বিআইএফপিসিএল’র উদ্যোগে বিনামুল্যে চোখের রোগীদের সেবা প্রদান

0
353

বিশেষ প্রতিনিধি: বাংলাদেশ-ইন্ডিয়া ফ্রেন্ডশীপ পাওয়ার কোম্পানী প্রাইভেট লিমিটেড এর উদ্যোগে বিনা মুল্যে চোখের রোগীদের সেবা প্রদান করা হয়। সোমবার পাওয়ার প্লান্ট সংলগ্ন গৌরম্ভা ইউনিয়ন পরিষদ মিলানয়তনে দিন ব্যাপী অনুষ্ঠিত এই মেডিকেল ক্যাম্পে আড়াই শতাধিক চোখের রোগী বহুবিধ সেবা গ্রহণ করেন। বিআইএফপিসিএল’র সামাজিক কর্মকান্ডের অংশ হিসেবে প্রতিষ্ঠানটি সূচনা লগ্ন থেকে গরীব ও স্বল্প আয়ের মানুষের জন্যে মাঝে সেবামুলক কর্মকান্ড পরিচালনা করে আসছে। এছাড়াও বিভিন্ন প্রশিক্ষণের পাশাপাশি সামাজিক ও সাংস্কৃতিক কর্মকান্ডও পরিচালিত হচ্ছে প্রতিষ্ঠানটির পক্ষ থেকে।
স্থানীয়রা জানান, রামপাল পাওয়ার প্লান্ট বিভিন্ন সময়ে গৌরম্ভাসহ কয়েকটি ইউনিয়নে বহুমুখি সেবামুলক কর্মকান্ড পরিচালনা করে। এর আগে একই স্থানে ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্প বসিয়ে এলাকার মানুষকে স্বাস্থ্য সেবা দেয়া হয়েছে। শীতার্ত মানুষের মাঝে শীতের কম্বল বিতরণ করা হয়েছে। এবার বিনামুল্যে চক্ষু শিবিরের মাধ্যমে গরীব-অসহায় রোগীকে সেবা প্রদান করা হচ্ছে।
গৌরম্ভা ইউনিয়নের বাসিন্দা কুলসুম জানান, তার চোখে খুব অসুবিধা। তবে আর্থিক অবস্থা ভালো না হওয়ায় চোখের চিকিৎসা করানো হয়না। তবে এবার তার আশা পুরণ হবে বলে মনে করেন তিনি। কারণ রামপাল পাওয়ার প্লান্ট বিনামুলে চোখের রোগীদেও সেবা প্রদান করছে। কুলসুমের মতো, রবি, সাহেলা, আবিরসহ অনেকেই এসেছেন চোখের চিকিৎসা করানোর জন্যে।
বিআইএফপিসিএল’র উপ-প্রকল্প পরিচালক মো. রেজাউল করিম জানান, রামপাল পাওয়ার প্লান্টের সার্বিক সহযোগিতায় প্রকল্প সংলগ্ন বিভিন্ন এলাকায় নিয়মিত স্বাস্থ্য সেবা প্রদান করা হয়। প্রতি মাসে একবার কোন না কোন ইউনিয়নে ক্যাম্প বসিয়ে বিনামুল্যে স্বাস্থ্য সেবা প্রদানের পাশাপাশি ওষুধ ও প্রদান করা হয়। এছাড়া প্লান্টের মধ্যেও নিয়মিত প্লান্ট সংগল্গ মানুষের সেবা প্রদান করা হয়। এর জন্যে আমাদের কয়েকটি প্রতিষ্ঠিত বেসরকারী ক্লিনিক ঠিক করেছে।
প্রতিষ্ঠানটির মানব সম্পাদ বিভাগের ডেপুটি ম্যানেজার তরিকুল ইসলাম জানান, ২০১৪ সাল থেকে রামপাল পাওয়ার প্লান্টের উদ্যোগে প্রকল্প এবং প্রকল্পের বাইরে স্বাস্থ্য সেবা প্রদান করে আসছে। প্রকল্প এলাকায় সপ্তাহে দুই দনি এবং প্রকল্পের বাইরে প্রতি মাসে একবার ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্প বসানো হয়। এসব ক্যাম্পে আগত রোগীদের সেবার পাশাপাশি ওষুধও দেয়া হয়।
এ ব্যাপারে গৌরম্ভা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো: গিয়াস উদ্দিন গাজী জানান, এখনও পর্যন্ত রামপাল পাওয়ার প্লান্ট নির্মাণ কাজ সম্পন্ন হয়নি। তবু বসে নেই প্রতিষ্ঠানটি। একের পর এক জনকল্যাণমুখি কাজ করে যাচ্ছে। এর ফলে আমার ইউনিয়নের স্বল্প আয়ের মানুষের খুবই উপকার হচ্ছে।