মহসেন জুট মিলের শ্রমিক মান্নানের মৃতদেহ পুকুর থেকে উদ্ধার

0
193

ফুলবাড়ীগেট প্রতিনিধি:
ব্যক্তিমালিকানাধীন মহসেন জুট মিলের ফিনিসিং বিভাগের শ্রমিক ও মহসেন জুট মিল জামে মসজিদের খাদেম আঃ মান্নান (৭০) ২২ অক্টোবর বৃহস্পতিবার দুপুরে অসুস্থ অবস্থায় মিল অভ্যন্তরে মসজিদ সংলগ্ন পুকুরে গোসল করতে যান। জোহরের নামাজের আজান দেওয়ার সময় আঃ মান্নান কে খুজে পাওয়া যাচ্ছিলোনা এ সময় মিলের সিকিউরিটি ও মুসাল্লিরা পুকুর ঘাটে মান্নানের লুঙ্গি ও জুতা দেখতে পেয়ে সন্দেহ হলে পুকুর থেকে ডুবন্ত অবস্থায় মান্নানের মরদেহ উদ্ধার করে (ইন্নালি…………রাজিউন)। মহসেন জুট মিলের প্রবীন শ্রমিক আমির মুন্সি বলেন আঃ মান্নান বেশ কিছুদিন ধরে অসুস্থ ছিলেন, মিলে তাঁর কয়েক লক্ষ টাকা পাওনা থাকলেও টাকার অভাবে তিনি চিকিৎসা নিতে পারেননি। আব্দুল মান্নান মিলের শ্রমিক কোয়ার্টারে থাকতেন। নিজের জমানো টাকা থেকে মিল মালিক ও সিবিএ নেতাদের কাছে বারবার ধরনা দিয়েও চিকিৎসার জন্য একটি টাকাও তিনি পাননি। এ ঘটনায় মিলের শ্রমিক সহ এলাকাবাসির মধ্যে শোক বিরাজ করছে। ২২ অক্টোবর বৃহস্পতিবার বাদ আছর মহসেন জুট মিল জামে মসজিদের সামনে মরহুমের জানাযার নামাজ অনুষ্ঠিত হয়। জানাযা শেষে তার মরদেহ গ্রামের বাড়ী গোপালগঞ্জে নিয়ে যাওয়া হয়। জানাজায় উপস্থিত ছিলেন বেসরকারি পাট সুতা বস্ত্রকল শ্রমিক কর্মচারী ফেডারেশনের সভাপতি শেখ আমজাদ হোসেন, সাধারন সম্পাদক খান গোলাম রসুল, শহিদুল্লাহ খা, আমির মুন্সি, ইউপি সদস্য খান হাফিজুর রহমান, লিয়াকত মুন্সি, সেকেন্দার আলি, খান মাশরুজ্জামান সাবু, সাংবাদিক সাইফুল্লাহ তারেক, আঃ হালিম প্রমুখ। উল্লেখ্য ইতিপুর্বেমহসেন জুট মিলের ৬৫ জন শ্রমিক মিল মালিকের কাছে তাদের পিএফ, গ্রাচুইটি সহ চুড়ান্ত পাওনা পাওয়া সত্বেও অর্থাভাবে বিনা চিকিৎসায় মারা গেছে। উক্ত জানাজায় ইমামতি করেন বাকেশি জামে মসজিদের ইমাম মুফতি মাওলানা গোলামুর রহমান।