মোংলা নতুন থানা ভবনে পুলিশের কার্য়ক্রম শুরু

0
841

মোংলা প্রতিনিধি: মোংলা থানার নতুন ভবনে পুলিশের কার্য়ক্রমের শুরু হয়েছে। শনিবার (৩ নভেম্বর) দুপুরে নতুন এ থানা ভবনের নাম ফলক উম্মোচনের মধ্যদিয়ে কার্যক্রম শুরু হয়েছে। আর নতুন ভবনের নাম ফলক উম্মোচন করেন খুলনা সিটি মেয়র আলহাজ্ব তালুকদার আব্দুল খালেক। প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি বলেন, ১৯৫০ সালে চালনা বন্দর (বর্তমান মোংলা বন্দর) প্রতিষ্ঠার পর থেকেই রামপাল থানার অধিনে মোংলায় একটি সতন্ত্র থানার প্রয়োজনীয়তা দেখা দেয়। ১৯৭৩ সালে ছোট্র একটি টিনের ঘরে মোংলা থানার কার্যক্রম শুরু হয়। পরবর্তীতে মোংলা জনগনের সেবা,নিরাপত্তা, মোংলা ইপিজেড ও ইকোনোমিক জোন প্রতিষ্ঠার কারনে মোংলা থানার গুরুত্ব আরো বেড়ে যায়। তখন মোংলা বন্দর কর্তৃপক্ষ থেকে প্রাপ্ত একটি দ্বিতল ভবনে থানার কার্যক্রম স্থান্তরীত হয় কিন্তু ২০০৯ সালের আইলায় ভবনটি ভিষন ভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হওয়া ওই ভবনটি ব্যাবহার অনুপযোগী হওয়ায় পরিত্যাক্ত ঘোষিত হয়। তখন মোংলা বন্দর কর্তৃপক্ষের ডক শ্রমিক পরিচালনা বোর্ডের হাসপাতালে তৎকালীন সংসদ সদস্য বর্তমান খুলনার সিটি মেয়র আলহাজ্ব তালুকদার আঃ খালেক ও মোংলা বন্দর কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান মহদয় ও স্থানীয় নেতৃবৃন্দের সহযোগীতায় মোংলা থানার কার্যক্রম স্থানান্তরীত হয় এবং থানার কার্যক্রম ২০১৮ সালের ৩১ অক্টোবর পর্যন্ত অব্যাহত থাকে। ২০১৬ সালে মাননীয় প্রধান মন্ত্রী শেখ হাসিনা সারা বাংলাদেশে ১০১টি জ্বড়াজীর্ন ও ক্ষতিগ্রস্থ থানা ভবন সমুহ চিহ্ণিত করে থানা কমপ্লেক্্র ভবন নির্মানের সিদ্ধান্ত নেন। ৯ কোটি টাকার উর্ধে ব্যায় নির্মিত হয় ৫ তলা বিসিষ্ট সাড়ে ৬ হাজার বর্গফুটের মোংলা থানা কমপ্লেক্্র ভবন। মাননীয় প্রধান মন্ত্রী শেখ হাসিনা চলতি বছরের গত ১ নভেম্বর ভিডিও কনফারেন্সে’র মাধ্যমে মোংলা থানা কমপ্লেক্্র ভবন উদ্বোধন করেন। সেই উদ্বোধনকৃত মোংলা থানা কমপ্লেক্্র ভবনের নাম ফলক স্থাপন অনুষ্ঠানে মিলিত হয় মোংলা-রামপালের সাবেক সংসদ ও বর্তমান কেসিসির সিটি মেয়র তালুকদার আঃ খালেক। থানার এ নতুন ভবনে ৪ ও ৫ তলায় সকল পুলিশ সদস্যদের জন্য ডরমেটরী (ব্যাচেলর কোয়াটার) হিসাবে ব্যাবহৃত হবে। ২ ও ৩ তলায় অফিস ভবন হিসেবে ব্যাহৃত হবে, যেখানে কনফারেন্স রুম,কন্সেটেবলদের জন্য খাবার কক্ষ এবং অফিসার ইনচার্জ, ইন্সেপেক্টর তদন্ত রুম ও অন্যান্য অফিসারে কক্ষ থাকবে। এছাড়াও মহিলা ও পুরুষদের জন্য আলাদা আলাদা দুইটি হাজত খাঁনা রয়েছে। আর নিচতলা দুর্যোগকালীন সময় সাইক্লোন সেল্টার হিসেবে ব্যাবহৃত হবে এবং আধুনিক সুযোগ সুবিধা সম্বলিত এই নতুন থানা কমপ্লেক্্র ভবন জনগনের সেবাদানের ক্ষেত্রে মোংলা থানা পুলিশের জন্য অত্যান্ত সহায়য়োক ভুমিকা রাখবে এবং জনগন পুলিশের নিকট থেকে সর্বোত্তম সেবা পাবেন বলেও জানান পুলিশ সুপার পঙ্কচ চন্দ্র রায়। মোংলা থানা অফিসার ইনচার্জ মোঃ ইকবাল বাহার চৌধুরী’র সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি সিটি মেয়র আলহাজ্ব তালুকদার আঃ খালেক,মোংলা-রামপাল বাগেরহাট-৩ আসনের সংসদ বেগম হাবিুন নাহার, উপজেলা চেয়ারম্যান আবু তাহের হাওলাদার, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ রবিউল ইসলাম, মোংলা প্রেস ক্লাবের সভাপতি আলহাজ্ব এইচ এম দুলাল,বাগেরহাট জেলা পুলিশ সুপার পঙ্কজ চন্দ্র রায়, সিনিয়র এ এস পি মোংলা সার্কেল মোঃ খায়রুল আলম,রামপাল থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ শেখ লুৎফর রহমান। এছাড়াও পুলিশের বিভিন্ন কর্মকর্তা, আওয়ামীলীগের নেতৃবৃন্দ ও সুশীল সমাজের প্রতিনিধিরা এসময় উপস্থিত ছিলেন।