মোংলায় মডেল থানার শুভ উদ্বোধন

0
481

মাহমুদ হাসান: প্রধানমন্ত্রী কর্তৃক মোংলায় মডেল থানা উদ্বোধন ঘোষনা করায় উপজেলার সর্বস্তরের মানুষের মাঝে খুশির আমেজ বইছে। এলাকাবাসী মনে করেন, উন্নত মানের এ মডেল থানা নির্মিত হওয়ায় নিরাপত্তা নিশ্চিত হবে একানকার সাধারন মানুষের। নদী বেষ্টিত এলাকা ঝুকিমুক্ত থেকে পুলিশি সেবা দেয়া সম্ভব হবে আইনশৃংখলা বাহিনীর পক্ষ থেকে বলে জানান পুলিশের কর্মকর্তারা।
মোংলায় স্বাধীনতা পরবর্তী সর্বস্তরের মানুষের নিরাপত্তা নিশ্চিতের লক্ষে পুরো উপজেলায় পুলিশের কার্যক্রম শুরু হয় একটি টিনের সাউনী ফাড়ীঁ অফিস দিয়ে। এর কিছুদিন পর মোংলা থানায় রুপান্তরিত হলেও বরাদ্ব মেলেনী উন্নত মানের থানা ভবনের। তাই ঝুকিপুর্ন অস্থায় মোংলা বন্দর কর্তৃপক্ষের একটি পুরাতন ভবনে দীর্ঘদিন চলছে মোংলা থানা পুলিশের কার্যক্রম। এখানকার উপকুলীয় এলাকার বাসিন্দারা বলছেন, বর্তমান সরকার ৯ কোটি টাকা ব্যায়ে নতুন এ থানা ভবন নির্মানের ফলে ঝুকিমুক্ত হবে দুর্যোগসহ নানা প্রতিকুলতার হাত থেকে। তবে এ নতুন ভবনটি নির্মিত হওয়ায় যতই সমস্যা থাকুক তার মধ্যেও নিরাপদ ও স্বাছন্দ থাকবে পুলিশের প্রতিটি সদস্য বলে মনে করেন এলাকবাসী। এ জন্য বর্তমান সরকারের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন এখানকার বসবাসকারী বাসিন্দারা। বৃহস্পতিবার ঢাকায় ভিডিও কনফারেন্স এর মাধ্যমে মোংলা থানাসহ বেশ কয়েকটি নতুন নির্মিত থানা ভবনের শুভ উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। মোংলা প্রেস ক্লাবের সভাপতি ও বন্দরের নুরু এন্ড সন্স কোম্পানীর সত্বাধিকারী আলহাজ্ব এইচ এম দুলাল জানান, মোংলা বন্দর এলাকা একটি দুর্যোগ প্রবন এলাকা, এখানে মানুষ বস সমই ঘুর্নিঝড় ও দুর্যোগের মধ্যে বসবাস করে আসছে। এখানকার মানুষের প্রধান আয়ের উৎস সুন্দরবনের ভিক্তিক মৎস্য সম্পদদের উপর নির্ভব। তার মধ্যেও বনদস্যু ও জলসদ্যুদের তান্ডব লেগেই থাকতো। কিন্ত ১ নভেম্বর থেকে দস্যুমুক্ত সুন্দরবন ঘোষনা করেছেন বর্তমান সরকারের প্রধানমন্ত্রী। পাশা পাশী নতুন মডেল থানা নির্মান করে পুলিশী সেবার মান বাড়ীয়েছে এ উপকুল অঞ্চলের মানুষের। মোংলা থানার অফিসার ইনচাজ মোঃ ইকবাল বাহার চৌধুরী জানান, মোংলার দায়ীত্বে থাকা পুলিশ বাহিনীর সেবার মান বাড়ার সাথে সাথে নতুন থানা ভবনে পুলিশী কার্যক্রমের মধ্যদিয়ে দীর্ঘদিনের ঝুকি থেকে মুক্তি পেল মানুষের নিরাপত্তার দায়ীত্বে থাকা পুলিশ। থানা ভবনের ভিডিও কনফারেন্স এ অনুষ্ঠানে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ রবিউল ইসলাম,উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভুমি) মোহাম্মাদ আলী ছিদ্দিকী, মোংলা প্রেস ক্লাবের সাধারন সম্পাদক আহসান হাবিব হাসান, সাবেক সাঃ সম্পাদক মোঃ হাসান গাজী,আমির হোসেন আমু, উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি অধ্যক্ষ সুনিল কুমার বিশ্বাস,পৌর আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক ও জেলা পরিষদের সদস্য মুক্তিযোদ্ধা শেখ আঃ রহমান, থানা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের কমান্ডার ফকির আবুল কালাম আজাদ,ইউপি চেয়ারম্যান গাজী আকবার হোসেন,মোল্লা মোঃ তারিকুল ইসলাম,মোঃ ই¯্রাফিল হাওলাদার,নিখিল চন্দ্র রায়, থানা যুবলীগের সাধারন সম্পাদক মোঃ ইকবাল হোসেন, পৌর যুবলীগের সাধারন সম্পাদক মেখ আল মামুনসহ আওয়ামীলীগের নেতৃবৃন্দ,পুলিশের সকল কর্মকর্তা ও সদস্যরা এবং বিপুল সংখ্যক স্থানীয় লোকজন এসময় উপস্থি ছিলেন।