মেয়র নির্বাচিত হলে ইজিবাইকের লাইসেন্স পর্যায়ক্রমে দেয়া হবে : তালুকদার খালেক

0
532

বিজ্ঞপ্তি: খুলনা মহানগর আওয়ামী লীগ সভাপতি ও সাবেক মেয়র আলহাজ্ব তালুকদার আব্দুল খালেক বলেছেন, আমি মেয়র থাকা অবস্থায় ২ হাজার লাইসেন্স দিয়ে নগরীতে ইজি বাইক চলাচলের অনুমতি দিয়েছিলাম। নগরী এবং পার্শ্ববর্তী এলাকায় আজ শিক্ষিত বেকার বেড়ে যাওয়ায় ইজি বাইকের সংখ্যা বেড়ে গিয়েছে। এই সকল ইজি বাইকের চলাচলের জন্য আরো লাইসেন্স দিয়ে শিক্ষিত চালকদের কর্মসংস্থান নিশ্চিত করতে হবে। ইনশাল্লাহ আমি মেয়র নির্বাচিত হলে নগরীতে ইজি বাইক ও রিকসা চলাচলের জন্য পর্যায়ক্রমে লাইসেন্স প্রদান করে বিশেষ ব্যবস্থা করা হবে। তিনি আরো বলেন, বিএনপি’র সাংগঠনিক শক্তি নাই তাই তারা নির্বাচন আসলেই নানা ভাবে মিথ্যা অপপ্রচার চালিয়ে ফায়েদা নিতে চায়। তিনি সকল অপপ্রচার থেকে নিজেদের সর্তক থাকার জন্য নগরবাসির প্রতি আহবান জানান।
শুক্রবার রাত ৮টায় সোনাডাঙ্গা থানা আওয়ামী লীগের বর্ধিত সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন। সোনাডাঙ্গা থানা আওয়ামী লীগ সভাপতি সিদ্দিকুর রহমান বুলু বিশ্বাসের সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক তসলিম আহমেদ আশার পরিচালনায় প্রধান বক্তা হিসেবে বক্তব্য রাখেন, কেন্দ্রিয় নেতা এস এম কামাল হোসেন, বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, মহানগর আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ও ১৪ দলের সমন্বয়ক আলহাজ্ব মিজানুর রহমান মিজান এমপি। এসময় বক্তব্য রাখেন আওয়ামী লীগ নেতা শেখ হায়দার আলী, কাজী এনায়েত হোসেন, মল্লিক আবিদ হোসেন কবির, আবুল কালাম আজাদ কামাল, মোঃ মুন্সি মাহবুব আলম সোহাগ, অধ্যাপক আলমগীর কবির, শেখ ফজলুল হক, কামরুল ইসলাম বাবলু, মোঃ শাহাজাদা, এ্যাড. সাইফুল ইসলাম, এ্যাড. সুলতানা রহমান শিল্পী, অধ্যাপক হোসনেআরা রুনু, নাজনিন নাহার কনা, কাউন্সিলর মাহমুদা বেগম, শাজাহান পারভেজ, টি এম আরিফ, আরজুল ইসলাম আরজু, জাহাঙ্গীর আলী মন্টু, মো. নুর ইসলাম, জাহিদুল হক, মুন্সি আইয়ুব আলী, শেখ আবিদ উল্লাহ, খন্দকার বাহাউদ্দিন, ইউসুফ আলী খান, মো. মোতালেব মিয়া, মীর মো. লিটন, মো. জাকির হোসেন, শেখ মো. রুহুল আমিন, বাদশা হাওলাদার, মোহাম্মদ হোসেন, প্রকৌ. আল মামুন চৌধুরী, সুলতান আহমেদ আব্দুল কুদ্দুস, মোক্তার হোসেন, আলী আকবর, রুহুল আমিন, কামরুল ইসলাম, মিলকন হোসেন রুমি, শেখ রেজা, নুরজাহান রুমি, বলাকা রায়, আমেনা হালিম বেবী, সাবিয়া ইসলাম আঙ্গুর, মনোয়ারা বেগম, জাহানারা সিরাজ, কবিতা আহমেদ, সৈয়াদা হেনা বেগম, ওসি বেগমসহ দলের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ।
সভায় সকল ওয়ার্ডে সেন্টার কমিটি গঠন করার সিদ্ধান্ত হয়।
এছাড়া বিকাল ৫টায় ২৬নং ওয়ার্ডে বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় আওয়ামী লীগ নেতা শেখ ইউনুস আলীর সভাপতিত্বে এবং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক শেখ মো. রুহুল আমিনের পরিচালনায় বক্তব্য রাখেন, মহানগর আওয়ামী লীগ সহ-সভাপতি শেখ হায়দার আলী, দপ্তর সম্পাদক মো. মুন্সি মাহবুব আলম সোহাগ, ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ আব্দুল আজিজ, শেখ মোহাম্মদ আলী, মনোয়ারা বেগম, কবিতা আহমেদ, নুর ইসলাম, মো. জাকারিয়া, মুন্সি হেকমত আলী, শামসুল হুদা, শেখ মো. জিল্লুর রহমান, শেখ মো. ইকবাল হোসেন, এ্যাড. রোজি, খন্দকার জাহাঙ্গীর আলম, আইয়ুব আলী শেখ, শেখ আসলাম উদ্দিনসহ দলের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ। সভায় মেয়র ও কাউন্সিলর কমিটি গঠণ করা হয়।
এদিকে ৩০নং ওয়ার্ডে অনুরুপ এক বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত হয়। ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ সভাপতি গাজী মোশাররফ হোসেনের সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক মো. শিহাব উদ্দিনের পরিচালনায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন, খুলনা মহানগর আওয়ামী লীগ সভাপতি ও সাবেক মেয়র আলহাজ্ব তালুকদার আব্দুল খালেক। প্রধান বক্তার বক্তব্য রাখেন, সদর থানা আওয়ামী লীগ সভাপতি এ্যাড. মো. সাইফুল ইসলাম। অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, রফিকুর রহমান রিপন, জোবায়ের আহমেদ খান জবা, এস এম মোজাফফর রশিদী রেজা, এস এম দারা, লূৎফুন নেছা লুৎফা, শফিকুর রহমান পলাশসহ দলের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ।
সভায় সেন্টার কমিটি গঠণ করা হয়।