বামজোটের ১৪ জনসহ অজ্ঞাত ২৫০জনকে আসামী করে মামলা : আটক-১৩

0
157

ফুলবাড়ীগেটপ্রতিনিধি:

পাটকল রক্ষায় সম্মিলিত নাগরিক পরিষদের ১৪ দফার দাবীতে খুলনা যশোর মহাসড়কের আটরা শিল্পাঞ্চলের রাজপথ অবরোধ চলাকালে পুলিশ-শ্রমিক সংঘর্ষের ঘটনায় পাটকল রক্ষায় সম্মিলিত নাগরিক পরিষদের ভারপ্রাপ্ত সদস্য জনার্দন দত্ত, সদস্য সচিব এম এ রশিদসহ ১৪জনের নাম উল্লেখ এবং অজ্ঞাতনামা আরো ২শ থেকে ২৫০ জনকে আসামী করে গাড়ী ভাংচুর ও পুলিশের কাজে বাধা দেয়ার অভিযোগে মামলা করা হয়েছে। সোমবার ১৯ অক্টোবর রাতে খানজাহান আলী থানায় এসআই মোঃ মেহেদী হাসান বাদী হয়ে এই মামলা দায়ের করেন। মামলা নং ১০, তাং ১৯/১০/২০২০)। আসামীরা হলেন পাটকল রক্ষায় সম্মিলিত নাগরিক পরিষদের সদস্য সচিব (ভারপ্রাপ্ত) জনার্দন দত্ত(৪৫), শ্রমিক নেতা মোঃ মোজাম্মেল হোসেন খান (৫৫), অলিয়ার রহমান (৪৮) সদস্য সচিব এম এ রশিদ (৫৮), মোঃ মিজানুর রহমান বাবু (৫৩), মো রবিউল ইসলাম (৩৫), শেখ রবিউল ইসলাম রবি (২৬), মোঃ শমসের আলম(৩৯), মোঃ আলামিন শেখ (২৬), নওশের আলী (৫০), মোঃ ফারুক হোসেন (৩৫), মোঃ জাহাঙ্গীর সরদার (৫০), মোঃ শহিদুল ইসলাম (৫০) এবং মোঃ আবুল হোসেন (৫০)। এর মধ্যে মামলার ২নং আসামী মোঃ মোজাম্মেল হোসেন খান (৫৫)কে পলাতক দেখানো হয়েছে, বাকী ১৩ জন গ্রেফতার। মামলার এজাহার সুত্রে জানাগেছে, পাটকল রক্ষায় সম্মিলিত নাগরিক পরিষদের ডাকা ১৯ অক্টোবরের ১১টা থেকে ১টা দুই ঘন্টা খুলনা যশোর মহাসড়কের আটরা শিল্পাঞ্চলের সড়ক অবরোধ কর্মসুচি পালনের লক্ষে সড়কের উপর শ্রমিকরা সমবেত হয়। তারা বেআইনীভাবে সড়ক ও রেলপথ অবরোধ করে বেলা সাড়ে ১১টায় গাড়ী যানবাহন ভাংচুর করে। এ সময় কর্তব্যরত পুলিশ তাদেরকে বেআইনী কার্যকলাপ থেকে বিরত থাকার আহবান করেন। অবরোধকারীরা পুলিশকে উদ্দেশ্য করে স্লোগান দিয়ে ভাংচুর করলে পুলিশ তাদেরকে বাধা দিলে পুলিশের সাথে শ্রমিকরা সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। এ মামলায় ১৩ জনকে গ্রেফতার ও ১ জনকে পলাতক দেখানো হয়েছে। ২০ অক্টোবর মঙ্গলবার আসামীদের জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে বলে খানজাহান আলী ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা প্রবীর কুমার বিশ্বাস জানান।