ভাতার লোভে মেম্বরের প্রতিবন্ধী কার্ড !

0
1969

মোংলায় রেজি সরকার নামে সাবেক এক ইউপি মেম্বরের বিরুদ্ধে নিজ নামে প্রতিবন্ধী কার্ড করার অভিযোগ উঠেছে। ভাতার নেয়ার লোভে উপজেলা সমাজ সেবা অফিস থেকে তিনি এ কার্ড করেছেন বলে স্থানীয়রা জানিয়েছেন। তবে ওই ইউপি মেম্বরের দাবি, তার নামে যে প্রতিবন্ধী কার্ড হয়েছে তা তিনি জানেন না। ষড়যন্ত্র করে তার প্রতিপক্ষ বর্তমান ইউপি মেম্বর জাহাঙ্গীর মল্লিক এটি করেছেন।
উপজেলার মালগাজী গ্রামের বাসিন্দা সুধির সরকারের ছেলে রেজি সরকার ১ নং চাঁদপাই ইউনিয়নের ৫ নং ওয়ার্ডের চার বারের সাবেক মেম্বর (ইউপি সদস্য) ছিলেন। ওই সময়ই তিনি সমাজ সেবা কর্মকর্তা হাসিবুর রহমানকে ম্যানেজ করে নিজ নামে প্রতিবন্ধী কার্ড করেছেন বলে খোঁজ নিয়ে জানা গেছে। ওই প্রতিবন্ধী ভাতার কার্ডের (পরিচয়পত্র) আইডি নম্বর-১৯৬৮০১১৫৮২৩৩৬১৯৯৫-০২।
ভাতার এ কার্ড প্রতিবন্ধীদের মাঝে বিতরণের সময় সোমবার বিষয়টি জানাজানি হয়। স্থানীয় ইউপি মেম্বর জাহাঙ্গীর মল্লিক জানান, মোংলা উপজেলার সমাজ সেবা অফিস থেকে গত রবিবার ১০ টি কার্ড প্রতিবন্ধী ভাতার জন্য উত্তোলন করেন। এ সময়ই সাবেক মেম্বর রেজি সরকারের নামে তিনি প্রতিবন্ধী ভাতার কার্ড দেখতে পান। পরে তিনি বিষয়টি সমাজ সেবা কর্মকর্তা হাসিবুরকে জানালে তিনি বৈধ কাগজ দিয়েই প্রতিবন্ধী ভাতার কার্ড করেছেন বলে তাকে জানান হাসিবুর।
এ বিষয়ে রেজি সরকার বলেন, কিভাবে কার্ড হলো তা তার জানা নাই। সম্ভাবত তার সই-স্বাক্ষর জাল করে এটি বর্তমান মেম্বর জাহাঙ্গীর মল্লিক করেছেন।
এদিকে উপজেলা সমাজ সেবা কর্মকর্তা হাসিবুর রহমান বলেন, রেজি সরকার ডাক্তারদের প্রয়োজনীয় কাগজপত্র নিয়ে প্রতিবন্ধী ভাতার জন্য আবেদন করলে তাকে এ কার্ড প্রদাণ করা হয়। প্রতিবন্ধী না হয়ে, ভাতা নেয়ার জন্য যদি এ কার্ড করে থাকেন, তাহলে ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানান তিনি।
মোংলা উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো: রবিউল ইসলাম বলেন, যদিও বিষয়টি সংশ্লিষ্ট ইউপি চেয়ারম্যানের, তারপরও আমি এ বিষয়ে খোঁজ নিয়ে ব্যাবস্থা নিবো। প্রতিনিধি