ভেদাভেদ ভুলে ঐক্যবদ্ধ হয়ে নৌকা প্রতিককে বিজয়ী করার জন্য কাজ করুন : ওবায়দুল কাদের এমপি

0
289

সেলিম হায়দার, সাতক্ষীরা : বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক, সড়ক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের এমপি বলেছেন, রান্না ঘরে বসে মহিলারা আজ সাউথ আফ্রিকায় কথা বলে। ভিডিও কলও করেন। আজ পদ্মা সেতু দৃশ্যমান। ঘরে ঘরে বিদ্যু। এসব একমাত্র বঙ্গবন্ধু কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনার দ্বারাই সম্ভব। তিনি জনগণের জন্য রাজনীতি করেন। তিনি মানুষের ভাগ্য উন্নয়নে রাজনীতি করেন।
মঙ্গলবার বেলা ১১টায় সাতক্ষীরা জেলা আওয়ামীলীগের প্রতিনিধি সমাবেশ ও সদস্য নবায়ন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।
তার বক্তব্যের শুরুতে সাতক্ষীরার সৈয়দ কামাল বখত সাকী, মমতাজ আহমেদ, এড. এন্তাজ আলী, স ম আলাউদ্দিন, আবু নাসিম ময়নাসহ প্রয়াত নেতাদের স্মরণ করে তিনি সাতক্ষীরা জেলা আওয়ামীলীগের নেতৃবৃন্দকে উদ্দেশ্য করে বলেন, জনগনের কোন দোষ নেই, কোন সমস্যা নেই। সমস্যা আপনাদের। জনগণ যখন বিপদে পড়বে তখন আপনারা ঢাকায় থাকবেন এটি হবে না। প্রার্থী হতে চান ভালো কথা। কিন্তু আপনাদের চেহারা দেখে মনোনয়ন দেওয়া হবে না। মনোনয়ন দেওয়া হবে জনগনের রিপোর্টের উপর। জনগন যাকে চাইবে আমরা তাকে মনোনয়ন দেবো। তিনি ঢাকামুখী নেতাদের হুশিয়ারী প্রদান করে বলেন, ৭/৮ শ মটরসাইকেল শোডাউন দিয়ে, ব্যানার ফেস্টুন টানিয়ে মনোনয়ন পাওয়া যাবে না। মনোনয়ন পেতে হলে এলাকায় কাজ করতে হবে। ঢাকায় গিয়ে চেহারা না দেখিয়ে এলাকার উন্নয়নে অংশ নেন। জনগনের হৃদয়ে অবস্থান নেন। জনগনই আপনাকে মনোনয়ন দিয়ে নির্বাচিত করবে। এখনো সময় আছে ভালো হয়ে যান। জনগনকে সাথে নিয়ে কাজ করেন। শুধু নির্বাচনের সময় কর্মীদের বাড়ি যাবেন। নির্বাচনের সময় মৃত নেতাকর্মীদের কবর জিয়ারত করবেন। এভাবে নেতৃত্ব চলে না।
তিনি আরো বলেন, এমন অনেক কর্মী রয়েছে। যাদের ঘরে বাজার করার মত টাকা নেই। অসুস্থ হয়ে ঘরে পড়ে আছে ঔষধ কেনার টাকা নেই। তাদের খোজ খবরও নেন না। এটা হবে না। এটা বঙ্গবন্ধুর আদর্শ হতে পারে না। এমন নেতা সাতক্ষীরার জনগনের দরকার নেই। মনোনয়ন কাকে দেওয়া হবে এটি একমাত্র জননেত্রী শেখ হাসিনাই বলতে পারেন। সুতরাং সকল ভেদাভেদ ভুলে কর্মীদের সাথে নিয়ে নৌকা প্রতীককে বিজয়ী করার জন্য কাজ করার আহবান জানান তিনি।
সাতক্ষীরা জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি মুনসুর আহমেদের সভাপতিত্বে বিশষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের সদস্য এস এম কামাল হোসেন, সাবক স্বাস্থ্য মন্ত্রী ডা: আফম রুহুল হক এমপি, সদর-২ আসনের মীর মোস্তাক আহমেদ রবি এমপি, সাতক্ষীরা-৪ আসনের জগলুল হায়দার এমপি প্রমুখ। সমগ্র অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন সাতক্ষীরা জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ও জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আলহাজ্ব নজরুল ইসলাম। পরে জলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও সম্পাদককে হাতে হাত দিয়ে বিবাদমান দ্বন্দ্বর সমাপ্তি করিয়ে নতুন উদ্যোমে কাজ করার নির্দেশ দেন ওবায়দুল কাদের এমপি।