বিএনপি দুই ইস্যুতে কূটনীতিকদের ব্রিফ করেছে

0
371

খুলনাটাইমস ডেস্কঃ বাংলাদেশে নিযুক্ত বিদেশি কূটনীতিকদের ব্রিফ করেছে বিএনপি। গতকাল বিকালে চেয়ারপারসনের গুলশান রাজনৈতিক কার্যালয়ে এ ব্রিফিংয়ের আয়োজন করা হয়। বিএনপির কূটনীতিক উইং সূত্র জানায়, মূলত একুশে আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলার বিচার ও সম্ভাব্য রায়কে কেন্দ্র করে এ ব্রিফিং অনুষ্ঠিত হয়। তবে দলের কারাবন্দি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট মামলার বিচারে কারাগারের মধ্যেই আদালত স্থাপনের বিষয়টিও উঠে আসে। সূত্র জানায়, ব্রিফে একুশে আগস্ট গ্রেনেড হামলার ঘটনায় নানা তথ্য-উপাত্তের মাধ্যমে কূটনীতিকদের কাছে নিজেদের অবস্থান পরিষ্কার করেছে বিএনপি। এ বিষয়ে তথ্য-উপাত্ত সংবলিত একটি লিখিত প্রতিবেদনও কূটনীতিকদের দেয়া হয়। বিএনপি নেতারা কূটনীতিকদের জানান, ২০০৭ সালে শেখ হাসিনা ১৬১ ধারায় একটি জবানবন্দি দিয়েছিলেন। সেখানে কোথাও তিনি বিএনপির বর্তমান ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান বা অন্য কোনো নেতার নাম বলেননি।
কিন্তু ২০০৮ সালের জাতীয় নির্বাচনের পর মহাজোট ক্ষমতায় এসে পুরো বিষয়টি তারা নিজেদের ইচ্ছামতো পরিচালিত করে। এ মামলায় একজন অবসরপ্রাপ্ত দলীয় লোককে তদন্ত কর্মকর্তা নিয়োগ, একজনকে দীর্ঘদিন রিমান্ড নির্যাতনের মাধ্যমে স্বীকারোক্তিতে তারেক রহমানের নাম করানো, পরে নির্যাতিত ব্যক্তির সে স্বীকারোক্তি প্রত্যাহার এবং রায়ের আগে বিএনপিকে জড়িয়ে প্রধানমন্ত্রীসহ মন্ত্রীদের নানা বক্তব্যের বিষয়গুলো কূটনীতিকদের অবহিত করা হয়। বিএনপি নেতারা আশঙ্কা প্রকাশ করেন একুশে আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলায় একটি ফরমায়েশি রায় হতে যাচ্ছে। বিএনপির আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক ব্যারিস্টার নওশাদ জমির বলেন, কূটনীতিকদের জানানো হয়েছে- একটি প্রজ্ঞাপন জারি করে কেন্দ্রীয় কারাগারের ভেতরে আদালত স্থাপন করছে সরকার। এ পদক্ষেপ সম্পূর্ণ সংবিধানবিরোধী। অত্যন্ত হীন উদ্দেশ্যে এসব করছে সরকার।

সূত্র জানায়, চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মামলা, জামিন প্রক্রিয়ায় সরকারের হস্তক্ষেপের প্রেক্ষাপট ব্রিফিংয়ে তুলে ধরা হয়। এর আগে বিকাল ৪টায় শুরু হওয়া বৈঠকটি চলে প্রায় দুই ঘণ্টা। বৈঠকে যুক্তরাষ্ট্র, চীন, ভারত, অস্ট্রেলিয়া, কানাডা, স্পেন, তুরস্ক, রাশিয়া, পাকিস্তান, সৌদি আরব, সুইডেন, জাপান, ফিলিস্তিন, ইউরোপীয় ইউনিয়নসহ ২৫টি দেশ ও সংস্থার প্রতিনিধি কূটনীতিকরা অংশ নেন। বৈঠকে বিএনপির নেতাদের মধ্যে মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, ড. আবদুল মঈন খান, আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী, আন্তর্জাতিক সম্পাদক ব্যারিস্টার নওশাদ জমির, নির্বাহী কমিটির সদস্য তাবিথ আউয়াল ও জেবা খান প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। তবে বৈঠকের বিষয়বস্তু নিয়ে গণমাধ্যমের কাছে কোনো বক্তব্য দেয়নি বিএনপি।