মেয়েটির জন্য খারাপ লাগে : শ্রীলেখা

0
374

বিনোদন ডেস্ক :

‘অবশ্যই শিলাদিত্যর বাসায় যাই। কারণ সে আমার মেয়ের বাবা। শিলাদিত্য আমার মেয়ের বাবা সুতরাং আমি ‘সিঙ্গেল মাদার’ নই। সে আমার মেয়েকে সায়েন্স ও গণিত শেখায়। আমি আর্টসের বিষয়গুলো শেখাই। প্রায়ই আমরা একসঙ্গে খুব ভালো সময় কাটাই। মাঝে মধ্যে আমার মেয়ে তার বাবা সঙ্গেও থাকে। দেখা যায়, স্কুল শেষ করে সে তার বাবার কাছে চলে গেছে। মেয়েটির জন্য খারাপ লাগে কারণ আমাদের জন্য সে কষ্ট পাচ্ছে। যদিও সে এ নিয়ে কখনো কোনো অভিযোগ করেনি।’ এভাবেই কথাগুলো বলেন টলিউড অভিনেত্রী শ্রীলেখা মিত্র।

২০১৩ সালে আলাদা হয়ে যান অভিনেত্রী শ্রীলেখা মিত্র ও শিলাদিত্য সান্যাল। তখন তাদের মেয়ে ঐষির বয়স ছিল ৮ বছর। বিবাহবিচ্ছেদের পর থেকে এখনো মেয়েকে নিয়ে একাই বসবাস করছেন শ্রীলেখা। তবে মেয়ের কারণে এখনো শিলাদিত্যর বাসায় যাতায়াত করেন শ্রীলেখা। সম্প্রতি এ বিষয় নিয়ে নানা গুঞ্জন চাউর হলে ভারতীয় সংবাদমাধ্যমে এসব কথা বলেন এই অভিনেত্রী।

তিনি আরো বলেন, ‘আমি সেই শ্রীলেখাকে মিস করি, যে কল্পকাহিনি বিশ্বাস করত। আমি আবার বিয়ে করতে পারব না, শিলাদিত্যও পারবে না। মেয়ের জন্য হলেও অনেকে আমাদের বিবাহবিচ্ছেদ ঘটাতে মানা করেছিল কিন্তু মেয়েকে তার বাবা-মায়ের অসন্তুষ্টি দেখতে দিতে চাইনি।’

অভিনয় ক্যারিয়ারে শ্রীলেখা ‘মন্দ মেয়ের উপাখ্যান’, ‘এক মুঠো ছবি’, ‘কাঁটাতার’, ‘আশ্চর্য প্রদীপ’, ‘চৌকাঠ’-এর মতো অনেক দর্শকপ্রিয় চলচ্চিত্র উপহার দিয়েছেন। শুধু টালিগঞ্জেই সীমাবদ্ধ থাকেননি শ্রীলেখা। তিনি বলিউডের জনপ্রিয় চিত্রনায়ক আমির খানের সঙ্গে জুটি বেঁধে একটি বিজ্ঞাপনেও কাজ করেছেন। এছাড়া কমেডি শো ‘মীরাক্কেল’-এর বিচারক হিসেবেও রয়েছে তার জনপ্রিয়তা।