মাসের দ্বিতীয়ার্ধে হতে পারে বন্যা, ভারী বৃষ্টির সতর্কবার্তা

0
355

আবহাওয়া ডেস্ক:

সক্রিয় মৌসুমি বায়ুর (বর্ষা) কারণে গত দুদিন ধরে প্রায় সারাদেশেই বৃষ্টি হচ্ছে। বুধবার সন্ধ্যা থেকে ভারী বৃষ্টির সতর্কবার্তা দিয়েছে আবহাওয়া বিভাগ। একই সঙ্গে চট্টগ্রাম ও সিলেটের পাহাড়ী এলাকায় পাহাড় ধসের আশঙ্কার কথা জানিয়েছে সংস্থাটি।

অপরদিকে জুলাইয়ের দীর্ঘমেয়াদি পূর্বাভাসে জানানো হয়েছে, উজানে ভারী বৃষ্টির কারণে জুলাই মাসের দ্বিতীয়ার্ধে দেশের উত্তরাঞ্চল, মধ্যাঞ্চল ও উত্তর-পূর্বাঞ্চলে স্বল্প থেকে মধ্য মেয়াদি বন্যা পরিস্থিতি সৃষ্টি হতে পারে।

আবহাওয়া অধিদফতরের তথ্য অনুযায়ী, বুধবার সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে সবেচেয়ে বেশি বৃষ্টি হয়েছে কক্সবাজারে, সেখানে ১৩১ মিলিমিটার বৃষ্টি হয়েছে। এ সময়ে ঢাকায় ৪৫ মিলিমিটার বৃষ্টি হয়।

বুধবার ভারী বর্ষণের সতর্কবাণীতে আবহাওয়া অধিদফতর জানিয়েছে, সক্রিয় মৌসুমী বায়ুর প্রভাবে বুধবার সন্ধ্যা ৬টা থেকে পরবর্তী ২৪ ঘণ্টার মধ্যে রংপুর, সিলেট, ময়মনসিংহ ও চট্টগ্রাম বিভাগের কোথাও কোথাও দমকা হাওয়াসহ ভারী (৪৪ থেকে ৮৮ মিলিমিটার) থেকে অতিভারী (৮৯ মিলিমিটারের বেশি) বৃষ্টি হতে পারে।

এতে আরও বলা হয়েছে, অতি ভারী বৃষ্টির কারণে সিলেট ও চট্টগ্রাম বিভাগের পাহাড়ী এলাকার কোথাও কোথাও ভূমিধসের আশঙ্কা রয়েছে।

বুধবার আষাঢ় মাসের ২০ তারিখ। আষাঢ় হচ্ছে বর্ষাকালের প্রথম মাস। আবহাওয়াবিদরা জানিয়েছেন, সক্রিয় মৌসুমি বায়ুর কারণে আগামী কয়েক দিন প্রায় সারা দেশেই বৃষ্টির প্রবণতা অব্যাহত থাকবে।

অপরদিকে বাংলাদেশ পানি উন্নয়ন বোর্ডের বন্যা পূর্বাভাস ও সতর্কীকরণ কেন্দ্র বুধবার জানিয়েছে, দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চলীয় পাহাড়ী অববাহিকাসহ সব প্রধান নদ-নদীর পানি বাড়ছে। ব্রহ্মপুত্র-যমুনার পানি বৃদ্ধি আগামী ৭২ ঘণ্টা পর্যন্ত ও গঙ্গা-পদ্মা নদীর পানি বৃদ্ধি ৪৮ ঘণ্টা পর্যন্ত অব্যাহত থাকতে পারে।

ভারী বৃষ্টিপাতের জন্য আগামী ২৪ থেকে ৪৮ ঘণ্টায় দেশের উত্তরাঞ্চলের ধরলা, তিস্তা, দুধকুমার, ঘাঘট নদীর পারি এবং উত্তর-পূর্বাঞ্চলের সুরমা ও কুশিয়ারা নদীর পানি দ্রুত বৃদ্ধি পেতে পারে।

বুধবার সুরমা, কুশিয়ার, সারিগোয়াইন, পুরাতন সুরমা, জদুকাটা, সোমেশ্বরী ও সাঙ্গু নদীর পানি নয়টি পয়েন্টে বিপদসীমার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।

দীর্ঘমেয়াদি পূর্বাভাস দিতে আবহাওয়া অধিদফতরের গঠিত বিশেষজ্ঞ কমিটি জুলাই মাসের পূর্বাভাসে জানিয়েছে, জুলাই মাসে বাংলাদেশে স্বাভাবিক বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে। এ ছাড়া এ মাসে বঙ্গোপসাগরে এক থেকে দুটি মৌসুমি লঘুচাপ সৃষ্টি হতে পারে, এর মধ্যে একটি নিম্নচাপে পরিণত হতে পারে।

বুধবার সন্ধ্যা ৬টা থেকে পরবর্তী ২৪ ঘণ্টার আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, রংপুর, ঢাকা, ময়মনসিংহ, খুলনা, বরিশাল, চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগের অধিকাংশ জায়গায় এবং রাজশাহী বিভাগের অনেক জায়গায় অস্থায়ী দমকা হাওয়া ও বিজলি চমকানোসহ হালকা থেকে মাঝারি ধরনের বৃষ্টি বা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। সেইসঙ্গে দেশের কোথাও কোথাও মাঝারি ধরনের ভারী থেকে অতি ভারী বৃষ্টি হতে পারে।