মুক্তির পর থেকে প্রশংসায় ভাসছে ঊনপঞ্চাশ বাতাস

0
65

টাইমস বিনোদন:
মাসুদ হাসান উজ্জ্বল ছোট পর্দার গুণী নির্মাতা । তার নির্মিত প্রথম চলচ্চিত্র ‘ঊনপঞ্চাশ বাতাস’। গত ২৩ অক্টোবর নগরীর স্টার সিনেপ্লেক্স, যমুনা ফিউচার পার্কের ব্লকবাস্টার ও চট্টগ্রামের মাল্টিপ্লেক্সে মুক্তি পেয়েছে সিনেমাটি। মুক্তির পর থেকে প্রশংসায় ভাসছে এ চলচ্চিত্র। কার্তিকের এই লগ্নে যখন গুমোট আকাশ আর তখন নগরীতে বইয়ে যাচ্ছে ‘ঊনপঞ্চাশ বাতাস’ সিনেমার সু-বাতাস। ফেসবুকে স্ক্রল করলেই ঘুরে ফিরে আসছে এই চলচ্চিত্র নিয়ে দর্শক-নির্মাতা-অভিনয়শিল্পীদের নানা মন্তব্য। আর সবই প্রশংসাসূচক স্তবক। ‘আয়নাবাজি’ সিনেমা খ্যাত পরিচালক অমিতাভ রেজা চৌধুরী সিনেমাটি দেখার পর নিজের ভাবনার কথা জানিয়ে তার ভেরিফায়েড ফেসবুকে একটি পোস্ট করেছেন। তিনি লিখেছেনÑআমি সিনেমার রিভিউ লিখতে পারি না। এটা অবশ্য আমার কাজও না। নিজেকে গড্ডালিকায় না ভাসিয়ে মাসুদ হাসান উজ্জ্বল নিজের গল্প নিয়ে হাজির হয়েছে। খুব ভালো লেগেছে শার্লিন ফারজানা আর ইমতিয়াজ বর্ষণের অভিনয়। সবাই হলে গিয়ে সিনেমাটি দেখুন। হল বাঁচলে সিনেমা বাঁচবে। অভিনেত্রী আজমেরী হক বাঁধন। মুক্তির পর তিনিও দেখেছেন চলচ্চিত্রটি। ভালো লাগার কথা জানিয়ে বাঁধন বলেনÑআমি ‘ঊনপঞ্চাশ বাতাস’ দেখেছি। উজ্জ্বল ভাইয়ের কাজ আমার সবসময় ভালো লাগে। সহজ করে গল্প বলা, সংলাপ এবং মোমেন্টগুলো অসাধারণ। এত সুন্দর একটা প্রেমকে কি সহজভাবে আমাদের সামনে তুলে ধরলেন! শার্লিন ফারজানা ও ইমতিয়াজ বর্ষণ আমি মুগ্ধ হয়েছি নীরা আর অয়নের সরল ভালোবাসায়। শুভ কামনা রইলো ‘ঊনপঞ্চাশ বাতাস’ টিমের জন্য। আসিফ মাহমুদ নামে একজন দর্শক সিনেমাটি দেখে তার ঘোরলাগা অনুভূতির কথা লিখেছেন নিজের ফেসবুকে। তিনি চাইছিলেন না এ সিনেমা শেষ হোক। বিষয়টি উল্লেখ করে আসিফ মাহমুদ লিখেছেনÑঊনপঞ্চাশ বাতাস সিনেমাটি যখন দেখছিলাম তখন আমার কাছে মনে হচ্ছিল সিনেমাটি যেন শেষ না হয়। আরো কিছুক্ষণ যেন চলে, আরো কিছুক্ষণ যেন চলে, এরকম! অসাধারণ একটি সিনেমা। কখন যে ২ ঘন্টা ৪০ মিনিট পার হয়ে গেছে বুঝতেই পারিনি। তিনি আরো লিখেছেনÑমুভির প্রথম অংশটা দেখে যতটা হাসছিলাম তার চেয়ে বেশি মন খারাপ লাগছিল সিনেমাটির দ্বিতীয় অংশ দেখে। শৌরিন আপুর ‘এ শহর’ গানটি যখন বাজছিল তখন কষ্টে বুক ফেটে যাচ্ছিল। আমার মনে হয় সব দর্শকেরই আমার মতোই অনুভূতি হচ্ছিল। যাইহোক, সিনেমাটির কাহিনি চমৎকার। সংলাপগুলো অসাধারণ। মনের মধ্যে দাগ কাটে, মস্তিষ্কে ভাবান্তর ঘটায়। আশিকুর রহমান নামে একজন লিখেছেনÑউজ্জ্বল ভাই, আমি না আপনার সিনেমা দেখে নির্বাক হয়ে গেছি! কিছু লিখতে ইচ্ছে করছে না। কেমন যেন একটা ঘোরের মধ্যে আছি। আপনার গল্পটার সৃষ্টি যেই মাথা থেকে হয়েছে বরং সেই মাথাটার ভিতরে আরো উঁকিঝুঁকি মেরে দেখতে ইচ্ছে করছে। কীভাবে এই গল্প, এই সংলাপ, এই মোমেন্টগুলো এই মাথায় আসলো! সেটা খুঁজে বের করতে ইচ্ছে করছে! সিনেমাটি দেখেছিলাম আর আমার কলেজ লাইফে ৮ বছর ধরে চলা প্রেমের কথা খুব মনে পড়েছিল। আমি কাল থেকে আমার বউকে আগের থেকে আরো ১০০ গ্রাম হলেও বেশি ভালোবাসবো, কথা দিচ্ছি আপনাকে। আপনার গল্পের মেয়েটির জন্য এত কষ্ট হচ্ছে যে আমি আপনাকে বুঝিয়ে বলতে পারব না। এমন অসংখ্য মন্তব্য ও সিনেমাটির ইতিবাচক রিভিউ ঘুরে বেড়াচ্ছে অন্তর্জালে। সম্পর্ক, বিশ্বাস আর আস্থার গল্প নিয়ে ক্যারিয়ারের প্রথম চলচ্চিত্র নির্মাণ করেছেন মাসুদ হাসান উজ্জ্বল। এই চলচ্চিত্রের গল্পের মূল চরিত্র অয়ন ও নীরা। এ দুটি চরিত্র রূপায়ন করেছেন ইমতিয়াজ বর্ষণ ও শার্লিন ফারজানা। পরিচালনার পাশাপাশি ‘ঊনপঞ্চাশ বাতাস’-এর কাহিনি, সংলাপ, চিত্রনাট্য, শিল্প নির্দেশনা এবং সংগীত পরিচালনাও করেছেন মাসুদ হাসান উজ্জ্বল। শুধু তাই নয়, ফটোগ্রাফি এবং পোস্টার ডিজাইনও তার করা। প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান রেড অক্টোবরের ব্যানারে চলচ্চিত্রটি প্রযোজনা করছেন আসিফ হানিফ, নির্বাহী প্রযোজকের দায়িত্বে আছেন সৈয়দা শাওন।