবং আলিপুরদুয়ারে ভোটগ্রহণ। ধারণা করা হচ্ছে মমতা ওই তিন আসনে প্রচার চালাতে পারেন।
গত লোকসভা নির্বাচনে উত্তরবঙ্গের একটি আসনও জিততে পারেনি তৃণমূল। এবারে লোকসভা ভোটে উত্তরবঙ্গ ধরে রাখতে মরিয়া হয়ে উঠেছে দল। সেজন্য উত্তরবঙ্গ সফরের জন্য পাঁচদিন সময় রেখেছেন দলনেত্রী।
পরবর্তীতে ২৬ এপ্রিল দ্বিতীয় ধাপে ভোট হবে দার্জিলিং, রায়গঞ্জ ও বালুরঘাট লোকসভা কেন্দ্রে। ৭ মে তৃতীয় ধাপে মালদহ উত্তর, মালদা দক্ষিণ, জঙ্গিপুর, মুর্শিদাবাদ কেন্দ্রে। ১৩ মে চতুর্থ ধাপে বহরমপুর, কৃষ্ণনগর, রানাঘাট, বর্ধমান পূর্ব, আসানসোল, বোলপুর, বীরভূম ও বর্ধমান—দুর্গাপুর কেন্দ্রে। ২০ মে পঞ্চম ধাপের ভোট হবে বনগাঁ, ব্যারাকপুর, হাওড়া, শ্রীরামপুর, হুগলি, উলুবেরিয়া ও আরামবাগ কেন্দ্রে।
২৫ মে ষষ্ঠ পর্যায়ে তমলুক, কাঁথি, ঝাড়গ্রাম, ঘাটাল মেদিনীপুর, পুরুলিয়া, বাঁকুড়া ও বিষ্ণুপুর কেন্দ্রে। ১ জুন সপ্তম ও শেষ ধাপে ভোট হবে দমদম, বারাসাত, বসিরহাট, জয়নগর, মথুরাপুর, ডায়মন্ডহারবার, যাদবপুর, কলকাতা দক্ষিণ ও কলকাতার উত্তর কেন্দ্রে। ধাপে ধাপে প্রতিটা কেন্দ্রেই জনসভা করবেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here