বিএনপিকে নির্বাচনের বাইরে রাখা যাবে না: খালেদা জিয়া

0
229

টাইমস ডেস্ক: বিএনপিকে আগামী নির্বাচনের বাইয়ে রাখতে চাইলেই রাখা যাবে না বলে সরকারের প্রতি হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেছেন দলটির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া।

মঙ্গলবার রাজধানী ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশনে ছাত্রদলের ৩৯তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত এক ছাত্রসমাবেশে তিনি এ হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেন। এর আগে বিকেল ৪ টায় রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশনের মিলনায়তনের মুল ফটকের এ সমাবেশ শুরু হয়। ফটকের সামনে গাছের নিচে দাঁড়িয়ে নেতাকর্মীরা বক্তব্যে দেন। বিকেল পৌনে ৪ টায় বিএনপি চেয়ারপারসন সমাবেশেন উদ্দেশ্য তার গুলশান বাসভবন থেকে রওনা হোন, ৪ টা ২৫ মিনিটে বেগম জিয়া সমাবেশস্থলে উপস্থিত হোন।

সরকারকে উদ্দেশ্য করে খালেদা জিয়া বলেন, আমরা (বিএনপি) নির্বাচনের দল। আমরা নির্বাচন করবো। বিএনপিকে বাইয়ে রাখতে চাইলেই রাখা যাবে না। আমরা নির্বাচন করবো, সেই ব্যবস্থা ছাত্রদলকে করতে হবে। সেই নির্বাচন হতে হবে নিরপেক্ষ সরকারের অধিনে, হাসিনার অধিনে নয়। আর সেই নির্বাচন হবে। কারণ সারা পৃথিবী বুঝে গেছে, হাসিনার অধিনে সুষ্ঠু নির্বাচন হয়নি, আর হবেও না।

সরকারের প্রতি হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে তিনি বলেন, যে করেই হোক আওয়ামী লীগকে ক্ষমতা থেকে বিদায় নিতে হবে। জনগণের যারা কল্যাণ ও ভালো চায় তাদের সরকার জনগণ দেখতে চায়। সেই জন্য মানুষ চায় একটা পরিবর্তন। আর এই পরিবর্তনের জন্য প্রয়োজন দেশে একটা নিরপেক্ষ সরকারের অধিনে নির্বাচন। কারণ হাসিনার অধিনে যত নির্বাচন দেখেছি, সেই নির্বাচনগুলো সুষ্ঠু হয়েছে, তা কেউ বলবে না। সুতরাং হাসিনার অধিনে নির্বাচন সুষ্ঠু হয়নি, আর সুষ্ঠুও হবে না কোন দিন।

বিএনপির চেয়ারপারসন বলেন, হাসিনার সরকার জনগণের ভোটে নির্বাচিত সরকার নয়। তাই তাদের অধিনে নির্বাচন হতে পারে না। আজ সংসদ বলে কিছু নেই। ৫ জানুয়ারি নির্বাচনে এরা ভোট পায়নি। সুতরাং এরা সংসদে থাকার যোগ্য নয়। তাই এই সংসদ ভেঙ্গে দিয়েই নির্বাচন দিতে হবে। এই সংসদ রেখে নির্বাচন হবে না। আর হাসিনার অধিনেও নির্বাচন হবে না।

দেশে গণতন্ত্র নেই মন্তব্য করে তিনি বলেন, আজকে দেশে জনগণের নির্বাচিত সরকার নেই। যারা ক্ষমতায় আছে তারা হচ্ছে অবৈধ, এরা বৈধ সরকার নয়। কারণ বর্তমান সরকার জনগণের ভোটে নির্বাচিত নয়। আজকে দেশে আইনের শাসন ও কথা বলার অধিকার নেই- বলে মন্তব্য করেন তিনি।