বিজ্ঞানের অগ্রযাত্রায় গণিতের ভূমিকা অনস্বীকার্য : কুয়েট ভিসি

0
311

সংবাদ বিজ্ঞপ্তি:
খুলনা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (কুয়েট) অনুষ্ঠিত ৯ম জাতীয় গণিত অলিম্পিয়াডের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাইস-চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মুহাম্মদ আলমগীর বলেন, “গণিত এমন একটি বিষয় যাকে বাদ দিয়ে আমরা চলতে পারি না। বিজ্ঞানের ক্ষেত্রে সাবলিল হতে হলে গণিত চর্চা করতে হবে। বিজ্ঞানের অগ্রযাত্রায় গণিতের ভূমিকা অনস্বীকার্য”।

১৮ নভেম্বর সকাল ১০টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের স্টুডেন্টস ওয়েলফেয়ার সেন্টারে বাংলাদেশ গনিত সমিতি ও বাংলাদেশ জাতীয় ¯œাতক গণিত অলিম্পিয়াড কমিটির সহযোগিতায় এবং কুয়েটের আয়োজনে দিনব্যাপী খুলনা অঞ্চলের এ প্রতিযোগিতা শুরু হয়। গণিত বিভাগের বিভাগীয় প্রধান ও আঞ্চলিক অলিম্পিয়াড কমিটির আহŸায়ক প্রফেসর ড. মোঃ আলহাজ উদ্দীন এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং অনুষদের ভারপ্রাপ্ত ডীন প্রফেসর ড. খন্দকার মাহবুব হাসান, জাতীয় ¯œাতক গণিত অলিম্পিয়াড কমিটির সদস্য-সচিব প্রফেসর ড. মোঃ মনিরুল আলম সরকার, বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের বিজ্ঞান অনুষদের ডীন প্রফেসর ড. মোঃ তাজুল ইসলাম, ই-ম্যাথ গবেষণা ফাউন্ডেশান এর প্রতিষ্ঠাতা ও নির্বাহী পরিচালক কাজী মোঃ খাইরুল বাশার।

জাতীয় সংগীতের সাথে জাতীয় পতাকা উত্তোলণ ও বেলুন উঢ়ানোর মধ্যদিয়ে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের পর শুরু হয় শিক্ষার্থীদের ঘন্টাব্যাপী লিখিত পরীক্ষা। এছাড়া উম্মুক্ত আলোচনা ও প্রশ্নোত্তর পব শেষে পুরস্কার বিতরণের মধ্য দিয়ে বিকালে অনুষ্ঠানের সমাপ্তি ঘটে। প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে বিজয়ীদের মধ্যে পুরস্কার বিতরণ করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাইস-চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মুহাম্মদ আলমগীর। অলিম্পিয়াডে খুলনা অঞ্চলের ১১ টি কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের মোট ৯০ জন প্রতিযোগী অংশগ্রহণ করে, এর মধ্যে ১০ জন বিজয়ী হয়। খুলনাসহ দেশের ৬ টি আঞ্চলিক প্রতিযোগিতায় বিজয়ীরা জাতীয় ¯œাতক গণিত অলিম্পিয়াডে অংশ নেবে। অলিম্পিয়াডে গণিতের বর্তমান ও প্রাক্তন শিক্ষার্থী, শিক্ষকসহ গণিত অনুরাগীরা অংশগ্রহণ করেন।