মোংলায় ২ কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মিত ৮ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উপকেন্দ্রের উদ্বোধন

0
394

মোংলা (বাগেরহাট) প্রতিনিধি, খুলনাটাইমস:
মোংলায় প্রায় ২ কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মিত ৮ মেগাওয়াট ধারণ ক্ষমতা সম্পন্ন বিদ্যুৎ উপকেন্দ্রের উদ্বোধন করা হয়েছে। শনিবার সকালে পৌর এলাকায় পুরাতন বন্দর ৩৩/১১ কেভি’র ১০ এমভিএ রুরাল টাইপ এ উপকেন্দ্রের উদ্বোধন করেন অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি মোংলা-রামপালের (বাগেরহাট-০৩) সংসদ সদস্য আলহাজ্ব তালুকদার আব্দুল খালেক।
এ সময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ওজোপাডিকো খুলনার ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো: শফিক উদ্দিন, পরিচালক (অর্থ) রতন কুমার দেবনাথ, পরিচালক (প্রকৌশল) প্রকৌশলী হাসান আলী তালুকদার, প্রকল্প পরিচালক সি,এম মোতাহার হোসেন, মোংলা উপজেলা চেয়ারম্যান আবু তাহের হাওলাদার, উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো: রবিউল ইসলাম, থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো: ইকবাল বাহার চৌধুরী, সাবেক পৌর চেয়ারম্যান শেখ আব্দুস সালাম, চাদপাই ইউপি চেয়ারম্যান মোল্লা তারিকুল ইসলাম, মিঠাখালী ইউপি চেয়ারম্যান ই¯্রাফিল হাওলাদার, পৌর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মো: সাখাওয়াত হোসেন মিলন, মোংলা বিদ্যুৎ সরবরাহ’র আবাসিক প্রকৌশলী এইচ,এম ফরহাদ হোসেন ও প্রকৌশলী কিশোর ঢাইকদার।
অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় আলহাজ্ব তালুকদার আব্দুল খালেক বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনা অনুযায়ী ইতিমধ্যে রামপাল তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্রের আশপাশের ৩টি ইউনিয়নে শতভাগ বিদ্যুৎ সরবরাহ নিশ্চিত করা হয়েছে। কারণ ওই এলাকার মানুষ যাতে বিদ্যুৎতের অভাব অনুভব না করে। তিনি আরো বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আহবাণে ব্যবসায়ীরা সাড়া দিয়ে মোংলা বন্দর দিয়ে গাড়ী ও সারসহ অন্যান্য পণ্য আমদানী শুরু করায় মৃত প্রায় এ বন্দরটি এখন পুরোপুরিভাবে সচল হয়েছে। এক সময়ের বিধ্বস্ত ও কর্মহীন হয়ে পড়া এ বন্দরকে আরো অধিক সচল করার জন্য ইতিমধ্যে প্রধানমন্ত্রী ১৪ হাজার কোটি টাকা দিয়েছেন। যে টাকা দিয়ে বন্দরের পশুর ও মোংলা-ঘাষিয়াখালী চ্যানেল খনন, মোংলা নদীর উপর ঝুলন্ত সেতু এবং খান জাহান আলী বিমান বন্দর নির্মাণসহ বিভিন্ন উন্নয়ন প্রকল্প পর্যায়ক্রমে চলমান রয়েছে। ২০১৮ সালের মধ্যেই রামপাল তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্র ও খান জাহান আলী বিমান বন্দর সকলের সামনে দৃশ্যমান হয়ে উঠবে।
উল্লেখ্য, ২১ জেলা বিদ্যুৎ বিতরণ ও শক্তিশালীকরণ প্রকল্পের আওতায় এ উপকেন্দ্রটি গত এক বছর পূর্বে নির্মাণ সম্পন্ন হয়। পুরাতন মোংলা এলাকায় বর্তমানে আড়াই মেগাওয়াট বিদ্যুতের চাহিদা রয়েছে। পরবর্তীতে এ চাহিদা বৃদ্ধি পেলেও এ উপকেন্দ্র দিয়ে ৮ মেগাওয়াট পর্যন্ত বিদ্যুৎ সরবরাহ সম্ভব হবে।
পরে দুপুরে মোংলা বন্দর শ্রমিক সংঘ চত্বরে আয়োজিত স্বেচ্ছাসেবক লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তৃতা করেন আলহাজ্ব তালুকদার আব্দুল খালেক। এ সম্মেলনে সম্মানিত অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন স্বেচ্ছাসেবক লীগের কেন্দ্রীয় সভাপতি এ্যাডভোকেট মোল্লা মো: আবু কাওছার। #