বেদে ও অনগ্রসর জনগোষ্ঠীর জীবনমান উন্নয়ন বিষয়ে সেমিনার অনুষ্ঠিত

0
476

তথ্য বিবরণী:
‘বেদে ও অনগ্রসর জনগোষ্ঠীর জীবনমান উন্নয়ন শীর্ষক কর্মসূচির আওতায় প্রশিক্ষণ’ সম্পর্কিত সেমিনার এবং প্রশিক্ষণোত্তর সহায়তা প্রদান অনুষ্ঠান গতকাল সকালে খুলনা সার্কিট হাউস সম্মেলনকক্ষে অনুষ্ঠিত হয়। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন খুলনার জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ হেলাল হোসেন। রূপসা সংস্থার সহযোগিতায় জেলা সমাজসেবা কার্যালয় এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে।
প্রধান অতিথির বক্তৃতায় জেলা প্রশাসক বলেন, দলিত ও হরিজনদের পিছনে রেখে দেশের সামগ্রিক উন্নয়ন সম্ভব নয়। তাদের বিভিন্ন কোর্সে প্রশিক্ষণ দিয়ে আত্মকর্মসংস্থানের সুযোগ করে দিতে হবে। সরকার তাদের বিভিন্ন সুযোগ-সুবিধা বৃদ্ধি করেছে এবং পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠিকে সহায়তা দিয়ে যাচ্ছে। নিজেদের অবস্থান নিজেদেরকেই তৈরি করে নিতে হবে। তিনি বলেন, হাঁস-মুরগি এবং গরু-ছাগল পালন করে তারা স্বাবলম্বী হতে পারে। এছাড়াও কম পুঁজি দিয়ে ছোট ছোট ব্যবস্যা প্রতিষ্ঠান গড়ে তুলতে পারে।
অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন খুলনা আঞ্চলিক তথ্য অফিসের উপপ্রধান তথ্য অফিসার ম. জাভেদ ইকবাল অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) জিয়াউর রহমান, অতিরিক্ত উপপুলিশ কমিশনার সোনালী সেন, যুব উন্নয়ন অধিদপ্তরের উপপরিচালক মোঃ মতিয়ার রহমান, জেলা বাজার কর্মকর্তা মোঃ আব্দুস সালাম তরফদার এবং সিএসএস এর প্রতিনিধি বিধান চন্দ্র দাস। এতে সভাপতিত্ব করেন জেলা সমাজসেবা কার্যালয়ের উপপরিচালক খান মোতাহার হোসেন। প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন রূপসা সংস্থার নির্বাহী পরিচালক হিরন্ময় মন্ডল। সেমিনার পরিচালনা করেন জেলা সমাজসেবা অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক মোঃ আইনাল হক। সেমিনারে সরকারি কর্মকর্তা, এনজিও প্রতিনিধি, দলিত ও হরিজন সম্প্রদায়ের প্রতিনিধিরা অংশগ্রহণ করেন। অনুষ্ঠানে জেলা প্রশাসক প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত ৫০ জন দলিত ও হরিজনদের মাঝে ১০ হাজার টাকা করে পাঁচ লাখ টাকার চেক ও সনদপত্র বিতরণ করেন।