যশোরে মাদরাসা ছাত্রী হত্যার ঘটনায় গ্রেফতার ৫

0
274

টাইমস্ ডেস্ক:

যশোরের চৌগাছা উপজেলার হাকিমপুর দাখিল মাদরাসার ৫ম শ্রেণির ছাত্রী শর্মিলা খাতুন (৯) হত্যার ঘটনায় পাঁচজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। গতকাল বুধবার যৌথ অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেফতার করে র‌্যাব ও পুলিশ।

গ্রেফতারকৃতরা হলো- স্বরুপপুর গ্রামের রফিকের ছেলে তুষার, ফটকা মুন্সির জামাই সুমন, ফটকা মুন্সির ছেলে রাজু, তুষারের ছেলে নাহিদ এবং তমিজ উদ্দিন।

স্থানীয়রা জানায়, মঙ্গলবার সন্ধ্যায় উপজেলার হাকিমপুর ইউনিয়নের ফকিরাবাদের মাঠ থেকে নিখোঁজ শর্মিলা খাতুনের (৯) মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। শর্মিলা হাকিমপুর ইউনিয়নের ফকিরাবাদ গ্রামের হাফিজুর রহমান ওরফে কালুর মেয়ে।

শর্মিলা গত ২২ জুন সন্ধ্যায় বাড়ি থেকে বের হয়। এরপর পরিবারের সদস্যরা বিভিন্ন স্থানে খোঁজাখুঁজি করেও তার সন্ধান পাননি। এ ঘটনায় নিহতের বাবা চৌগাছা থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেন।

মঙ্গলবার সন্ধ্যায় হাকিমপুর মহিলা কলেজ সংলগ্ন ফকিরাবাদের মাঠে শর্মিলার মরদেহ পড়ে থাকতে দেখে থানা পুলিশকে খবর দেয় স্থানীয়রা। খবর পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

বুধবার সকালে মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য যশোর জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়। ময়নাতদন্ত শেষে বিকেল ৫টায় মরদেহ নিহতের বাড়ি পৌঁছায়। সন্ধ্যায় ফকিরাবাদে শর্মিলাকে দাফন করা হয়।

নিহতের বাবা হাফিজুর রহমান ওরফে কালু জানান, তার মেয়ে শর্মিলাকে গত ২২ জুন আম খাওয়ার কথা বলে অভিযুক্তরা বাড়ি ডেকে নিয়ে যায়। তার মেয়েকে ধর্ষণের পর গলাটিপে হত্যা করে অভিযুক্তরা।

র‌্যাব কর্মকর্তা নকিব আহাম্মদ জানান, এ ঘটনার সঙ্গে পাঁচজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। সেই সঙ্গে তাদের বিরুদ্ধে হত্যা মামলা করা হয়েছে।