মোংলায় সংখ্যালঘু একটি পরিবার ভিটা ছাড়া : বিচারের জন্য দ্বারে দ্বারে ঘুরছে

0
630

নিজস্ব প্রতিবেদক, খুলনাটাইমস:
বাগেরহাটের মোংলা উপজেলার মালগাজী গ্রামের একটি সংখ্যালঘু পরিবারকে ভিটামাটি ছাড়া করেছে স্থানীয় প্রভাবশালী একটি মহল। হত্যার ভয় দেখিয়ে ভারতে পালিয়ে যাওয়ার হুমকি দেয় ওই প্রভাবশালীরা। অসহায় ওই পরিবারটি গত আড়াই’মাস ধরে ঘরবাড়ি ছেড়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছেন। তারা তাদের এ অসহায়ত্বের কথা স্থানীয় থানা পুলিশসহ বিভিন্ন দপ্তরে জানিয়েও কোন প্রতিকার পাচ্ছেননা।
সংখ্যালঘু ওই অসহায় পরিবারের প্রধান পেশায় শিক্ষক মুকুল দাস (৫৬) জানান, মোংলা পৌর এলাকার মৃত ওয়াজেদ আলী খাঁ’র ছেলে তরিকুল ইসলাম স্বপন গত ২০অক্টোবর রাতে আমার বাড়িতে এসে ভারতে চলে যেতে হুমকি দেয়। এসময় তার সাথে আরও কয়েকজন অপরিচিত মানুষ ছিলো। তাদের সাথে নানা ধরনের অস্ত্র সস্ত্র দেখতে পান তিনি। এবিষয়ে কারও কাছে জানালে পরিবারের সকলকে হত্যা করে মাটিতে পুতে রাখবে বলে হুমকি দেয় স্বপন। পরদিন ভোর হওয়ার আগেই আমি ঘর বাড়ি ছেড়ে সাতক্ষীরায় মেয়ের বাড়িতে পালিয়ে যাই। তরিকুল ইসলাম স্বপন নিজেকে বাংলাদেশ লেবার পার্টির কেন্দ্রীয় নেতা সেকেন্দার আলী মনির বেয়াই পরিচয় দেন।
তিনি জানান, ২০১৩সালে তার পৈত্রিক সম্পত্তি থেকে মৎস্য ঘেরের ৫০শতক জমি রেজিস্ট্রি করে নেয় স্বপন খাঁ। রেজিস্ট্রির পরে টাকা দিবে বললেও আর দেয়নি। তার কাছে টাকা চাইতে গেলে আর দেয়না। এখন সে আমার ভিটামাটি দখল করে নিয়েছে।
তার স্ত্রী মঞ্জু রানী দাস জানান, আমরা দ্বারে দ্বারে ঘুরে বেড়াচ্ছি। কোথাও কোন বিচার পাচ্ছি না। থানায় লিখিত অভিযোগ দিয়েছি কিন্তু তরিকুল ইসলাম স্বপন প্রভাবশালী হওয়ায় কোন প্রতিকার পাচ্ছিনা। তবে তিনি জানান, এবিষয়টি জানতে পেরে মংলা থানা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মোঃ ইব্রাহিম হোসেন আমাদের পাশে দাড়িয়েছেন। তিনি বলেছেন আমাদের ভিটামাটি অবৈধ দখল মুক্ত করবেন।
মোংলা থানা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মোঃ ইব্রাহিম হোসেন সাংবাদিকদের জানান, বিষয়টি আমি জানতে পেরে খোজ খবর নিয়েছি। এবং এবিষয়টি নিয়ে স্থানীয়ভাবে শালিশী বৈঠকের মাধ্যমে শ্রীগ্রই সমাধান করা হবে।